১৮ই সেপ্টেম্বর, ২০২০ ইং , ৩রা আশ্বিন, ১৪২৭ বঙ্গাব্দ , ২৯শে মুহাররম, ১৪৪২ হিজরী

লেবানন ও নেত্রকোণায় শহীদদের প্রতি আল্লামা মাসঊদের শোক

লেবানন ও নেত্রকোণায় শহীদদের প্রতি আল্লামা মাসঊদের শোক

পাথেয় টোয়েন্টিফোর ডটকম :  লেবাননের রাজধানী বৈরুতে ভয়াবহ বিস্ফোরণের ঘটনায় কমপক্ষে ১৩৫ জন এবং ময়মনসিংহের এক পরিবারের আটজনসহ সতেরজন নেত্রকোণার হাওরে ডুবে নিহতদের প্রতি গভীর শোক জানিয়েছেন বাংলাদেশ জমিয়তুল উলামার চেয়ারম্যান, ঐতিহাসিক শোলাকিয়া ঈদগাহের গ্র্যান্ড ইমাম, শাইখুল হাদীস আল্লামা ফরীদ উদ্দীন মাসঊদ।

তিনি বলেন, বিশ্বের পুঁজিবাদি মানসিকতার শিকার লেবাননের মুসলমানগণ। অর্থলিপ্সু ও যোদ্ধাবাজ আগ্রাসীদের কারণেই লেবাননের বৈরুতে ভয়াবহ বিস্ফোরণ ঘটানো হয়েছে। বৈরুতে নিহতদের আল্লহ তাআলা শাহাদাতের মর্যাদা দান করুন।

বিশ্ব মুসলিমকে বৈরুতের ঘটনার পর আরও সজাগ দৃষ্টি রেখে এগিয়ে যাওয়ার আহ্বান জানিয়ে আল্লামা মাসঊদ বলেন, মুসলমনদের ঐক্য বিনষ্ট হওয়ার কারণেই জঘন্য হামলার শিকার হতে হচ্ছে। মুসলিম ঐক্যে ফাটলই হলো শত্রুদের বড় পুঁজি। মধ্যপ্রাচ্যের সম্পদ লুণ্ঠন করার জন্য এহেন অপরাধ নেই পুঁজিবাদিরা করছে না।

নেত্রকোনার মদন উপজেলার পর্যটনকেন্দ্র ‘মিনি কক্সবাজার’ খ্যাত উচিতপুরের হাওরে ঘুরতে গিয়ে নৌকাডুবিতে তালেবুল ইলম ও মাদরাসা শিক্ষকদের ইন্তেকালে গভীর শোক প্রকাশ করে আল্লামা মাসঊদ বলেন, কখন কোথায় মৃত্যু হবে আমরা জানি না। নৌকা ডুবে যাওয়া শিক্ষার্থী ও আলেম উলামাকে আল্লাহ তাআলা ক্ষমা করে দিন। শহীদী মৃত্যু হিসেবে কবুল করুন।

০৬ আগস্ট ২০২০ বৃহস্পতিবার গণামাধ্যমে পাঠানো এক বিবৃতিতে শাইখুল হাদীস আল্লামা ফরীদ উদ্দীন মাসঊদ এসব কথা বলেন।

কওমী মাদরাসা পরিচালকদের সতর্ক করে ফরীদ উদ্দীন মাসঊদ বলেন, আলেমগণ সবসময় সচেতন হবেন। সতর্ক থাকবেন। নিজেদের অসতর্কতার কারণে যেনো কওমী অঙ্গনের গায়ে কোনো দাগ লাগে। আমরা সতর্ক থাকলে ইলহামী মাদরাসার ইলাহামী শিক্ষার্থীদের আল্লহই রক্ষা করবেন।

নিহতদের পরিবারের প্রতি গভীর সমবেদনা জ্ঞাপন করে তিনি বলেন, মৃত্যু অবধারিত। আমরা কেউই জানি না কখন কার ইন্তেকাল হবে। এ মুহূর্তেও আমাদের ধৈর্যধারণ করতে হবে। তাদের মাগফেরাতের জন্য দুআ করতে হবে।

নিউজটি শেয়ার করুন

এই ওয়েবসাইটের কোনো লেখা, ছবি, ভিডিও অনুমতি ছাড়া ব্যবহার সম্পূর্ণ বেআইনি এবং শাস্তিযোগ্য অপরাধ
Design & Developed BY ThemesBazar.Com