৩১শে অক্টোবর, ২০২০ ইং , ১৫ই কার্তিক, ১৪২৭ বঙ্গাব্দ , ১৩ই রবিউল-আউয়াল, ১৪৪২ হিজরী

ইহুদি বসতি স্থাপনে অর্থ দিচ্ছেন চেলসির মালিক আব্রামোভিচ!

পাথেয় টোয়েন্টিফোর ডটকম : রোমান আব্রামোভিচ। তিনি ইংলিশ ফুটবল ক্লাব চেলসির মালিক হিসেবেই পরিচিত। ইংল্যান্ড ও ইউরোপের অন্যতম সেরা ক্লাব তার সময়েই হয় চেলসি। ব্লুজদের খেলা থাকলেই তাকে দেখা যেতো মাঠে। যদিও গত বছর তার ভিসার মেয়াদ না বাড়ানোয় বাধ্য হয়ে ইসরায়েলে বসবাস শুরু করেন তিনি। ২০১৮ সালে ইসরায়েল নাগরিকত্ব দেয় এই রুশ ধনকুবেরকে। তারই ‘কৃতজ্ঞতা’ হিসেবে এবার জেরুজালেমে ইহুদি বসতি স্থাপনকারী গ্রুপকে বিরাট অর্থ সাহায্য দিলেন আব্রামোভিচ। সম্প্রতি ফাঁস হওয়া এমন নথির সন্ধান পেয়েছে বিবিসি নিউজ অ্যারাবিক।

আব্রামোভিচের দান করা ১০ কোটি ডলার অর্থ দিয়ে পূর্ব জেরুজালেমে ইহুদিদের জন্য বসতি স্থাপন করা হবে। এতে ওই অঞ্চল থেকে বিতাড়িত হবে ফিলিস্তিনিরা।

রুশ ব্যবসায়ী আব্রামোভিচ আগে থেকেই ইসরায়েলে একজন মানবহিতৈষী হিসেবে পরিচিত। তিনি সেখানে গবেষণা ও উন্নয়ন প্রকল্পে অর্থ সাহায্য করেছেন এবং বিনিয়োগ করেছেন স্থানীয় নানা ফার্মে। তিনি নতুন করে আলোচনায় এলেন জেরুজালেমের মহাবিতর্কিত অঞ্চলে ইহুদি বসতি স্থাপনে সাহায্যকারী গ্রুপ ইলাদের পাশে দাঁড়ানোয়।

বিবিসি নিউজ বলছে, ইসরায়েল কর্তৃক অধিকৃত পূর্ব জেরুজালেমের ফিলিস্তিনি এলাকায় ইহুদি বসতি স্থাপনের কাজে ১০ কোটি ডলার অর্থ সাহায্য দিয়েছে ব্রিটিশ ভার্জিন দ্বীপে আব্রামোভিচের মালিকানাধীন কিংবা নিয়ন্ত্রিত চার কোম্পানি।

এর অর্থ, গত ১৫ বছরের মধ্যে একক কোনো ব্যক্তি ইলাদকে এত বেশি অর্থ সাহায্য করেনি। হিব্রু শব্দ ইলাদ-এর অর্থ ‘ঈশ্বরের প্রতি চির বিশ্বাস’।

পূর্ব জেরুজালেমের সিলওয়ান অঞ্চল থেকে আরব মুসলমানদের উচ্ছেদ করে ইহুদি বসতি স্থাপন করার কাজে ইসরায়েল সরকারের কাছ থেকেও আর্থিক সাহায্য গ্রহণ করেছে ইলাদ।

‘সিটি অব ডেভিড’ নামে সিলওয়ানে একটি প্রত্নতাত্ত্বিক স্থাপনা পরিচালনা করে থাকে ইলাদ। ঐতিহ্যবহুল সিলওয়ানে প্রচুর পর্যটকের সমাগত ঘটে। ঐতিহাসিক এ শহরে ফিলিস্তিনি অধিবাসীদের তাড়িয়ে সেখানে ইহুদি বসতি স্থাপনের পরিকল্পনায় ও অঞ্চলটির বৈচিত্র্য নষ্ট করার সম্ভাবনা নিয়ে উদ্বেগ প্রকাশ করেছেন ইউরোপিয়ান ইউনিয়নভুক্ত কূটনীতিকরা।

অন্য বসতি স্থাপনকারী সংস্থার মতো ইলাদও বিতর্কিত ‘ইসরায়েলি আইন’ কাজে লাগিয়ে ফিলিস্তিনিদের বাড়িঘর ও সম্পত্তি কিনে নিচ্ছে। এভাবেই সিলওয়ানে ক্রমে বাড়ছে ইহুদি জনসংখ্যা। সেখানে এখন ১০ হাজার ফিলিস্তিনির বিপরীতে ইহুদি বসতি স্থাপনকারী রয়েছে ৪৫০টি।

সম্প্রতি এক গোপন নথি ফাঁস হয়, যাতে দেখা যায় বিশ্বব্যাপী কয়েকটি শীর্ষ ব্যাংকের মাধ্যমে অন্তত ২ ট্রিলিয়ন ডলারের সন্দেহজনক অবৈধ লেনদেন হয়েছে। এর সূত্র থেকেই জেরুজালেমের ইহুদি বসতি স্থাপনে আব্রামোভিচের অর্থ সাহায্য দেয়ার বিষয়টি বের করে এনেছে বিবিসি নিউজ। অন্তত ২ হাজার সন্দেহজনক লেনদেনের খবর পেয়েছে যুক্তরাষ্ট্র সরকারের ফাইন্যান্সিয়াল ক্রাইমস এনফোর্সমেন্ট নেটওয়ার্ক (ফিরচেন), যা ফাঁস হয়ে চলে যায় ডিজিটাল নিউজ প্লাটফর্ম বাজফিল্ডের হাতে।

বিবিসি নিউজ অ্যারাবিকের খবরে আব্রামোভিচের এক মুখপাত্রের উদ্ধৃতি দিয়ে বলা হয়, ‘তিনি (আব্রামোভিচ) ইসরায়েল ও ইহুদি সুশীল সমাজের একজন নিবেদিত সমর্থক এবং গত ২০ বছরে তিনি স্বাস্থ্যসেবা, বিজ্ঞান, শিক্ষা এবং ইসরায়েল ও বিশ্বজুড়ে ইহুদি জাতিগোষ্ঠীর মানুষের জন্য অন্তত ৫০ কোটি ডলার দান করেছেন।’

১৯৬৭ সালের ‘ছয় দিনের যুদ্ধ’ শেষে জর্ডানের কাছ থেকে সিলওয়ান দখল করে নেয় ইসরায়েল। আন্তর্জাতিক আইন অনুসারে, কোনো অধিকৃত অঞ্চলে বসতি স্থাপন করা যাবে না। যদিও সিলওয়ানকে নিজেদের সার্বভৌম অঞ্চল হিসেবেই মনে করে ইসরায়েল। অবশ্য তার কোনো আন্তর্জাতিক স্বীকৃতি নেই।

/এএ

নিউজটি শেয়ার করুন

এই ওয়েবসাইটের কোনো লেখা, ছবি, ভিডিও অনুমতি ছাড়া ব্যবহার সম্পূর্ণ বেআইনি এবং শাস্তিযোগ্য অপরাধ
Design & Developed BY ThemesBazar.Com