৩১শে অক্টোবর, ২০২০ ইং , ১৫ই কার্তিক, ১৪২৭ বঙ্গাব্দ , ১৩ই রবিউল-আউয়াল, ১৪৪২ হিজরী

তাবলিগ জামাতের দুই পক্ষের সংঘর্ষ : প্রসঙ্গ মাদরাসার নিয়ন্ত্রণ প্রতিষ্ঠা

তাবলিগ জামাতের দুই পক্ষের সংঘর্ষ

প্রসঙ্গ মাদরাসার নিয়ন্ত্রণ প্রতিষ্ঠা

পাথেয় টোয়েন্টিফোর ডটকম : তাবলীগ নিয়ে জনযুদ্ধের রেশ কাটেনি এখনো। চলছে এখন ইলমে নববীর একটি প্রতিষ্ঠান নিয়ে মারামারি। রাজধানীর ভাটারায় আল মাদরাসাতুল মঈনুল ইসলামের নিয়ন্ত্রণ নিয়ে দুই পক্ষের সংঘর্ষের ঘটনা ঘটেছে। এ সময় বেশ কয়েকজন আহত হয়েছেন বলে জানা গেছে।

মঙ্গলবার রাতে তাবলীগ জামায়াতের বিবাদমান মাওলানা সাদ কান্ধলভী সমর্থক ও মাওলানা জুবায়ের আহমেদের সমর্থকদের মধ্যে এই সংঘর্ষ হয়েছে।

সর্বশেষ রাত সাড়ে ১২টায় এই প্রতিবেদন লেখা পর্যন্ত সেখানে উভয় পক্ষের মধ্যে উত্তেজনা চলছিল। অতিরিক্ত পুলিশ মোতায়েন করা হয়।

ভাটারার ছোলমাইদ পশ্চিম ঢালিবাড়ি এলাকায় অবস্থিত মাদরাসাটি স্থানীয়ভাবে মঈনুল মাদরাসা নামে পরিচিত।

পুলিশের গুলশান বিভাগ গণমাধ্যমকে বিষয়টি নিশ্চিত করেছেন।

পুলিশের বাড্ডা জোনের সহকারী কমিশনার (এসি) এলিন চৌধুরী জানান, মাদরাসার নিয়ন্ত্রণ নিয়ে দুই পক্ষের মধ্যে ধাওয়া পাল্টা-ধাওয়া ও সংঘর্ষ হয়। এতে উভয় পক্ষেরই কয়েকজন আহত হন। পরিস্থিতি স্বাভাবিক রাখতে ঘটনাস্থলে অতিরিক্ত পুলিশ মোতায়েন করা হয়েছে।

পুলিশ ও প্রত্যক্ষদর্শীরা জানান, চলতি বছর মাদরাসাটির দখল, পাল্টা দখল নিয়ে মাওলানা সাদপন্থী ও জুবায়েরপন্থীদের মধ্যে ঝামেলা চলে আসছিল। সর্বশেষ মাদরাসার নিয়ন্ত্রণ ছিল জুবায়েরপন্থীদের কাছে।

তারা জানান, মঙ্গলবার রাত ৮টার পর মাওলানা সাদপন্থী শতাধিক ব্যক্তি মাদরাসাটির নিয়ন্ত্রণ নিতে যায়। তখন সেখানে ধাওয়া পাল্টা ধাওয়া এবং বাইরে থেকে মাদরাসার ভেতরে ইট-পাটকেল নিক্ষেপ শুরু করে। অপর পক্ষ মাদরাসা প্রাঙ্গণ থেকে তা প্রতিরোধ করে ইটপাটকেল ছুটতে থাকে। এতে বেশ কয়েকজন আহত হয়।

নিউজটি শেয়ার করুন

এই ওয়েবসাইটের কোনো লেখা, ছবি, ভিডিও অনুমতি ছাড়া ব্যবহার সম্পূর্ণ বেআইনি এবং শাস্তিযোগ্য অপরাধ
Design & Developed BY ThemesBazar.Com