মঙ্গলবার, ২২ অক্টোবর ২০১৯, ০৮:২৪ অপরাহ্ন

বুজুরগু কি উল্টি ভি সিদহি হুতি হায়

বুজুরগু কি উল্টি ভি সিদহি হুতি হায়

বড়দের কৌশল বোঝা বড় দায়

মাওলানা আমিনুল ইসলাম : মনে রাখতে হবে, তারা আওলাদে রাসুল সাল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়াসাল্লাম। তাদের ধমনীতে মর্দে মুজাহিদের রক্ত প্রবাহিত হয়।

মাদানী পরিবার কোন যেন তেন পরিবার নয়। এই মাহমুদ মাদানী যেমন তেমন ব্যক্তি নন।

ফেদায়ে মিল্লাতের সাহেবজাদা হলেন মাহমুদ মাদানী। আর এই ভারতবর্ষ স্বাধীনতা আন্দোলনের মহা নায়ক, কুতুবুল আলম সাইয়্যেদ হুসাইন আহমদ মাদানীর দৌহিত্র তিনি।

যে মাদানী পরিবার ইতিহাসের এক মাজলুম গোষ্ঠী। যাদের জীবনটাই কেটেছে সংগ্রাম করে। দেশের স্বাধীনতা আন্দোলনের জন্য যারা জীবন বাজি রেখেছিলেন। দুনিয়ার ভোগ বিলাস ত্যাগ করে মাল্টার কারাগারে অন্তরীণ ছিলেন বছরের পর বছর।

শুধু মাল্টা নয়, ভারতের বহু কারাগারে জীবন কেটেছিল মাওলানা মাদানীর। কীসের জন্য? কীসের আশায়? কি কারণে তাঁকে বছরের পর বছর জালিমের বন্দীশালায় কাটাতে হয়েছে?

তাঁর নিজের জন্য নয়, এদেশ জাতিকে মুক্তি দেওয়ার জন্য, জালিমের জুলুম থেকে নিরীহ মানুষকে মুক্ত করার জন্য এদেশ থেকে ইংরেজ হায়েনাদের বিতাড়ন করার জন্যই ছিল তাঁর এই সংগ্রাম।

ঐ মাদানী পরিবারের আত্মোত্যাগ, সীমাহীন কোরবানীর বদৌলতে আজ এদেশে স্বাধীনতার সূর্য আমরা দেখতে পাচ্ছি। আজ আমরা স্বাধীন। ইংরেজ শক্তি এদেশ থেকে চিরতরে বিদায় নিয়েছে।

মাওলানা হুসাইন আহমাদ মাদানীর উত্তরসূরীরা ঠিক তাঁর নঁকশে কদমের উপর চলে আসছে। সাইয়্যেদ আসআদ মাদানী তিনি পিতার রেখে যাওয়া আমানত রক্ষা করেছিলেন যথাযথ। বর্তমানে আছেন, মাওলানা মাদানীর দৌহিত্র সাইয়্যিদ মাহমুদ মাদানী। সাইয়্যেদ মাহমুদ মাদানী চিন্তা-চেতনায় হুবহু বাবা-দাদার মতোই। ঠিক তাদের কদমে কদম রেখে চলেছেন। তিনিও হুঙ্কার দিয়ে ওঠেন জালিম শাহীর বিরুদ্ধে। মাজলুম মানুষের পাশে গিয়ে দাঁড়ান।
রাজনৈতিক চিন্তা-চেতনায় পুরো মাহমুদ মাদানী স্বীয় পিতা ও দাদার মতোই। পুরো ভারতের জমিয়ত উলামায়ে হিন্দের সেক্রেটারী তিনি। মন-মগজে একশত ভাগ দেওবন্দী তাতে কোন সন্দেহ নেই। তাঁর রাজনৈতিক কলা-কৌশল প্রশংসনীয়। তিনি কিন্তু অবু্ঝ নন। তাঁদের রাজনৈতিক দৃষ্টিভঙ্গি এবং কৌশল আমাদের মতো ক্ষুদ্র জ্ঞানে বোঝা সম্ভব নয়।

তিনি যে সব বক্তৃতা দিচ্ছেন, এগুলো বোঝার ব্যাপারে ভারতের অবস্থা, পরিবেশ, স্থান, কাল বোঝা দরকার আছে। সুতরাং না বুঝে মাহমুদ মাদানীর সমালোচনায় যাওয়া ঠিক নয়।

লেখক : শিক্ষক ও আন্তর্জাতিক বিশ্লেষক

নিউজটি শেয়ার করুন

এই ওয়েবসাইটের কোনো লেখা, ছবি, ভিডিও অনুমতি ছাড়া ব্যবহার সম্পূর্ণ বেআইনি এবং শাস্তিযোগ্য অপরাধ
Design & Developed BY ThemesBazar.Com