২২শে সেপ্টেম্বর, ২০২০ ইং , ৭ই আশ্বিন, ১৪২৭ বঙ্গাব্দ , ৪ঠা সফর, ১৪৪২ হিজরী

বাজেটে করোনায় বিপন্নদের ভবিষ্যৎ

বাজেটে করোনায় বিপন্নদের ভবিষ্যৎ

মাসউদুল কাদির :: বাংলাদেশ এখন আর কোনো পিছিয়েপড়া কোনো মানচিত্র নয়। অগ্রসর চিন্তার মানসিকতায় দেশ এগিয়ে চলেছে। নতুন অর্থবছরের (২০২০-২১) প্রস্তাবিত বাজেট পেশ করার পর চলছে চুলছেঁড়া বিশ্লেষণ। অর্থমন্ত্রী আ হ ম মুস্তফা কামাল নিজেও বাজেট-উত্তর ভার্চুয়াল সংবাদ সম্মেলনে বলেছেন, , ‘আমি জানি, এ বাজেটটি ভিন্ন, আগেই বলেছি।

যেহেতু স্বাভাবিক পথ আমাদের জন্য ছিল রুদ্ধ, ভিন্ন পথেই আমাদের কাজটি করতে হয়েছে। সেজন্য হয়তো আপনারা দেখবেন, অনেকের কাছে অনেক অসঙ্গতি মনে হবে। কিন্তু উপায় ছিল না আমাদের। অসঙ্গতি হলেও আমাদের কিন্তু উপায় ছিল না। বাজেট না থাকলে কোনো অর্থ রাষ্ট্রীয় কোষাগার থেকে নেয়া যায় না। এখন আমাদের দেশের মানুষ মারা যাচ্ছে, অনেকে না খেয়ে কষ্ট পাবে, যারা চাকরি হারিয়েছেন তারা কষ্ট পাবে, যারা রিকশা শ্রমিক তারা কষ্ট পাবেন– এসব মানুষের কষ্ট দূর করার জন্য প্রধানমন্ত্রী কোনো সময় নষ্ট না করে দ্রুত ছুটে আসলেন। আমাদের নির্দেশনা দিলেন যে, প্রধানমন্ত্রী যেভাবে নির্দেশনা দেন, সেই নির্দেশনা মেনে আমরা যেন সবাইকে সহযোগিতা করি। সেই কাজটি আমরা করে যাচ্ছি।

একটি সাহসিয়া সমাচার হিসেবেই বোদ্ধামহল দেখছেন এ বাজেটকে। কেউ কেউ বলছেন, ঋণনির্ভর বাজেট গ্রহণযোগ্য নয়। দেশকে পেছনের দিকে ঠেলে দেবে। তবে বাংলাাদেশ ব্যাংক গভর্নর ঋণ নির্ভর বাজেট দূষণীয় নয় বলে ব্যাংখ্যা করেছেন। অর্থ যোগানের সাহস আর বাস্তবতা থাকলে প্রকৃতঅর্থেই ঋণ দোষের কিছু নয়। মানুষ ঋণ নিয়ে মাথা উঁচু করে দাঁড়ায়। দেশকেও অগ্রসর করতে চাইলে ঋণের মুখোমুখি হতে হবে। তবে বাজেট সমালোচনায় কেবল বিরোধিতা করতে হবে এমন নীতি দেখানো মেধার কৃপণতা। ইসলামীপন্থীরা বলছেন, প্রস্তাবিত বাজেটে দুর্নীতিকে আইনি অনুমোদন দেয়া হয়েছে। কালো টাকা সাদা করার বিষয়ে সিপিডির বক্তব্যও এসেছে। তারা বলছেন, এতে সৎ করদাতাগণ আগ্রহ হারাবেন।
আশার প্রদীপ জ¦ালিয়ে নিজের সাহসি বক্তব্য উপস্থাপন করেছেন অর্থমন্ত্রী। তিনি বলেছেন, আশা করি, এ বাজেট আমরা যেভাবে সাজিয়েছি, সেভাবে বাস্তবায়ন করতে সক্ষম হবো।

আমাদের প্রত্যাশা হলো করোনা বেশিদিন প্রলম্বিত হবে না। যেহেতু আইএমএফ বলছে, ২০২০-২১ অর্থবছরে ৯ দশমিক ৫ শতাংশ প্রবৃদ্ধি অর্জন করব। ইতোমধ্যে আমাদের ভৌত অবকাঠামো তৈরি করা আছে। সুতরাং আমরা বিশ্বাস করি, ৫ লাখ ৬৮ হাজার কোটি টাকার বাজেট আমরা বাস্তবায়ন করতে পারব। এজন্য বাজেটটি আমরা দিয়েছি।

আমরা আশা করবো, প্রস্তাবিত বাজেটে নতুন বাংলাদেশ দেখবে বিশ্ব। চিরতরে মোচন দারিদ্র্যের।

নিউজটি শেয়ার করুন

এই ওয়েবসাইটের কোনো লেখা, ছবি, ভিডিও অনুমতি ছাড়া ব্যবহার সম্পূর্ণ বেআইনি এবং শাস্তিযোগ্য অপরাধ
Design & Developed BY ThemesBazar.Com