২৫শে অক্টোবর, ২০২০ ইং , ৯ই কার্তিক, ১৪২৭ বঙ্গাব্দ , ৭ই রবিউল-আউয়াল, ১৪৪২ হিজরী

কাশ্মীরের সম্মান ফেরাতে পারবে মেহবুবা-ফারুকের জোট?

কাশ্মীরের সম্মান ফেরাতে পারবে মেহবুবা-ফারুকের জোট?

পাথেয় টোয়েন্টিফোর ডটকম : কাশ্মীরের হারনো ঐতিহ্য ও সম্মান ফিরিয়ে আনা কি সম্ভব হবে? এমন আশাবাদ থেকেই নতুন জোট গঠন করেছেন কাশ্মীরের সাবেক মুখ্যমন্ত্রী মেহবুবা মুফতি। এক বছরের বেশি সময় গৃহবন্দি থাকার পর সম্প্রতি মুক্তি পেয়েছেন ভারত নিয়ন্ত্রিত কাশ্মীরের সাবেক মুখ্যমন্ত্রী মেহবুবা মুফতি। এর মধ্যে জম্মু-কাশ্মীরে রাজনীতির চাকা গড়াতে শুরু করেছে। ৩৭০ ধারা ফেরাতে পিডিপি, এনসি ও অন্যান্য কয়েকটি বড় দল নিয়ে ‘পিপলস অ্যালায়েন্স ফর গুপকার ডিক্লারেশন’ নামে একটি জোট গঠন করেছেন মেহবুবা মুফতি ও ন্যাশনাল কনফারেন্সের প্রেসিডেন্ট ফারুক আবদুল্লাহ।

ভারতীয় সংবাদমাধ্যমের প্রতিবেদনে বলা হয়েছে, ফারুক আবদুল্লাহর বাড়িতে এ নিয়ে বৈঠক অনুষ্ঠিত হয়। এতে পিপলস ডেমোক্রেটিক পার্টির (পিডিপি) প্রেসিডেন্ট মেহবুবা মুফতি, পিপলস কনফারেন্সের চেয়ারম্যান সাজ্জাদ লোন, পিপলস মুভমেন্টের নেতা জাভেদ মির ও সিপিএমের মহম্মদ ইউসুফ তারিগামি উপস্থিত ছিলেন।

বৈঠকের পর ফারুক বলেন, একটি জোট গঠনের সিদ্ধান্ত নেয়া হয়েছে। এই জোট কাশ্মীরের বিশেষ মর্যাদা ফেরানোর চেষ্টা করবে। বৈঠকে জম্মু-কাশ্মীর কংগ্রেস প্রধান গুলাম মির শারীরিক অসুস্থতার কারণে আসতে পারেননি।

গত বছরের আগস্টে ৩৭০ ধারা বিলুপ্তির সঙ্গে সঙ্গে বিশেষ মর্যাদা হারায় কাশ্মীর। এ ঘটনার ঠিক আগে আগে রাজ্যের সাবেক মুখ্যমন্ত্রী মেহবুবা মুফতি, ওমর আবদুল্লাসহ একাধিক স্থানীয় নেতানেত্রীকে আটক করে সরকার। পরে তাদের গৃহবন্দি করে রাখা হয়।

৩৭০ ধারা বাতিলের পর মেহবুবাকে প্রথমে দুটি সরকারি বাসস্থানে আট মাস গৃহবন্দি করে রাখা হয়। তারপর চলতি বছরের ফেব্রুয়ারিতে তাকে ফের আটক করা হয়। পরে তার বাসভবন ‘ফেয়ার ভিউ’য়ে স্থানান্তরিত করা হয়। সেই বাসভবনকেই অস্থায়ী জেলে পরিণত করা হয় এবং সেখানেই গৃহবন্দি করে রাখা হয় এই নেত্রীকে।

নিউজটি শেয়ার করুন

এই ওয়েবসাইটের কোনো লেখা, ছবি, ভিডিও অনুমতি ছাড়া ব্যবহার সম্পূর্ণ বেআইনি এবং শাস্তিযোগ্য অপরাধ
Design & Developed BY ThemesBazar.Com