১লা অক্টোবর, ২০২০ ইং , ১৬ই আশ্বিন, ১৪২৭ বঙ্গাব্দ , ১৩ই সফর, ১৪৪২ হিজরী

দিল্লীতে শান্তি ফেরাতে হিন্দ জমিয়তের শান্তিমার্চ

দিল্লীতে শান্তি ফেরাতে হিন্দ জমিয়তের শান্তিমার্চ

শিগগিরই প্রাণ ফিরবে দাঙ্গাকবলিত দিল্লিতে : হাকিমুদ্দীন কাসেমী

জমিয়তে উলামায়ে হিন্দের জেনারেল সেক্রেটারী মাওলানা হাকিমুদ্দীন কাসেমী সাংবাদিকদের বর্তমান অবস্থার কথা জানিয়েছেন। পাথেয় টোয়েন্টিফোর ডটকমের পাঠকদের জন্য মাওলানা কাসেমীর সাক্ষাৎকারটি উপস্থাপন করা হলো।

সাংবাদিক : দাঙ্গা কবলিত এলাকায় শান্তি ফেরাতে আপনারা কী করছেন

মাওলানা হাকিমুদ্দীন কাসেমী : আমরা মনে করি প্রথমে ভাঙ্গা হৃদয়ে প্রশান্তি ফেরানো। এটাই আমাদের জন্য সবচেয়ে বড় প্রয়োজন। তাদের জন্য শান্তি ও নিরাপত্তা জরুরি। হিন্দু মুসলমান সবাই মিলে আমনো আমান শান্তি ও নিরাপত্তা সৃষ্টির জন্য জুলুসের মতো করে আমরা মার্চ করছি। যাতে সবাই তাদের ব্যবসা প্রতিষ্ঠান আবার শুরু করে। নিরাপত্তাবোধ করে তারা কাজে যোগ দেয়। আমরা এই পয়গাম ছড়িয়ে দিতে চাই যে, আমরা একে অন্যের সঙ্গে ভালোবাসা প্রতিষ্ঠা করতে চাই। আমাদের মধ্যে দূরত্ব তৈরী হয়েছে। এটা দূর করাটা্ও জরুরি।

আমরা মনে করি, খুব শিগগিরই আবার প্রাণ ফিরে আসবে দাঙ্গাকবলিত এই এলাকায়। মানুষের মধ্যে শান্তি ফিরে আসবে। আমাদের শান্তি মিছিলেও সবাই শরীক হবে-এই আশাও করছি।

সাংবাদিক : আপনারা শান্তি প্রতিষ্ঠার জন্য মার্চ করছেন। কিন্তু দাঙ্গায় যারা নিহত হয়েছেন এবং জখম হয়েছেন তাদের কী হবে? তাদের ঘরেও কি এ পয়গাম সান্ত্বনা দিতে পারবে?

মাওলানা হাকিমুদ্দীন কাসেমী : মাশাআল্লাহ, বিলকুল। আমাদের মধ্যে যে দূরত্ব তৈরী হয়েছে তা দূর করার জন্য আমরা আহ্বান জানাই। এতে হৃদয়ের প্রশান্তি তৈরী হবে ইনশাআল্লাহ। এই দূরত্ব কমানোর এটাই সবচেয়ে বড় পন্থা। আমরা প্রথম যেভাবে ভালোভাবে চলেছি এখনও এভাবেই চলতে চাই।

সাংবাদিক : এই পদ্ধতিতেই কি শান্তি আসবে?

মাওলানা হাকিমুদ্দীন কাসেমী : দেখুন, হার তাবকার মানুষেরা আমাদের সঙ্গে যুক্ত হয়েছেন। প্রত্যেক শ্রেণি পেশার মানুষেরা এসেছেন। আমরা আগের অবস্থানে ফিরে যেতে চাই। আগের শান্তিময় অবস্থা ফিরিয়ে আনতে চাই।

সাংবাদিক : যে পদ্ধতিতে এই এলাকায় ঘৃণা ছড়িয়ে দেয়া হয়েছে, ঘৃণার আগুন মানুষের হৃদয়ে জ্বালিয়ে দেয়া হয়েছে, এই আগুন নেভানোর জন্য, তাদের জখমে মলম লাগানোর জন্য জমিয়তে উলামা হিন্দের এই শান্তিমার্চ অবশ্যই প্রশংসনীয় উদ্যোগ। এটা এমন ভালো উদ্যোগ যে, দোযখে মলম লাগানোর একটি কাজ করছে জমিয়ত। শান্তি অনুষ্ঠান কি আপনারা চালিয়ে যাবেন?

মাওলানা হাকিমুদ্দীন কাসেমী : ইনশাআল্লাহ।

– সহযোগী সম্পাদক

নিউজটি শেয়ার করুন

এই ওয়েবসাইটের কোনো লেখা, ছবি, ভিডিও অনুমতি ছাড়া ব্যবহার সম্পূর্ণ বেআইনি এবং শাস্তিযোগ্য অপরাধ
Design & Developed BY ThemesBazar.Com