২৫শে সেপ্টেম্বর, ২০২০ ইং , ১০ই আশ্বিন, ১৪২৭ বঙ্গাব্দ , ৭ই সফর, ১৪৪২ হিজরী

র‌্যাবের জালে অষ্টম শ্রেণি পাস চিকিৎসক দম্পতি

পাথেয় টোয়েন্টিফোর ডটকম : অষ্টম শ্রেণী পাশ দম্পতি কিন্তু তাদের রয়েছে নিজস্ব চেম্বার। দীর্ঘদিন ধরে পাইলস চিকিৎসার নামে প্রতারণা চালিয়ে আসছিলেন এই দম্পতি। অবশেষে এই ভুয়া চিকিৎসক দম্পতিকে আটক করে কারাদণ্ড এবং ৩০ হাজার টাকা জরিমানা করেছে ভ্রাম্যমাণ আদালত।

ঘটনা সিরাজগঞ্জের। আটককৃতরা হলেন- সিরাজগঞ্জ সদর উপজেলার মাসুমপুর গ্রামের মো. মিল্টন তালুকদার (৩৮) এবং তার স্ত্রী মোছা. পাপিয়া খানম (৩৫)।

র‌্যাব-১২ এর কোম্পানি কমান্ডার এএসপি মুহাম্মদ মহিউদ্দিন মিরাজ জানান, গোপন সংবাদের ভিত্তিতে সিরাজগঞ্জ শহরের নিউ মার্কেটের দোতলায় অবস্থিত পাইলস কেয়ার সেন্টারে অভিযান পরিচালনা করে তাদেরকে গ্রেপ্তার করা হয়। এসময় তার চেম্বার থেকে পাইলস চিকিৎসার জন্য বিজ্ঞাপন, বিজ্ঞাপনে ব্যবহৃত মোবাইল, রোগীদের তালিকা, চিকিৎসায় ব্যবহৃত মেডিক্যাল বেড, ওষুধ ও যন্ত্রপাতি উদ্ধার করা হয়।

তিনি আরো জানান, আটককৃত ভুয়া ডাক্তার মো. মিল্টন তালুকদার দীর্ঘদিন যাবত সিরাজগঞ্জ শহরে পাইলস কেয়ার সেন্টার খুলে বিভিন্ন ভুয়া আকর্ষণীয় বিজ্ঞাপন দিয়ে অসহায় রোগীদের চিকিৎসা ও অপারেশন করতেন। তার স্ত্রী মোছা. পাপিয়া খানম মহিলাদের চিকিৎসা করতেন। অথচ তাদের কারো কোনো ডাক্তারি সনদ ছিল না এবং তার স্ত্রী মোছা. পাপিয়া খানম অষ্টম শ্রেণি পাস।

পরবর্তীতে ভ্রাম্যমাণ আদালতের মাধ্যমে নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেট মো. মাসুদুর রহমান ভুয়া চিকিৎসক মিল্টন তালুকদারকে দেড় বছরের বিনাশ্রম কারাদণ্ড প্রদান করেন এবং তার স্ত্রী মোছা. পাপিয়া খানমকে ৩০ হাজার টাকা জরিমানা করেন।

/এএ

নিউজটি শেয়ার করুন

এই ওয়েবসাইটের কোনো লেখা, ছবি, ভিডিও অনুমতি ছাড়া ব্যবহার সম্পূর্ণ বেআইনি এবং শাস্তিযোগ্য অপরাধ
Design & Developed BY ThemesBazar.Com