মঙ্গলবার, ২২ অক্টোবর ২০১৯, ০৮:৫০ অপরাহ্ন

ইমরান খানকে হটাতে বড় কর্মসূচি দিচ্ছে পাক জমিয়ত

ইমরান খানকে হটাতে বড় কর্মসূচি দিচ্ছে পাক জমিয়তে উলামা

পাথেয় টোয়েন্টিফোর ডটকম : পাকিস্তান প্রধানমন্ত্রী ইমরান খানকে হটাতে একজোট হচ্ছে পাকিস্তানের রাজনৈতিক দলগুলো। বর্তমান সরকারকে হটাতে খুব শিগগিরই জোটবদ্ধভাবে বড় ধরণের কর্মসূচি ঘোষণা করবে তারা।

মঙ্গলবার (১ অক্টোবর) জমিয়তে উলামায়ে ইসলামের আমির ও মজলিসে মুত্তাহাদা আমলের প্রধান মাওলানা ফজলুর রহমানের সরকারবিরোধী আন্দোলনে সমর্থন দিয়েছে পিপলস-পার্টি ও মুসলিম-লীগ।

এদিন ইসলামাবাদে পিপলস পার্টির নেতা বিলাওয়াল ভুট্টো জারদারি ও মুসলিম লীগ সভাপতি শাহবাজ শরিফের মধ্যে একটি বৈঠক অনুষ্ঠিত হয়। সেখান থেকে তারা মাওলানা ফজলুর রহমানের আন্দোলনে সমর্থন দেয়ার কথা জানান। জিয়ো নিউজের খবরে বলা হয়, মুসলিম লীগের পরে পিপলস পার্টির নেতৃবৃন্দও মাওলানা ফজলুর রহমানের সরকারবিরোধী আন্দোলনে অংশ নিতে সম্মত হয়েছে।

লংমার্চের ব্যাপারে চূড়ান্ত আলোচনার জন্য খুব শিগগির মুসলিম লীগ ও পিপলস পার্টির নেতারা মাওলানা ফজলুর রহমানের সঙ্গে সাক্ষাৎ করবেন বলে জানা গেছে। সরকারবিরোধী আন্দোলনের খুটিনাটি সব বিষয় নির্ধারণ করতে মাওলানা ফজলুর রহমানকে তারা একটি সর্বদলীয় কনফারেন্স আহবানের পরামর্শ দিবেন বলেও উভয় দল সিদ্ধান্ত নিয়েছে।

বৈঠক সূত্রে জানা যায়, উভয় দলের নেতাকর্মীরাই চাচ্ছে যে, ইসলামাবাদ অভিমুখী লংমার্চ আগামী নভেম্বরে সংগঠিত হোক। যদিও মাওলানা ফজলুর রহমান সরকার পতনের লক্ষ্যে অক্টোবরের মধ্যে চূড়ান্ত আন্দোলন শুরুর কথা ঘোষণা করেছিলেন।

এর আগে ইমরান খানের নেতৃত্বাধীন সরকারকে আগস্টের মধ্যে পদত্যাগ করতে সময়সীমা বেঁধে দিয়েছিলেন পাকিস্তান জমিয়তে উলামায়ে ইসলামের আমির ও মজলিসে মুত্তাহাদা আমলের প্রধান মাওলানা ফজলুর রহমান।

সরকারকে পদত্যাগের আলটিমেটাম দিয়ে তিনি বলেছিলেন, যদি আগস্টের মধ্যে ইমরান খান পদত্যাগ না করে তাহলে অক্টোবরে সারা দেশ ইসলামাবাদ অভিমুখে মার্চ করবে।

মাওলানা ফজলুর রহমান বলেন, আগামী অক্টোবরের মধ্যে ইমরান খান সরকারকে পদত্যাগ করতে হবে। এটা করলে তারা ইসলামাবাদ মার্চ থেকে নিজেদের রক্ষা করতে পারবে। অন্যথায় গোটা দেশ সেই মার্চে যোগ দেবে।

এদিকে মাওলানা ফজলুর রহমান গ্রেফতার হচ্ছেন বলে গুঞ্জন উঠেছে পাকিস্তানের রাজনৈতিক অঙ্গনে। দেশটির রেলমন্ত্রী শেখ রশিদ আহমদ কয়েকদিন আগে প্রকাশ্যে এমন হুমকি দিয়েছিলেন। মুসলিম নেতারাও ইমরান খানের জাতিসংঘে দেয়া ভাষণের ভূয়সী প্রশংসা করেছেন। বিশ্ব তাবলীগের গুরুত্বপূর্ণ দায়িত্বশীল মাওলানা তারিক জামিলও এ ভাষণের প্রশংসা করেছেন। এরপরও কেন মাওলানা ফজলুর রহমান বিরোধিতা করছেন তা বুঝতে পারছেন না রাজনীতি বিশ্লেষকের অনেকেই।

নিউজটি শেয়ার করুন

এই ওয়েবসাইটের কোনো লেখা, ছবি, ভিডিও অনুমতি ছাড়া ব্যবহার সম্পূর্ণ বেআইনি এবং শাস্তিযোগ্য অপরাধ
Design & Developed BY ThemesBazar.Com