মঙ্গলবার, ১৭ সেপ্টেম্বর ২০১৯, ০৯:০১ অপরাহ্ন

এনআরসি থেকে বাদ পড়লেন চন্দ্রযান ২-এর কর্মকর্তা গোস্বামী

পাথেয় টোয়েন্টিফোর ডটকম : জাতীয় নাগরিক তালিকা এনআরসি থেকে শুধু মুসলিম বিশিষ্ট ব্যক্তিরাসহ সাধারণ মুসলমানরাই বাদ পড়েননি বরং বিশিষ্ট হিন্দু ব্যক্তিত্ব চন্দ্রযান ২-এর উর্ধ্বতন কর্মকর্তা ড. জিতেন্দ্রনাথ গোস্বামীসহ অনেক হিন্দুই বাদ পড়েছেন। বাদ পড়া ১৯ লাখ মানুষের মধ্যে হিন্দুই বেশি বলে উল্লেখ করেছেন ভারতীয় গণমাধ্যম আজকাল।

বিভিন্ন গণমাধ্যমে উঠে এসেছে, ভারতে সদ্য প্রকাশিত জাতীয় নাগরিকপঞ্জিতে নেই ভারতের সাবেক রাষ্ট্রপতির পরিবার, বিরোধী দলের বিধায়ক, কার্গিল যুদ্ধে অংশগ্রহণকারী মুসলিম সেনা অফিসার, স্বাধীনতা সংগ্রামে অংশগ্রহণকারী অনেকের পরিবার। আর এবার বেরিয়ে আসলো চন্দ্রপৃষ্ঠ স্পর্শ করতে যাওয়া চন্দ্রযান ২-এর এক উর্ধ্বতন কর্মকর্তা ড. জিতেন্দ্রনাথ গোস্বামীর বাদ পড়ার ঘটনা।

ড. জিতেন্দ্রনাথ গোস্বামী জানান, ‘তার নামই নেই চূড়ান্ত তালিকায়। মোদি সরকারের জাতীয় নাগরিকপঞ্জি এখন লজ্জার বিষয় ভারতবাসীর কাছে। জাতির জন্য লজ্জা।’

১৯৫০ সালের ১৮ নভেম্বর আসামেই আমার জন্ম। আর গত ২০ বছর ধরে আহমেদাবাদে থাকি। আমার পরিবারের অনেকেই এখনও আসামে থাকেন। জোরহাটে আমাদের জমিজমাও রয়েছে। কিন্তু কীভাবে আমার এবং পরিজনদের নাম বাদ পড়েছে চূড়ান্ত তালিকা থেকে তা বোধগম্য নয়।

ড. জিতেন্দ্রনাথ গোস্বামী এখন চন্দ্রযান অভিযান থেকে ফিরে এসে নাগরিকত্ব ফিরে পাওয়ার অভিযানে আদালতেরন দারস্থ হতে হচ্ছে তাকে। তিনি তার নাগরিকত্ব ফিরে পেতে চান।

জিতেন্দ্রনাথ গোস্বামীসহ অনেক বিখ্যাত ও সাধারণ হিন্দু-মুসলিম নারী-পুরুষ তাদের বৈধ অধিকার থেকে বঞ্চিত হয়ে নিরাপত্তাহীনতার জীবন যাপন করছেন।

উল্লেখ্য যে, তার দাদা হিতেন্দ্রনাথ গোস্বামী আসাম বিধানসভার অধ্যক্ষ। জিতেন্দ্রনাথবাবু জানান, ভাইয়ের সঙ্গে কথা বলে তাঁর পরামর্শ মতো পরবর্তী পদক্ষেপ করতে হবে। ইসরোর মিশন মঙ্গলযান প্রকল্পের সঙ্গেও যুক্ত ছিলেন বিজ্ঞানী জিতেন্দ্রনাথ গোস্বামী। বর্তমানে তিনি ভারতের স্বপ্নের চন্দ্রযান ২-এর প্রকল্পের অন্যতম উপদেষ্টা কর্মকর্তা হিসেবে কর্মরত।

নিউজটি শেয়ার করুন

এই ওয়েবসাইটের কোনো লেখা, ছবি, ভিডিও অনুমতি ছাড়া ব্যবহার সম্পূর্ণ বেআইনি এবং শাস্তিযোগ্য অপরাধ
Design & Developed BY ThemesBazar.Com