২৩শে এপ্রিল, ২০২১ খ্রিস্টাব্দ , ১০ই বৈশাখ, ১৪২৮ বঙ্গাব্দ , ১০ই রমজান, ১৪৪২ হিজরি

কিছু কিছু খাল সরকারও দখল করেছে

কিছু কিছু খাল সরকারও দখল করেছে

পাথেয় টোয়েন্টিফোর ডটকম : দখল হওয়া খালগুলোর মধ্যে কিছু সরকারও দখল করেছে বলে জানিয়েছেন স্থানীয় সরকার, পল্লী উন্নয়ন ও সমবায় মন্ত্রী মো. তাজুল ইসলাম। মঙ্গলবার দুপুরে মন্ত্রণালয়ে নিজ কক্ষে নওগাঁ ও চুয়াডাঙ্গা জেলা পরিষদের নবনির্বাচিত সদস্যদের শপথবাক্য পাঠ করানোর পর সাংবাদিকদের প্রশ্নের জবাবে মন্ত্রী এসব কথা জানান।

সিটি করপোরেশনের কাছে হস্তান্তর করা খালগুলো নিয়ে পরিকল্পনার বিষয়ে জানতে চাইলে তিনি বলেন, খালগুলো হস্তান্তরের পর সেগুলো সংস্কার করে আধুনিক ব্যবস্থাপনার জন্য সিটি করপোরেশনকে দায়িত্ব দেয়া হয়েছে। আগামী দুই দিনের মধ্যে দুই সিটির মেয়রকে নিয়ে আমরা একটি সভা করব। তাদের কর্মপরিকল্পনা সম্পর্কে জানব। আমার মন্ত্রণালয়ের পক্ষ থেকে একটি কর্মপরিকল্পনা করেছে, সেটা তাদের জানাবো। সমন্বিতভাবে সন্ত্রণালয়ের নেতৃত্বে আমরা সংস্কার কাজগুলো করব।

তিনি আরও বলেন, হাতিরঝিল আমাদের জন্য একটি মডেল হতে পারে। এটিকে রেফারেন্স হিসেবে ব্যবহার করে দু’পাশে হাঁটার রাস্তা করে জলধারগুলোকে সংরক্ষণ করা এবং মানুষের জন্য স্বাচ্ছন্দ্যপূর্ণ নগর গড়ে তোলার ক্ষেত্রে অবদান রাখার কাজটি করব।

খালগুলো দখলমুক্ত করার বিষয়ে জানতে চাইলে তাজুল ইসলাম বলেন, যেসব জায়গায় অবৈধভাবে দখল হয়েছে সঙ্গত কারণে সিটি করপোরেশন তাদের দায়িত্বের অংশ হিসেবে এটি করবে এবং করা উচিত। সেটা করার জন্য আমাদের সহায়তা অব্যাহত থাকবে।

খাল দখল করে নির্মাণ করা ভবনগুলো উচ্ছেদ করা সম্ভব কিনা— এমন প্রশ্নে মন্ত্রী বলেন, সেগুলো কখন এবং কিভাবে করা হয়েছে, তা সুনির্দিষ্টভাবে খতিয়ে দেখা হবে। কিছু কিছু খাল তো সরকারও দখল করেছে। কোথাও কোথাও খালের মধ্যে রাস্তা হয়ে গেছে। সেই রাস্তা এখন জনবহুল রাস্তা। এগুলো নিয়ে কাজ করা চ্যালেঞ্জিং ইস্যু। তবুও যেসব খাল অবৈধভাবে দখল করা হয়েছে, সেগুলো নিয়ে সিটি করপোরেশন তাদের দায়িত্ব পালন করবে সেটাই স্বাভাবিক।

তুরাগ পাড়ে নতুন শহর নির্মাণ প্রসঙ্গে মন্ত্রী জানান, তুরাগ পাড়ে যে শহর গড়ে তোলা হবে সেখানে ৬০ শতাংশের বেশি ওয়াটার বডি থাকবে। এ লক্ষ্যে একটি প্রকল্প তৈরি করা হচ্ছে। তুরাগে এই নগরী নির্মিত হলে সিঙ্গাপুর-থাইল্যান্ডের চেয়েও সুন্দর একটি নগরী হবে।

মশা নিয়ে এক প্রশ্নের জবাবে মন্ত্রী বলেন, মশা ভয়ঙ্কর আকার ধারণ করেছে কিনা জানিনা। তবে এটা বুঝেছি যে ইদানিং মশা দেখা যাচ্ছে। আমার নিজের বাসায়ও দু’একটা মশা দেখি, যেটা আগে দেখিনি। মশা মারা এবং ডেঙ্গু থেকে নগরবাসীকে রক্ষা করার জন্য পরিকল্পিত ব্যবস্থাপনা নিয়ে কাজ করছি। তাতে করে একটা সফলতা অর্জন করেছি, সেটা সবাইকে স্বীকার করতে হবে। মশার প্রাদুর্ভাব নিয়ে আগামী সপ্তাহে আন্তঃমন্ত্রণালয় সভা করা হবে বলেও জানান তিনি।

শেয়ার করুন


সর্বস্বত্ব সংরক্ষিত © ১৯৮৬ - ২০২১ মাসিক পাথেয় (রেজিঃ ডি.এ. ৬৭৫) | patheo24.com
Design & Developed BY ThemesBazar.Com