২৪শে ফেব্রুয়ারি, ২০২০ ইং , ১২ই ফাল্গুন, ১৪২৬ বঙ্গাব্দ , ৩০শে জমাদিউস-সানি, ১৪৪১ হিজরী

বিশ্ব ইজতেমার আয়োজনে বিদেশী মুসল্লিদের সন্তোষ প্রকাশ

বিশ্ব ইজতেমার আয়োজনে বিদেশী মুসল্লিদের সন্তোষ প্রকাশ

পাথেয় টোয়েন্টিফোর ডটকম :: আলমী শূরা আয়োজিত বিশ্ব ইজতেমার প্রথম পর্বের আয়োজনে মুগ্ধতা প্রকাশ করেছেন বিদেশী মুসল্লীরা। বিদেশি মুসল্লিদের সাথে মতবিনিময় করেন ধর্ম প্রতিমন্ত্রী অ্যাডভোকেট শেখ মোহাম্মদ আবদুল্লাহ বলেন, প্রথম পর্বের মত দ্বিতীয় পর্বও সুষ্ঠুভাবে শেষ করতে ইজতেমার সকল আয়োজন সম্পন্ন করেছে ধর্ম মন্ত্রণালয়।বিশ্ব ইজতেমার প্রথম পর্বের আয়োজন সুন্দরভাবে সম্পন্ন হওয়ায় বিদেশি মুসুল্লিরা সন্তোষ প্রকাশ করেছেন।

মঙ্গলবার রাজধানীর আশকোনা হজ ক্যাম্পে স্বল্প সময়ের জন্য অবস্থানরত বিশ্ব ইজতেমার প্রথম পর্বে আগত বিদেশি মুসল্লিদের সাথে মতবিনিময় করেন ধর্ম প্রতিমন্ত্রী অ্যাডভোকেট শেখ মোহাম্মদ আবদুল্লাহ। এ সময় তিনি বিদেশি মেহমানদের সাথে প্রধানমন্ত্রীর পক্ষে সালাম ও কুশল বিনিময় করেন এবং তাদের খোঁজ-খবর নেন।

প্রথম পর্ব শেষে শুক্রবার (১৭ জানুয়ারি) থেকে শুরু হচ্ছে বিশ্ব ইজতেমার দ্বিতীয় পর্ব।

মতবিনিময়কালে ধর্ম প্রতিমন্ত্রী অ্যাডভোকেট শেখ মোহাম্মদ আব্দুল্লাহ বলেন, বাংলাদেশে তাবলীগ জামাতের বিশ্ব ইজতেমা আয়োজন আমাদের জন্য অত্যন্ত গৌরবের বিষয়। তাবলীগ জামাত দ্বীনের মেহনতে নিবেদিত ধর্মপ্রাণ মুসল্লিদের নিঃস্বার্থ স্বেচ্ছাশ্রম ও অনুদানে পরিচালিত হয়।

তিনি বলেন, সারা পৃথিবীতে ইসলামের প্রচার এবং মানুষকে দ্বীনের পথে দাওয়াতের ক্ষেত্রে তাবলীগ জামাতের খেদমত একটি গুরুত্বপূর্ণ বিষয়। তাবলীগ জামাতের বিশ্বব্যাপী কার্যক্রমকে কেন্দ্র করে বাংলাদেশে বিশ্ব ইজতেমার এত বিশাল বড় আয়োজন করা নিঃসন্দেহে একটি গর্বের বিষয়।

প্রতিমন্ত্রী বলেন, জাতির পিতা বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমান তার দূরদর্শিতা দিয়ে ইসলামের খেদমতে অরাজনৈতিক সংগঠন তাবলীগ জামাতের গুরুত্ব ও তাৎপর্য যথাযথভাবে বুঝতে পেরেছিলেন। একজন সত্যিকারের ঈমানদার হিসেবে বঙ্গবন্ধু তাবলীগ জামাতের দাওয়াতী কাজের সুবিধার্থে টঙ্গীতে বিশ্ব ইজতেমা আয়োজনের জন্য বিশাল জায়গা বরাদ্দ করেছিলেন। যার ফলে আজকে বিশ্ব ইজতেমা আয়োজন করা সম্ভব হচ্ছে।

ধর্ম প্রতিমন্ত্রী আরও বলেন, প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা যিনি একজন ধার্মিক মুসলিম মহিয়সী নারী। তিনি তাবলীগ জামাতের বিষয়ে অত্যন্ত আন্তরিক ও বিশেষ অনুরাগী। তিনি বাংলাদেশে সূচারুরূপে ও যথাযোগ্য মর্যাদায় তাবলীগ জামাতের বিশ্ব ইজতেমা আয়োজনের বিষয়ে অত্যন্ত আন্তরিক ও সজাগ। সুন্দর, সুষ্ঠু ও নিরাপদে বিশ্ব ইজতেমা ব্যবস্থাপনা করার জন্য তিনি সকলকে কঠোর নির্দেশনা প্রদান করেছেন।

তিনি বলেন, প্রধানমন্ত্রীর নির্দেশে জনপ্রতিনিধি ও প্রশাসনের সকল সংস্থা অত্যন্ত আন্তরিকতা ও দায়িত্বশীলতার সাথে এ বছরের প্রথম পর্বের ইজতেমা সফলভাবে সম্পন্ন করার প্রস্তুতি গ্রহণ করেছিলেন। বিদেশি মুসল্লিসহ সকলের নিরাপত্তা বিধানে আইন-শৃঙ্খলা বাহিনী ছিল সর্বোচ্চ সতর্কতায়।

১৭ জানুয়ারি শুক্রবার থেকে ২য় পর্বেও যাতে মুসল্লিরা নিরাপদ ও নির্বিঘ্নে ইজতেমায় আসতে পারেন সে জন্য সরকার প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা গ্রহণ করেছে এবং ইনশাআল্লাহ, অত্যন্ত সুন্দরভাবেই এ বছরের ইজতেমার ২য় পর্বও সফলভাবে সম্পন্ন হবে।

ধর্ম প্রতিমন্ত্রী বাংলাদেশ, ভারত, পাকিস্তান, তুরস্ক, ইতালি, সৌদি আরবসহ বিভিন্ন দেশের তাবলীগ জামাতের মুরুব্বীদের সাথে হৃদ্যতাপূর্ণ পরিবেশে মতবিনিময় করেন। এ সময় বিদেশি মেহমানগণ সুন্দর ও সফলভাবে বিশ্ব ইজতেমার ১ম পর্ব সম্পন্ন করায় বাংলাদেশ সরকারের প্রতি কৃতজ্ঞতা জ্ঞাপন করেন এবং সার্বিক ব্যবস্থাপনায় সন্তোষ প্রকাশ করেন।

নিউজটি শেয়ার করুন

এই ওয়েবসাইটের কোনো লেখা, ছবি, ভিডিও অনুমতি ছাড়া ব্যবহার সম্পূর্ণ বেআইনি এবং শাস্তিযোগ্য অপরাধ
Design & Developed BY ThemesBazar.Com