১৭ই জুন, ২০২১ খ্রিস্টাব্দ , ৩রা আষাঢ়, ১৪২৮ বঙ্গাব্দ , ৬ই জিলকদ, ১৪৪২ হিজরি

নববর্ষের দেয়ালচিত্রের মুখে পোড়া মবিল

নিজস্ব প্রতিবেদক ● বাংলা নববর্ষ উদযাপন উপলক্ষে চট্টগ্রাম বিশ্ববিদ্যালয়ের চারুকলা ইনস্টিটিউটের শিক্ষার্থীদের আঁকা দেয়ালচিত্র পোড়া মবিল দিয়ে নষ্ট করে দিয়েছে দুর্বৃত্তরা। গত মঙ্গলবার গভীর রাতে মোটরসাইকেলে আসা কয়েক যুবক পোড়া মবিল দিয়ে দেয়ালচিত্রের কয়েকটি জায়গা নষ্ট করে দিয়ে দ্রুত পালিয়ে যায় বলে জানান চকবাজার থানার ওসি নূরুল হুদা। এ ঘটনায় কাউকে আটক করা যায়নি। নিরাপত্তার জন্য এলাকায় অতিরিক্ত পুলিশ নিয়োজিত করা হয়েছে। ঘটনার প্রত্যক্ষদর্শী এসএম আল মাহমুদ জানান, চারুকলা ইনস্টিটিউটের সামনের দেয়ালে আঁকা সাঁওতালি পটচিত্র দেখে এগুলো কেন আঁকলি বলে পোড়া মবিল ছিটিয়ে চলে যায় দুর্বৃত্তরা। ৩টি মোটরসাইকেলে করে আসা ৬ থেকে ৭ জন দুর্বৃত্ত এ সময় চট্টগ্রামের অকথ্য ভাষায় গালিগালাজও করে বলে জানান তিনি। চবি চারুকলা ইনস্টিটিউটের মাস্টার্সের এই শিক্ষার্থী বলেন, বৈশাখী উপলক্ষে আমরা বেশ কিছুদিন ধরে মধ্যরাত অবধি চারুকলা ক্যাম্পাসে শিক্ষকদের নির্দেশনায় নানান শিল্পকর্ম চিত্রায়িত করছি। প্রতিদিনের মত মঙ্গলবার রাত সাড়ে ১১টার দিকে আমরা চারুকলা ইনস্টিটিউটের সড়কের বিপরীতের পাহাড়ের সঙ্গে লাগোয়া দেয়ালে ঐতিহ্যবাহী সাঁওতালি পটচিত্র এঁকে যে যার মত বাসায় চলে গেলেও কয়েকজন ক্যাম্পাসে ছিলাম। রাত সাড়ে ১২টার দিকে ক্যাম্পাস এলাকায় বিদুৎ চলে যায়। এ সময় গোলপাহাড়ের দিক থেকে ৩টি মোটরসাইকেলে করে ৬/৭ জন যুবক এসে চট্টগ্রামের অকথ্য ভাষায় গালিগালাজ করে আমাদের আঁকা ঐতিহ্যবাহী সেই সাঁওতালি পটচিত্র এ পোড়া মবিল ছিটিয়ে নষ্ট করে চলে যায়। এ সময় তারা আরও চিৎকার করে বলে এগুলো কেন আঁকলি চিৎকার শুনে ক্যাম্পাসের ভেতর থেকে বের হতে না হতেই তারা জোরে মোটরসাইকেল চালিয়ে চট্টেশ্বরী রোডের দিকে চলে যায়।

এর আগে গত মঙ্গলবার রাত সাড়ে ১২টার দিকে নগরীর বাদশা মিঞা সড়কে অবস্থিত চট্টগ্রাম বিশ্ববিদ্যালয়ের চারুকলা ইনস্টিটিউটের প্রবেশমুখের দেয়ালে নববর্ষ উপলক্ষে আঁকা চিরায়ত বাংলার বিভিন্ন পটচিত্র পোড়া মবিল ছিটিয়ে নষ্ট করে দেয় দুর্বৃত্তরা। বর্ষবিদায় ও বরণ উপলক্ষে প্রতিবছরের মতো এবারও নগরীতে চবি চারুকলার উদ্যোগে বর্ণাঢ্য মঙ্গল শোভাযাত্রা বের করার উদ্যোগ নেয়া হয়। তারই অংশ হিসেবে মাসখানেক আগে থেকে শিক্ষার্থীরা মুখোশ, পুতুল ও মাছসহ প্রায় ৫০০টি শিল্পকর্ম তৈরির উদ্যোগ নেয়। এ লক্ষ্যে কাজ চলছে জানিয়ে চবি চারুকলা ইনস্টিটিউটের মাস্টার্সের শিক্ষার্থী শফিকুল ইসলাম সনেট বলেন, আমরা উৎসাহ-উদ্দীপনার মধ্য দিয়ে শিল্পকর্ম চিত্রায়িত করেছি। কিন্তু অঙ্কিত দেয়ালে এ ধরনের নোংরা কাজ আমাদের কষ্ট দিয়েছে। কেননা, তিনদিন ধরে আমরা ওই দেয়ালে কাজ করেছি। যদিও পুরোপুরি শেষ হয়নি। যারা এ ঘৃণ্য কাজ করেছে তারা শিল্প ও সংস্কৃতি বিরোধী চক্র। বর্ষবিদায়ের একদিন আগে এ ধরনের কাজ আমাদের শঙ্কিত করেছে এবং নিরাপত্তারও অভাববোধ করছি। তবে ভিন্ন কথা জানালেন চবি চারুকলা ইনস্টিটিউটের সহযোগী অধ্যাপক জাহিদ আলী চৌধুরী। তিনি বলেন, সংস্কৃতিবিরোধী চক্রের এ ধরনের ঘৃণ্য কাজ বিরক্ত মনে হচ্ছে। আমরা শঙ্কিত নই। তবে শিক্ষার্থীরা মন খারাপ করেছে। গালিগালাজ করে আঁকা দেয়ালে মবিল ছিটিয়ে দেয়া ঘৃণিত কাজ। তাদের চিহ্নিত করে আইনের আওতায় আনতে আমরা প্রশাসনকে জানিয়েছি।

নগর পুলিশের উপকমিশনার (দক্ষিণ) এস এম মোস্তাইন হোসেন সাংবাদিকদের জানান, কারা এ ঘটনা ঘটিয়েছে তাদের শনাক্তে কাজ চলছে। সিসিটিভি ফুটেজ দেখে তাদের শিগগিরই শনাক্ত করা হবে। তবে অভ্যন্তরিণ কোন কোন্দল আছে কি না, সে বিষয়টি খতিয়ে দেখা হচ্ছে বলেও জানান তিনি। শুক্রবার সারা দেশে উৎসাহ-উদ্দীপনার মধ্য দিয়ে পহেলা বৈশাখ উদযাপিত হবে।

শেয়ার করুন


সর্বস্বত্ব সংরক্ষিত © ১৯৮৬ - ২০২১ মাসিক পাথেয় (রেজিঃ ডি.এ. ৬৭৫) | patheo24.com
Design & Developed BY ThemesBazar.Com