৯ই এপ্রিল, ২০২০ ইং , ২৬শে চৈত্র, ১৪২৬ বঙ্গাব্দ , ১৬ই শাবান, ১৪৪১ হিজরী

এনপিআর-এর তথ্য সংগ্রহকারীদের প্রতি কোন ধরনের সহযোগিতা নয় : হিন্দ জমিয়ত

এনপিআর-এর তথ্য সংগ্রহকারীদের প্রতি কোন ধরনের সহযোগিতা নয় : হিন্দ জমিয়ত

পাথেয় টোয়েন্টিফোর ডটকম : এনপিআরকে প্রত্যাখ্যান করে জমিয়তে উলামা হিন্দ জনসাধারণের প্রতি আহ্বান জানিয়ে বলেছে, এনপিআরে এর কার্যক্রম পহেলা এপ্রিল থেকে ২০ সেপ্টেম্বর পর্যন্ত চলবে। এসময় জন্ম সনদ, আইডি কার্ড ইত্যাদি সংগ্রহের জন্য ঘরে ঘরে গমনকারীদেরকে প্রত্যাখ্যান করত তাদের কোনরকম সহায়তা না করে বিরোধিতায় আপনারা অটল থাকবেন।

শনিবার (২২ ফেব্রুয়ারি) জমিয়তে উলামা হিন্দের প্রধান অধিদফতর দিল্লিতে এন আর সি, এন পি আর বিষয়ক মিটিংয়ে সকল ধর্মমতের নেতৃবৃন্দের সম্মতিক্রমে এ সিদ্ধান্ত গৃহীত হয়।

এছাড়াও এ মিটিংয়ে জমিয়তে উলামা হিন্দের অধীনে সকল নেতৃস্থানীয় ও বুদ্ধিজীবিমহলের এন পি আরকে সম্মিলিত বয়কটের ঘোষণা উঠে আসে।

জমিয়তে উলামা হিন্দের চেয়ারম্যান মাওলানা কারী উসমান মানসুরপুরির সভাপতিত্বে জমিয়তে উলামা হিন্দের প্রধান অধিদফতর দিল্লিতে এন আর সি, এন আর পি বিষয়ক এ মিটিংয়ের প্রধান আহবায়ক ছিলেন জমিয়তে উলামা হিন্দের জেনারেল সেক্রেটারি মাওলানা মাহমুদ মাদানি। মিটিংয়ে উপস্থিত ছিলেন সমস্ত ধর্মের ও সামাজিক নেতৃবৃন্দ।

দীর্ঘ চারঘন্টার এমিটিংয়ে ‘দিল্লি ঘোষণা’ নামে একটি ঘোষণা সিদ্ধান্তরূপে গৃহীত হয়। এ ঘোষণাতে সুষ্পষ্টভাবে এন পি আরকে বাতিল করার কথা বলা হয়েছে। পাশাপাশি জনসাধারণের প্রতি পহেলা এপ্রিল থেকে ৩০ সেপ্টেম্বর পর্যন্ত এন পি আর এর লক্ষ্যে ঘরে ঘরে জন্ম সনদ, ভোটার আইডি ইত্যাদি সংগ্রহকারীদের সহযোগিতা না করবার কথা উল্লেখ করা হয়েছে।

আইনি দিকগুলো পর্যালোচনা করে সর্বসম্মতক্রমে ‘দিল্লি ঘোষণাতে’ মোট সাত দফা ঘোষণা দেয়া হয়েছে।

১.আমরা সুস্পষ্টভাবে এন আর পিকে প্রত্যাখ্যান করে বলছি, এটা ভারতের আইনিধারা ১৪ এর ঘোর বিরোধি। এন পি আর এর জন্য তথ্য জমা করার প্রক্রিয়া তার প্রথম ধাপ। এটা নাগরিকত্ব আইন ১৯৯৫ ও নাগরিকত্ব বিধি ২০০৩ দ্বারা স্পষ্ট প্রতীয়মান যে, এ আইন চরমতর অসাংবিধানিক। যার মাধ্যমে ধর্মভিত্তিক সাম্প্রদায়িকতা ছড়ানো ও সকল ধর্মের দেশে ভারতবর্ষে বিভাজনের দূরভিসন্ধি ঘটানোর অপচেষ্টা করা হচ্ছে।

২. এন পি আর কার্যক্রম পহেলা এপ্রিল থেকে ২০ সেপ্টেম্বর পর্যন্ত চলবে। এসময় জন্ম সনদ, আইডি কার্ড ইত্যাদি সংগ্রহের জন্য ঘরে ঘরে গমনকারীদেরকে প্রত্যাখ্যান করত তাদের কোনরকম সহায়তা না করার আহ্বান করা যাচ্ছে।

