১৭ই জুন, ২০২১ খ্রিস্টাব্দ , ৩রা আষাঢ়, ১৪২৮ বঙ্গাব্দ , ৬ই জিলকদ, ১৪৪২ হিজরি

‘ভার্চুয়াল যোগাযোগ মুসলিমদের মনোবলকে সুদৃঢ় করে’

পাথেয় টোয়েন্টিফোর ডটকম : দ্বিতীয় বারের মতো অনলাইনে যৌথভাবে একাধিক আধ্যাত্মিক কর্মশালা ও শিক্ষামূলক আলোচনা কার্যক্রম পরিচালনা করছে ব্রিটেনের মানসিক স্বাস্থ্যসেবা প্রতিষ্ঠান ও ইসলাম শিক্ষা প্লাটফর্ম। এর কার্যক্রম করোনাকালে কঠোর বিধি-নিষেধের মধ্যে পবিত্র রমজান মাস উদযাপনে ব্রিটিনের মুসলিমদের মানসিক চাপ কমাতে সাহায্য করে।

মানসিক স্বাস্থ্যসেবা প্রতিষ্ঠান সাপোর্টিং হিউম্যানিটি অনলাইনে শিক্ষা কার্যক্রম পরিচালনা করতে ইসলামী শিক্ষা প্লাটফর্ম ‘টিচ মি ইসলাম’-এর সঙ্গে যৌথভাবে কাজ শুরু করে। প্রবিত্র রমজান মাসে ইসলামী আলোচনা, শিশুদের গল্প, স্বাস্থ্য ও ফিটনেস বিষয়ক সেশন বিনামূল্যে সপ্তাহে তিনদিন প্রদান করা হয়।

পবিত্র রমজানে মুসলিমরা সারাদিন রোজা রেখে বন্ধু-বান্ধব, পরিবার ও আশপাশের মানুষের সঙ্গে মিলে ইফতারের আয়োজন করে থাকে। এ সময় তাঁরা সবার মধ্যে ইফতারি সামগ্রিও বিতরণ করে থাকে। করোনা মহামারির কারণে গত বছরের মতো এ রমজানও লকডাউনে অতিবাহিত করছে যুক্তরাজ্যে বসবাসরত ৩৩ লাখ মুসলিম। করোনা রোধে জনসমাগম নিষিদ্ধ থাকায় এবারের ইফতারে মুসলিমরা সমবেত হতে পারছেন না।

টিচ মি ইসলাম সংগঠনের পরিচালক নাবিলা রেজা জানান, গত বছরের রমজানে লকডাউনের সময় তিনি অনলাইন প্লাটফর্মের গুরুত্ব উপলব্ধি করেছেন। পবিত্র রমজান মাসে সমাজের সব সদস্যের মধ্যে ভার্চুয়াল যোগাযোগ মুসলিমদের মনোবলকে সুদৃঢ় করে।

গত বছর রমজানে ব্রিটেনে বসবাসরত মুসলিম জনগোষ্ঠী সবচেয়ে কঠিন সময় অতিবাহিত করেছে। এ বছরও বন্ধু ও পরিবারের সদস্যদের সাক্ষাতে অনেক ধরনের বিধিনিষেধ বহাল আছে। এসঙ্গে ইফতারের কর্মসূচী এখন আমরা করতে পারছি না।

লকডাউন শুরু হওয়ার পর বিশেষত রমজান মাসে মানুষের মধ্যে ‘টিচমি ইসলাম’-এর শিক্ষামূলক কার্যক্রম বেশি জনপ্রিয়তা লাভ করে। অনলাইনে শিক্ষা কার্যক্রমের মাধ্যমে মানুষের মধ্যে মানবিক প্রতিক্রিয়া জেগে ওঠে। সবার মনে এ ভাবনা জেগে ওঠে যে, তাঁরা একাকী নন, একজন শিক্ষক ব্যক্তিগতভাবে তাদেরকে সঠিক উপদেশ দিচ্ছেন। ধর্মীয় আলোচনা আমাদেরকে প্রয়োজনীয় নির্দেশনা ও অনুপ্রেরণা প্রদান করে।’

এদিকে ব্রিটেনভিত্তিক মানসিক স্বাস্থ্যবিষয়ক দাতব্য প্রতিষ্ঠান সাপোর্টিং হিউম্যানিটি করোনা মহামারিতে প্রিয়জনদের হারিয়ে শোকাহত পরিবারকে বিনামূল্যে পরামর্শ প্রদান করেন। প্রতিষ্ঠানের পরিচালক ইদরিস পাতেল বলেন, ‘রমজান মাস মুসলিমদের কাছে আধ্যাত্মিক সম্পর্ক স্থাপনের একটি মাস। এ মাসে অসহায়-দরিদ্রদেরকে দানের মাধ্যমে স্মরণ করা হয়। পাশাপাশি পরিবারের সদস্যরা এ মাসে একত্রিত হয়।’

‘কিন্তু করোনা মহামারির কারণে এবারও পারিবার ও বন্ধুদের মধ্যে সমাগম সম্ভব নয়। অপরদিকে মানসিক স্বাস্থ্যসেবামূলক প্রতিষ্ঠান হিসেবে আমরা মানুষের মধ্যে এই অনুভূতি তৈরি করতে চাই যে সামাজিক সম্পর্কের অনেক উপায় আছে এবং তারা এর অংশ হয়ে থাকতে পারবে। ফলে পারষ্পরিকভাবে তারা একে অপর থেকে বিচ্ছিন্ন নন।’

সূত্র : আরব নিউজ

শেয়ার করুন


সর্বস্বত্ব সংরক্ষিত © ১৯৮৬ - ২০২১ মাসিক পাথেয় (রেজিঃ ডি.এ. ৬৭৫) | patheo24.com
Design & Developed BY ThemesBazar.Com