২০শে অক্টোবর, ২০২০ ইং , ৪ঠা কার্তিক, ১৪২৭ বঙ্গাব্দ , ২রা রবিউল-আউয়াল, ১৪৪২ হিজরী

বিয়ের অনুষ্ঠান কনেকে তুলে নিতে গিয়ে গণধোলাই খেল প্রেমিক!

পাথেয় টোয়েন্টিফোর ডটকম : কথায় আছে প্রেমের মড়া জলে ডোবে না। তার-ই যেন প্রমাণ দিতে গিয়ে বিয়ের অনুষ্ঠান থেকে নববধূর সাজে থাকা কনেকে তুলে আনতে গিয়েছিল তরুণ প্রেমিক। কিন্তু শেষ রক্ষা আর হল না।

বগুড়ার ধুনট উপজেলায় বিয়ের অনুষ্ঠান থেকে কনেকে অপহরণে ব্যর্থ হয়ে তার ভাইকে ছুরিকাঘাতে করেছে অপহরণকারীরা। এ সময় বিয়ে বাড়ির লোকজন ধাওয়া করে দুই অপহরণকারীকে আটকের পর গণধোলাই দিয়ে পুলিশে সোপর্দ করেছে।

শুক্রবার (০২ অক্টোবর) বিকেল ৪টার দিকে উপজেলার চিকাশি ইউনিয়নের জোড়শিমুল গ্রামে এ ঘটনা ঘটে।

আটকরা হলেন- বগুড়ার শাহজাহানপুর উপজেলার রহিমাবাদ এলাকার ইমদাদুল হকের ছেলে ইমরান হোসেন তালুকদার (৩২) ও একই গ্রামের আব্দুল সেখরের ছেলে সাদমান আলীম (২৫)।

অপহরণকারীদের ছুরিকাঘাতে আহত হয়েছেন ধুনট উপজেলার জোড়শিমুল গ্রামের শাহজাহান আলীর ছেলে মেহেদী হাসান সবুজ (২৯)। আহত সবুজ কনের মামাতো ভাই।

স্থানীয় সূত্রে জানা গেছে, শুক্রবার দুপুরে উপজেলার জোড়শিমুল গ্রামের খবির উদ্দিনের মেয়ে সুমিতা খাতুনের সঙ্গে শাহজাহানপুর উপজেলার লতিফপুর এলাকার আব্দুল আছের ছেলে সামিউল মান্নানের (২৫) বিয়ের আয়োজন করা হয়। বিয়ে বাড়িতে উৎসব চলছিল। এ সময় ইমরান ও সাদমান বিয়ে বাড়িতে গিয়ে কনে সুমিতাকে অপহরণের চেষ্টা করেন। তখন তার মামাতো ভাই মেহেদী হাসান সবুজ বাধা দিলে অপহরণকারীরা তাকে ছুরিকাঘাত করে পালানোর চেষ্টা করেন।

পরে বিয়ে বাড়ির লোকজন ধাওয়া করে অপহরণকারী ইমরান ও সাদমান আলীকে আটকের পর গণধোলাই দিয়ে পুলিশে সোপর্দ করে। আহত মেহেদী হাসানকে প্রথমে ধুনট উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে ও পরে বগুড়ার শহীদ জিয়াউর রহমান মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে ভর্তি করা হয়েছে।

আটক ইমরান হোসেন তালুকদার বলেন, কনের সঙ্গে আমার প্রায় এক বছর ধরে প্রেমের সম্পর্ক ছিল। তার বিয়ের খবর পেয়ে তাকে দেখার উদ্দেশ্যে বিয়ে বাড়িতে এসেছিলাম। কিন্তু বিয়ে বাড়ির লোকজন ক্ষুব্ধ হয়ে আমাদের মারপিট করতে থাকে। তাদের হাত থেকে পালানোর সময় ধস্তাধস্তির একপর্যায়ে নিজেদের ছুরির আঘাতে মেয়ের ভাই আহত হয়েছেন।

ধুনট থানা পুলিশের ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) কৃপা সিন্ধু বালা বলেন, খবর পেয়ে ঘটনাস্থল থেকে দুইজনকে আটক করা হয়েছে। আহত ব্যক্তির চিকিৎসার খোঁজখবর নেয়া হয়েছে। বিয়ের পর কনে স্বামীর বাড়িতে চলে গেছেন। এ ঘটনায় থানায় মামলার প্রস্তুতি চলছে।

/এএ

নিউজটি শেয়ার করুন

এই ওয়েবসাইটের কোনো লেখা, ছবি, ভিডিও অনুমতি ছাড়া ব্যবহার সম্পূর্ণ বেআইনি এবং শাস্তিযোগ্য অপরাধ
Design & Developed BY ThemesBazar.Com