৫ই ডিসেম্বর, ২০২০ ইং , ২০শে অগ্রহায়ণ, ১৪২৭ বঙ্গাব্দ , ১৯শে রবিউস-সানি, ১৪৪২ হিজরী

পারফরমেন্সে উজ্জ্বল বোলাররা

বিসিবি প্রেসিডেন্ট’স কাপ

পারফরমেন্সে উজ্জ্বল বোলাররা

পাথেয় টোয়েন্টিফোর ডটকম : চলমান বিসিবি প্রেসিডেন্টস কাপ ক্রিকেটের প্রথম লেগে বোলারদের পারফরমেন্স ছিল চোখে পড়ার মতো। করোনার কারণে গত সাত মাস ঘরে বন্দি থাকায় ভাবা হয়েছিল বোলারদের ফিটনেস-দক্ষতায় মরিচা পড়বে। কিন্তু না, গত ১১ অক্টোবর থেকে শুরু হওয়া টুর্নামেন্টের প্রথমে লেগে বল হাতে উজ্জ্বল ছিলেন মুস্তাফিজ-রুবেল-এবাদতরা। করোনার কারণে লকডাউন থাকলেও ব্যাট হাতে কসরত করার সুযোগ ছিল ব্যাটসম্যানদের। কিন্তু পূর্ণ রান আপে বল করার সুযোগ ছিল না বোলারদের।

প্রথম পর্বে ধীর গতির পিচ বোলারদের সহায়তা করলেও, তাদের পারফরমেন্সে খুশি প্রধান নির্বাচক মিনহাজুল আবেদিন নান্নু। নান্নু বলেন, চলমান বিসিবি প্রেসিডন্টেস কাপে বোলারদের পারফরমেন্স উৎসাহজনক ছিল। ধীরগতির উইকেটে সহায়তা পেলেও, নিজেদের পরিকল্পনা ভালোভাবে কাজে লাগিয়েছে বোলাররা। ব্যাটসম্যানদের উপর আধিপত্য বিস্তার করাটা বোলারদের প্রধান লক্ষ্য ছিল এবং তাদের মধ্যে কোন জড়তা ছিল না।

তুলনামুলকভাবে ব্যাটসম্যানরা কিছুটা পিছিয়ে এবং তাদের পারফরমেন্স ব্যপক সমালোচনার জন্ম দিয়েছে। পিচ ব্যাটসম্যানদের পক্ষে ছিল না। বেশিরভাগ ব্যাটসম্যান বড় শট খেলে আউট হয়ে যায়। পিচের অবস্থা এমন ছিল যে, বড় শট খেলে কেউই এখানে টিকতে পারেনি, কিন্তু টুর্নামেন্টের প্রথম লেগে ব্যাটসম্যানরা তাই করেছিল। দ্বিতীয় লেগে পিচ সহজ হয়েছে এবং ব্যাটসম্যানরা রানের মধ্যে ফিরছে। টানা দুই ম্যাচে মুশফিকুর রহিম সেঞ্চুরি ও হাফ-সেঞ্চুরি করেছেন। তরুণ আফিফ হোসেনও ৯৮ রানের নান্দনিক ইনিংস খেলেছেন।

নান্নু জানান, ব্যাটসম্যানদের ফর্মে ফেরাটা ভালো লক্ষণ। তিনি বলেন, ব্যাটিংয়ের জন্য পিচ আরও সহজ হচ্ছে। ব্যাটসম্যানরা রানের মধ্যে ফিরেছে। কিছু ব্যাটসম্যান কিছু ভালো ইনিংস খেলেছে। এটি খুবই ভালো লক্ষণ এবং আমি মনে করি, সময় গড়ানোর সাথে-সাথে ব্যাটসম্যানরা আরও ভালো পারফরমেন্স প্রদর্শন করবে।

নিউজটি শেয়ার করুন

এই ওয়েবসাইটের কোনো লেখা, ছবি, ভিডিও অনুমতি ছাড়া ব্যবহার সম্পূর্ণ বেআইনি এবং শাস্তিযোগ্য অপরাধ
Design & Developed BY ThemesBazar.Com