৫ই জুলাই, ২০২০ ইং , ২১শে আষাঢ়, ১৪২৭ বঙ্গাব্দ , ১৩ই জিলক্বদ, ১৪৪১ হিজরী

মহারাষ্ট্রে মসজিদে করোনা রোগীদের ফ্রি চিকিৎসা সেবা

পাথেয় টোয়েন্টিফোর ডটকম : প্রাণঘাতী বৈশ্বিক মহামারি করোনাভাইরাসে আক্রান্ত রোগীদের জন্য মসজিদে মিলছে অক্সিজেন ও আলাদা শয্যাসহ বিনামূল্যের (ফ্রি) চিকিৎসা সেবা। ভারতের মহারাষ্ট্রের ভিওয়ান্দি (পূর্ব)-এর শান্তিনগরের মক্কা মসজিদে মুসলিমরা মানবিকতার এক দৃষ্টান্ত তুলে ধরেছেন।

মহামারি করোনাভাইরাসের প্রকোপে মহারাষ্ট্রের হাসপাতালে সেবা দেয়ার মতো কোনো অবস্থা নেই। এমনি মুহূর্তে অক্সিজেন এবং আলাদা শয্যাসহ ভারতের মহারাষ্ট্রের ভিওয়ান্দি (পূর্ব)-এর শান্তিনগরের মক্কা মসজিদে কোভিড রোগীদের ফ্রি সেবা দিচ্ছেন স্থানীয় মুসলমানরা।

সেখানকার মুসলিমরা করোনাভাইরাসে আক্রান্তদের জন্য মসজিদে গড়ে তুললো ৫ শয্যা বিশিষ্ট চিকিৎসা কেন্দ্র। মসজিদের হলে শয্যা ও অক্সিজেনের ব্যবস্থা রাখা হয়েছে। সেখানে রোগীদের কোনো টাকা দিতে হচ্ছে না, বিনামূল্যে মিলবে করোনার চিকিৎসা সেবা।

লকডাউনের কারণে মক্কা মসজিদও বন্ধ করে দেয়া হয়। পরে তারা বন্ধ থাকা মসজিদটিতে করোনা রোগীদের জন্য ৫টি শয্যা ও অক্সিজেনের ব্যবস্থা করে সংকটজনক নয় এমন রোগীদের চিকিৎসা দিতে এগিয়ে আসে।

মহামারি করোনায় আক্রান্তে শীর্ষে অবস্থান করছে ভারতের মহারাষ্ট্র। আবার এ রাজ্যের ভিওয়ান্দিতেই করোনায় আন্তান্তদের মৃত্যুর হারও সবচেয়ে বেশি। যার হার হলো ৫.৩ শতাংশ।

ভারতের জনবহুল এই অঞ্চলের কোনো হাসপাতালেই করোনাভাইরাসে আক্রান্ত রোগী রাখার মতো কোনো শয্যা নেই। রোগীর ভিড় বেড়েই চলেছে। জরুরি সেবাও মিলছে না। এই পরিস্থিতেতে এগিয়ে এল জামায়াত–ই–ইসলামি হিন্দের স্থানীয় শাখা এবং শান্তিনগর ট্রাস্ট।

গত ১৮ জুন মহারাষ্ট্রের ভিওয়ান্দি শহরের মক্কা মসজিদে কোভিড রোগীদের চিকিৎসার জন্য অস্থায়ী কেন্দ্র গড়ে তোলে তারা। অবশ্যই সঙ্কটজনক নয়, এমন রোগীদের মধ্যে যারা হাসপাতালে জায়গা পাবেন না, তাদের এখানে রাখা হবে। মসজিদের হলরুমে শয্যা ও অক্সিজেনের ব্যবস্থা রাখা হয়েছে। সারা দিন ছয়‌ জন স্বাস্থ্যকর্মী রোগীদের খেয়াল রাখেন। দিনে দুই ‌জন চিকিৎসক এসে রোগীদের দেখে যান।

গত এক সপ্তাহে তারা প্রায় ৮০ জন রোগীকে চিকিৎসা সেবা দিয়েছেন। সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমের সহায়তায় তারা তাদের এ সেবা কার্যক্রমের সংবাদ স্থানীয়দের মাঝে পৌছাতে সক্ষম হয়েছেন।

জামায়াত–ই–ইসলামির ভিওয়াণ্ডির সদস্য আওসাফ আহমেদ ফালাহি জানালেন, জেলার হাসপাতালগুলোর ওপর চাপ কমাতেই এই উদ্যোগ। স্বেচ্ছাসেবীরা রোগীদের বাড়ি বিনামূল্যে অক্সিজেন পৌঁছনোরও কাজ করছেন বলে জানা গেছে।

সূত্র : দ্য লজিক্যাল ইন্ডিয়ান ডটকম, ইন্ডিয়া ডটকম

নিউজটি শেয়ার করুন

এই ওয়েবসাইটের কোনো লেখা, ছবি, ভিডিও অনুমতি ছাড়া ব্যবহার সম্পূর্ণ বেআইনি এবং শাস্তিযোগ্য অপরাধ
Design & Developed BY ThemesBazar.Com