৯ই এপ্রিল, ২০২০ ইং , ২৬শে চৈত্র, ১৪২৬ বঙ্গাব্দ , ১৫ই শাবান, ১৪৪১ হিজরী

করোনা সতর্কতায় কী বলছেন ক্রিকেটাররা

করোনা সতর্কতায় কী বলছেন ক্রিকেটাররা

পাথেয় টোয়েন্টিফোর ডটকম : বিশ্বে ক্রিকেটাররাও আক্রান্ত হচ্ছেন করোনা ভাইরাসে। মরণঘাতী এই ভাইরাসে বিশ্বের আর কোনো দেশ বাদ নেই। এক ক্লাবের সব ফুটবলারই আক্রান্ত। এ মুহূর্তে প্রয়োজন সতর্কতা। প্রতিদিনই করোনা ভাইরাসে আক্রান্ত হচ্ছে মানুষ। বাড়ছে মৃত্যুর হার। এক মানুষ থেকে আরেক মানুষে ছড়াচ্ছে । এখন পর্যন্ত কোনো ভ্যাকসিন বের হয়নি। প্রতিকারের উপায় নেই তাই প্রতিরোধই একমাত্র উপায়। বিশ্ব স্বাস্থ্য সংস্থা ইতিমধ্যে মহামারী ঘোষণা করেছে। গোটা পৃথিবী এখন আতঙ্কগ্রস্ত। স্থবির হয়ে গেছে ক্রীড়াবিশ্বও। মানুষকে সচেতন করতে সতর্কবার্তা দিয়েছেন ক্রীড়াবিদরা। সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে দেওয়া কিছু বার্তা ঠকদের উদ্দেশে তুলে ধরেছেন- মেজবাহ্-উল-হক

মাশরাফি বিন মর্তুজা
সাবেক অধিনায়ক, বাংলাদেশ

‘ইতিবাচকভাবে কথা বলুন এবং হাত ধোয়া সম্পর্কিত টিপস অনুসরণ করে কার্যকর প্রতিরোধ ব্যবস্থার ওপর জোর দিন। বেশির ভাগ মানুষের ক্ষেত্রে এটি এমন একটি রোগ যা তারা কাটিয়ে উঠতে পারে। নিজেকে, প্রিয়জনদের এবং সবচেয়ে দুর্বলকে সুরক্ষিত রাখতে আমরা সবাই নিতে পারি এমন সহজ পদক্ষেপ।’

মুশফিকুর রহিম
ব্যাটসম্যান ও উইকেট রক্ষক

‘বিদেশ থেকে আসা ভাইদের প্রতি আমার বিশেষ অনুরোধ, আপনারা নিজের পরিবার এবং দেশের সবার সুস্থতার জন্য কমপক্ষে ১৪ দিন হোম কোয়ারেন্টাইনে থাকুন। মনে রাখবেন, আপনি শুধু আপনার জন্য নন। আপনার সন্তান, পরিবার, আত্মীয়-স্বজন, প্রতিবেশী এবং সব মানুষের জন্য নিজেকে সচেতন রাখবেন। দয়া করে এই সময় বাইরে কেউ একসঙ্গে ঘুরতে বের হবেন না।’

সাকিব আল হাসান
অলরাউন্ডার

 

সাম্প্রতিক ঘটনার পরিপ্রেক্ষিতে করোনাভাইরাসের প্রাদুর্ভাব রুখতে আমাদের অবশ্যই প্রয়োজনীয় সুরক্ষা নিতে হবে। দৈনন্দিন স্বাস্থ্যসম্মত অভ্যাসের দ্বারা নিজের যত্ন নিন এবং আমাদের চারপাশে সবাইকে সচেতন করে তুলুন। নিরাপদ এবং ইতিবাচক থাকার চেষ্টা করুন এবং নিজে সচেতন থাকুন।

হার্সেল গিবস

সাবেক ক্রিকেটার, দক্ষিণ আফ্রিকা

‘ভয় পাবেন না। মনকে শক্ত করুন, নিরাপদ থাকুন। সবাই নিকটস্থ জায়গায় নিয়ে করোনাভাইরাসের পরীক্ষা করান।’

মোহাম্মদ সামি

পেসার, ভারত

‘আপনার সুরক্ষা আপনার হাতেই। সামি ভাই কেবল আপনাকে অনুরোধ করতে পারে ঘর থেকে বের হবেন না। নিরাপদ থাকবেন, সুস্থ থাকবেন।’

কেভিন পিটারসেন

সাবেক ক্রিকেটার, ইংল্যান্ড

‘করোনাভাইরাসকে পরাজিত করতে আমরা সবাই একসঙ্গে কাজ করব। আমরা সরকারের আদেশ-নির্দেশ মেনে চলব। এই মুহূর্তে সবাইকে অনেক বেশি সাবধান থাকতে হবে। সবার জন্য রইল ভালোবাসা।’

উপুল থারাঙ্গা

ব্যাটসম্যান, শ্রীলঙ্কা

‘এই কঠিন সময়ে সতর্ক থাকুন। বাসায় থাকুন। সরকারের নির্দেশনা মেনে চলুন। নিজের প্রতি বিশেষ যত্নবান হোন, কভিড-১৯ থেকে মুক্ত থাকুন।’

থিসারা পেরেরা

অলরাউন্ডার, শ্রীলঙ্কা

‘যদি এমন পরিস্থিতিতেও আপনি পাবলিক প্লেসে যাওয়া বন্ধ না করেন তাহলে আপনি হয় খুবই কান্ডজ্ঞানহীন নয়তো খুবই স্বার্থপর মানুষ। প্লিজ, বাসায় থাকুন। নিজের দায়িত্ববোধ সম্পর্কে সচেতন হোন। বাসায় থাকুন। অন্যদের সঙ্গে দূরত্ব বজায় রাখুন। নিয়মিত হাত ধুবেন। মুখমন্ডল স্পর্শ করবেন না।’

বিরাট কোহলি

অধিনায়ক, ভারত

‘কভিড-১৯ হুমকির বিরুদ্ধে লড়াই করতে সতর্ক, সচেতন এবং মনোযোগী হোন। আমরা সবাই রাষ্ট্রের দায়িত্বশীল নাগরিক, আমাদের উচিত সরকারের নির্দেশনা যথাযথভাবে মেনে চলা। বাসায় থাকুন। নিরাপদ থাকুন। সুস্থ থাকুন।’

অ্যাঞ্জেলো ম্যাথুস

অলরাউন্ডার, শ্রীলঙ্কা

‘নিজের কাজটি করুন খুব ভালোভাবে। পুলিশ, স্বাস্থ্যকর্মী এবং করোনাভাইরাসের বিরুদ্ধে লড়তে যারা পরিশ্রম করে যাচ্ছেন দিন-রাত তাদের সহযোগিতা করুন। করোনার বিরুদ্ধে যুদ্ধে স্বার্থপরের মতো আচরণ করবেন না। নিয়মিত হাত ধুবেন।’

 

নিউজটি শেয়ার করুন

এই ওয়েবসাইটের কোনো লেখা, ছবি, ভিডিও অনুমতি ছাড়া ব্যবহার সম্পূর্ণ বেআইনি এবং শাস্তিযোগ্য অপরাধ
Design & Developed BY ThemesBazar.Com