১৭ই জুন, ২০২১ খ্রিস্টাব্দ , ৩রা আষাঢ়, ১৪২৮ বঙ্গাব্দ , ৬ই জিলকদ, ১৪৪২ হিজরি

রিটার্নিং কর্মকর্তার দায়িত্ব চান ইসি কর্মকর্তারা

নিজস্ব প্রতিবেদক : ভোট আয়োজনে নিরঙ্কুশ কর্তৃত্ব রাখতে নির্বাচন কমিশন সচিবালয়ের মাঠ কর্মকর্তারা রিটার্নিং ও সহকারী রিটার্নিং কর্মকর্তার দায়িত্ব পেতে গণপ্রতিনিধিত্ব আদেশে সংস্কারের প্রস্তাব করেছেন। সেই সঙ্গে আমলাদের অবসরের পর ভোটে আসার বিধিনিষেধ পাঁচ বছর করা, সশস্ত্রবাহিনীকে আইন শৃঙ্খলাবাহিনীর সংজ্ঞায় আনা, রিটার্নিং অফিসারকে প্রার্থিতা বাতিল এবং আচরণবিধি লঙ্ঘনের ক্ষেত্রে হাকিমদের মতো ক্ষমতা দেয়া, প্রার্থীদের জামানতের টাকা বাড়ানো, কোনো প্রার্থী নিজেকে স্বশিক্ষিত বলে দাবি করলেও সেজন্য সনদ নেওয়ার বিধান চালু এবং রাজনৈতিক দলগুলোকে তদারকিতে আনতে নির্বাচনী আইন সংস্কারের সুপারিশ করেছেন ইসি কর্মকর্তারা।

গণপ্রতিনিধিত্ব আদেশে (আরপিও) অন্তত ৩৫টি অনুচ্ছেদে সংস্কার আনার প্রস্তাব এসেছে এই মাঠ কর্মকর্তাদের কাছ থেকে। তাদের এসব প্রস্তাব একীভূত করে রোববার নির্বাচন কমিশনার কবিতা খানমের কাছে উপস্থাপন করা হয়েছে। একাদশ সংসদ নির্বাচন সামনে রেখে আরপিও এবং নির্বাচন পরিচালনা বিধি, রাজনৈতিক দল নিবন্ধনবিধি, আচরণবিধিসহ সংশ্লিষ্ট নির্বাচনী আইন সংস্কারের কাজে হাত দিয়েছে ইসি। এ লক্ষ্যে ৩১ জুলাই থেকে শুরু হচ্ছে রাজনৈতিক দল ও নাগরিক সমাজের সঙ্গে সংলাপ। ইসির আইন সংস্কার সংক্রান্ত এই কমিটির নেতৃত্বে রয়েছেন নির্বাচন কমিশনার কবিতা খানম। এ বিষয়ে মাঠ কর্মকর্তাদের ভাষ্য জানতে সংলাপের আগে ১০ আঞ্চলিক নির্বাচন কর্মকর্তা ও জ্যেষ্ঠ জেলা নির্বাচন কর্মকর্তার কাছ থেকে মতামত সংগ্রহ করে কমিটি।

কবিতা খানম  বলেন, মাঠপর্যায়ের মতামতগুলো আমরা নিয়েছি। কারণ যারা এগুলো ফেইস করেন, তারাই বলতে পারবেন- কোন কোন জায়গায় সংস্কার করা দরকার। যেসব প্রস্তাব যুক্তিসঙ্গত মনে হবে, নির্বাচন প্রক্রিয়াকে যা সহজ করবে, যুগোপযোগী করবে, শুধুমাত্র সেই বিষয়গুলোকে আমরা বাছাই করব। রাজনৈতিক দলসহ অংশীজনের সংলাপে বিষয়গুলো তুলে ধরা হবে জানিয়ে এই নির্বাচন কমিশনার বলেন, তারপর আমরা খসড় চূড়ান্ত করব, আইন সংশোধনের জন্য প্রস্তাব দেব। ইসি কর্মকর্তারা জানান, মাঠ কর্মকর্তারা যেসব প্রস্তাব দিয়েছেন তার মধ্যে পুরনো অনেক বিষয় রয়েছে। গত কমিশন বিদায়ের আগে কিছু প্রস্তাব দিয়েছিল, সেসবও বর্তমান ইসির সামনে উপস্থাপন করা হবে। আরপিওর পাশাপাশি অন্যান্য বিধির সুপারিশগুলো পর্যায়ক্রমে ইসির নজরে আনা হবে।

শেয়ার করুন


সর্বস্বত্ব সংরক্ষিত © ১৯৮৬ - ২০২১ মাসিক পাথেয় (রেজিঃ ডি.এ. ৬৭৫) | patheo24.com
Design & Developed BY ThemesBazar.Com