৩. আমরা সমস্ত রাজ্য সরকারকে অনতিবিলম্বে এন পি আরকে স্থগিত করার আহ্বান জানাই। পাশাপাশি শান্তিপূর্ণ আন্দোলনকারীদের নাগরিক অধিকার রক্ষা করার প্রতি সকল মানবাধিকার সংগঠনের বিশেষ দৃষ্টি আকর্ষণ করছি।

৪. আমরা বিশেষভাবে উত্তরপ্রদেশসহ সারা দেশের শান্তিপূর্ণ আন্দোলনকারীদের উপর গুলিবর্ষণ ও তাদের প্রতি পুলিশি নির্যাতনের ঘোর নিন্দা জানিয়ে তাদের সতর্ক করে দিতে চাই যে, এ আন্দোলন করা প্রত্যেকের নাগরিক অধিকার।

৫. আমরা দেশের সমস্ত ধর্মের যুবক-ছাত্রসমাজ ও শাহীনবাগে আন্দোলনরত রমণীদের পক্ষ থেকে এ আন্দোলনকে জানাই সশ্রদ্ধ সালাম।

৬. দেশব্যাপী এ আন্দোলন প্রেক্ষিতে বিদ্বেষমূলক যত নির্যাতন ও গ্রেফতারির নিন্দা জানিয়ে অবিলম্বে তাদের বিনাশর্তে মুক্তির দাবি জানাই। এছাড়াও আন্দোলনরতদের মধ্যে ক্ষতিগ্রস্ত সকলের দ্রুত ক্ষতিপূরণ দানের দাবি জানাচ্ছি।

৭. আন্দোলনরত সকলের প্রতি আমাদের আবেদন, আন্দোলনে আপনারা শান্তি বজায় রাখুন। শুধুমাত্র জোশের বশে কোন প্রোপাগান্ডায় না পড়ে তার সাথে হুশও বজায় রাখুন।

এছাড়াও মিটিংয়ে একটি খসড়া কমিটি তৈরী করা হয়েছে। একমিটিতে সাবেক কেন্দ্রিয় মন্ত্রী কে রহমান খান, বিশিষ্ট সমাজ বিশ্লেষক আবু সালেহ শরিফ, খ্রিষ্ট ধর্ম প্রচারক জান দয়াল, এম এম আনসারি, কাসেম রসূল ইলয়াস, ধনরাজ, উয়াইস সুলতান খান, প্রমুখ ব্যক্তিবর্গ রয়েছেন।

মিটিংয়ের সমাপনী বক্তব্যে মিটিংয়ে অংশগ্রহণকারী সকল ধর্মমতের নেতৃবৃন্দের প্রতি কৃতজ্ঞতা প্রকাশ করে জমিয়তে উলামা হিন্দের জেনারেল সেক্রেটারি মাওলানা মাহমুদ মাদানি বলেন, জানুয়ারির প্রথম সপ্তাহে সি আই আই নিয়ে জমিয়তে উলামা হিন্দের ‘মজলিসে আমেলার’ বৈঠকে আমরা একটি সকল ধর্মের সম্মিলিত অংশগ্রহণে একটা বৈঠকের সিদ্ধান্ত নিয়েছিলাম। আজকের এ মিটিং তারই ফসল। আজকের মিটিংয়ে অংশগ্রহণকারী সকল ধর্মমতের নেতৃবৃন্দের প্রতি আমি কৃতজ্ঞতা প্রকাশ করছি। তারা আমাদের আজ বিভিন্ন দিক-নির্দেশনা দান করেছেন। আর আমরা সরকারের কাছে আশাবাদি, যে সরকার জনগনের হৃদয়ের কথা বুঝবে।

এছাড়াও মিটিংয়ে আরও উপস্থিত ছিলেন, মাওলানা কামাল ফারুকী, আবু বকর সাব্বাক, অমরেশ রয়, উমাওয়ালি শঙ্কর, জনাব সেলিম ইঞ্জিনিয়ার (জামায়াতে ইসলাম হিন্দ), ডাক্তার যফরুল ইসলাম খান, মোদি শিশ, রাজকুমার জেন, জনাব মুহাম্মাদ আদিব, নরেন্দ্র কুমার শর্মা, পি এম আই সালাম, শাকিল আহমদ সাইয়িদ এ্যাডভেোকেট, নাদিম খান, খালেদ আনসারি, জিতেন্দ্র, রাকেশ বাহাদুর, আব্দুস সামী, রাকেশ রফিক প্রমুখ।

নিউজটি শেয়ার করুন

এই ওয়েবসাইটের কোনো লেখা, ছবি, ভিডিও অনুমতি ছাড়া ব্যবহার সম্পূর্ণ বেআইনি এবং শাস্তিযোগ্য অপরাধ
Design & Developed BY ThemesBazar.Com