১৭ই জুন, ২০২১ খ্রিস্টাব্দ , ৩রা আষাঢ়, ১৪২৮ বঙ্গাব্দ , ৬ই জিলকদ, ১৪৪২ হিজরি

যুক্তরাষ্ট্রে  বন্ধ হচ্ছে ডিভি  ভিসা

নিজস্ব প্রতিবেদক ● যুক্তরাষ্ট্রে অভিবাসন প্রত্যাশীদের কপাল পুড়তে পারে। নিউ ইয়র্কে ট্রাক হামলা ও কলোরাডোতে গুলি করে কমপক্ষে তিনজনকে হত্যার পর সেখানে অভিবাসন বিষয়ক আইন কঠোর করতে চাইছেন প্রেসিডেন্ট ডোনাল্ড ট্রাম্প। একই সঙ্গে তিনি ভিসা কর্মসূচি, যেটা ডাইভারসিটি ভিসা নামে পরিচিত তা বাতিল করার জন্য আহ্বান জানাচ্ছেন কংগ্রেসে। যদি তার এই আহ্বানে কংগ্রেস সাড়া দেয় তাহলে ডাইভারসিটি ভিসা কর্মসূচিতে বিরাট এক পরিবর্তন আসতে যাচ্ছে। ফলে আগামীতে এই কর্মসূচি বন্ধও হয়ে যেতে পারে। এমন ইঙ্গিত দিয়ে রিপোর্ট প্রকাশ করেছে বার্তা সংস্থা রয়টার্স।

এতে বলা হয়েছে, মঙ্গলবার নিউ ইয়র্ক সিটিতে উজবেকিস্তানের নাগরিক সাইফুল্লাহ ট্রাক উঠিয়ে দিয়ে কমপক্ষে আটজনকে হত্যা করেছে। এর একদিন পরেই কলোরাডোতে এক অস্ত্রধারী গুলি করে হত্যা করেছে কমপক্ষে তিন জনকে। এই হামলাকে কাজে লাগাতে পারেন প্রেসিডেন্ট ট্রাম্প। তিনি আগে থেকেই অভিবাসন বিরোধী অবস্থানে। ক্ষমতায় আসার পর পরই প্রথমে ৭টি মুসলিম দেশ, পরে ৬টি মুসলিম দেশের ওপর যুক্তরাষ্ট্রে ভ্রমণ নিষেধাজ্ঞা জারি করেছিলেন। কিন্তু আদালত তা আটকে দিয়েছে। এ ছাড়া তিনি যুক্তরাষ্ট্রে বসবাসকারী কয়েক লাখ অবৈধ অভিবাসীকে বের করে দেয়ার প্রতিশ্রুতি দিয়েছেন। সে মতো কাজও এগিয়ে চলেছে বলে জানা যায়। এরই মধ্যে ওই হামলা হলো। ফলে তিনি নিউ ইয়র্ক হামলাকারী সাইফুল্লাহ সাইপোভকে কুখ্যাত গুয়ানতানামো বে বন্দিশিবিরে পাঠিয়ে দেয়ার ঘোষণা দিয়েছেন। তিনি এ ঘটনাকে ব্যবহার করে ডাইভারসিটি ভিসা বন্ধ করে দেয়ার চেষ্টা করতে পারেন বলে শোনা যাচ্ছে। এই ভিসা কর্মসূচিটি প্রতিষ্ঠা করেছিল যুক্তরাষ্ট্রের কংগ্রেস ও তাতে সহযোগিতা করেছিল পররাষ্ট্র মন্ত্রণালয়। উদ্দেশ্য ছিল এর আওতায় অধিক সংখ্যক আইরিশ ও ইতালিয়ান অভিবাসীকে যুক্তরাষ্ট্রে অভিবাসন সুবিধা দেয়া। তা ছাড়া লটারির মাধ্যমে অন্য কিছু দেশের স্বল্প সংখ্যক মানুষ প্রবেশ করতে পারতেন যুক্তরাষ্ট্রে। এর মধ্য দিয়ে তারা হয়ে উঠতেন যুক্তরাষ্ট্রের স্থায়ী বাসিন্দা। আবেদনকারীর কমপক্ষে হাইস্কুল পর্যায়ের বা সমমানের শিক্ষাগত যোগ্যতা ও সংশ্লিষ্ট কাজের যোগ্যতা থাকতে হয়। এ কর্মসূচির আওতায় আছে বাংলাদেশও। বাংলাদেশ থেকে এ পর্যন্ত অনেক মানুষ ডাইভারসিটি ভিসায় যুক্তরাষ্ট্রে পাড়ি জমিয়েছেন। ২০১৬ সালে বিভিন্ন দেশ থেকে ৫০ হাজার অভিবাসীকে নেয়ার জন্য এ লটারি ছাড়া হয়। তাতে এক কোটি ১৪ লাখের কাছাকাছি আবেদন জমা পড়ে। যুক্তরাষ্ট্রের পররাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ের এ তথ্যে আরো বলা হয়েছে, এ লটারিতে বিজয়ী ও তার পরিবারের ঘনিষ্ঠরা যুক্তরাষ্ট্রে বসবাসের সুবিধা পাবেন।

এত বিপুলসংখ্যক অভিবাসী প্রতি বছর গিয়ে যুক্তরাষ্ট্রে যুক্ত হচ্ছেন। এতে সেখানকার জাতীয় নিরাপত্তাব্যবস্থা ঝুঁকিতে পড়ছে বলে দাবি করা হয়। সমালোচনা করা হয় এ কর্মসূচির। মঙ্গলবার নিউ ইয়র্কে হামলা চালানো সাইফুল্লাহ উজবেকিস্তানের। সে যুক্তরাষ্ট্রে অভিবাসী। এ ঘটনায় প্রেসিডেন্ট ট্রাম্প বুধবার এই ডাইভারসিটি ভিসা কর্মসূচি অবিলম্বে বন্ধ করতে আহ্বান জানিয়েছেন কংগ্রেসের প্রতি। ওদিকে রিপাবলিকান জুডিশিয়ারি কমিটির চেয়ারম্যান বব গুডলেট দীর্ঘদিন ধরে এই ডাইভারসিটি ভিসা কর্মসূচি বন্ধ করার আহ্বান জানিয়ে আসছেন। তিনি এক বিবৃতিতে বলেছেন, এই কর্মসূচি আমাদের নিজস্ব নাগরিকদের জন্য মারাত্মক এক নিরাপত্তা ঝুঁকি।

শেয়ার করুন


সর্বস্বত্ব সংরক্ষিত © ১৯৮৬ - ২০২১ মাসিক পাথেয় (রেজিঃ ডি.এ. ৬৭৫) | patheo24.com
Design & Developed BY ThemesBazar.Com