২২শে এপ্রিল, ২০২১ খ্রিস্টাব্দ , ৯ই বৈশাখ, ১৪২৮ বঙ্গাব্দ , ৯ই রমজান, ১৪৪২ হিজরি

শেষবেলায়ও সৌজন্য দেখাননি ট্রাম্প-মেলানিয়া

শেষবেলায়ও সৌজন্য দেখাননি ট্রাম্প-মেলানিয়া

পাথেয় টোয়েন্টিফোর ডটকম : হোয়াইট হাউসে ডোনাল্ড ট্রাম্পের আজ শেষ দিন। স্থানীয় সময় বুধবার সকালে হোয়াইট হাউস থেকে ট্রাম্প চলে যাবেন। যাওয়ার আগে জো বাইডেনের সঙ্গে সাক্ষাৎ বা বিদায়বেলায় করমর্দনের কোনো কর্মসূচি রাখেননি ট্রাম্প। ফার্স্ট লেডি মেলানিয়া ট্রাম্পের কর্মসূচিও একই ধরনের। উত্তরসূরি ফার্স্ট লেডি জিল বাইডেনকে কোনো আমন্ত্রণ জানাননি তিনি।

ট্রাম্প নিজেই জয়েন্ট এন্ড্রু বেস থেকে নিজের ফেয়ারওয়েল নেবেন। স্থানীয় সময় দুপুরে জো বাইডেনের শপথ নেওয়ার আগেই তিনি বোয়িং-৭৪৭ নিয়ে ফ্লোরিডার মার এ লাগোতে যাবেন। জো বাইডেন শপথ নেওয়ার ঠিক আগমুহূর্ত পর্যন্ত মার্কিন প্রেসিডেন্টের উড়োজাহাজে এয়ারফোর্স ওয়ান সাইন থাকবে। এয়ারফোর্স ওয়ানের সাইন নিয়েই ফ্লোরিডা যাওয়ার ব্যাপারটি নিশ্চিত করেছেন ট্রাম্প।

ফার্স্ট লেডি মেলানিয়া ট্রাম্পও স্বামীর পথেই হাঁটছেন। ট্রাম্পের মতোই আচরণ করেছেন তাঁর স্ত্রী ফার্স্ট লেডি মেলানিয়া ট্রাম্পও। প্রথা অনুযায়ী পূর্বসূরি ফার্স্ট লেডি উত্তরসূরিকে হোয়াইট হাউসে আমন্ত্রণ জানান। নানা কক্ষ ঘুরে দেখান। হোয়াইট হাউসে বসবাসের বিষয়ে নানা তথ্য দেন। মেলানিয়াও উত্তরসূরি ফার্স্ট লেডি জিল বাইডেনকে কোনো আমন্ত্রণ করেননি।

জো বাইডেনের মেয়ে অ্যাশলি বাইডেন বলেছেন, মেলানিয়া ট্রাম্প যুক্তরাষ্ট্রের দীর্ঘদিনের ঐতিহ্য লঙ্ঘন করেছেন। তবে অ্যাশলি বাইডেন বলেন, টি অ্যান্ড টুর নামে পূর্বসূরি এবং উত্তরসূরি ফার্স্ট লেডিদের অনুষ্ঠান না হলেও তাঁরা নিজেরা ঠিক আছেন। ঠিক থাকবেন।

জো বাইডেনের প্রতি শেষ সৌজন্যও দেখাননি প্রেসিডেন্ট ডোনাল্ড ট্রাম্প। প্রথা অনুযায়ী উত্তরসূরি প্রেসিডেন্টকে নিতে পূর্বসূরি প্রেসিডেন্ট এয়ারফোর্সের বিমান পাঠান। ডোনাল্ড ট্রাম্পকেও ওয়াশিংটনে শপথ নিতে আসার জন্য নিউইয়র্কে এয়ারফোর্সের বিমান পাঠিয়েছিলেন পূর্বসূরি প্রেসিডেন্ট বারাক ওবামা।

তবে বাইডেনের ক্ষেত্রে তা করেননি ট্রাম্প। বাইডেনকে প্রেসিডেন্ট হিসেবে শপথ নিতে ভাড়া করা বিমানে ওয়াশিংটন ডিসিতে যেতে হয়েছে। স্থানীয় সময় বুধবার ভাড়া করা বোয়িং-৭৩৭ বিমানে এন্ড্রু জয়েন্ট বেসে নামেন জো বাইডেন। তখন রানওয়েতে এয়ারফোর্সের বিমানটি দাঁড়িয়ে ছিল।

জো বাইডেন অবশ্য শপথ নিতে উইমলিংটন শহর থেকে দেড় ঘণ্টার পথ ট্রেনে করেই ওয়াশিংটন ডিসিতে যেতে চেয়েছিলেন। সিনেটর হিসেবে ৩০ বছর ধরে তিনি এভাবে যাত্রা করেছেন। নিরাপত্তার জন্য গোয়েন্দা বিভাগ থেকে এমন যাত্রা না করতে তাঁকে পরামর্শ দেওয়া হয়।

জো বাইডেন যখন ওয়াশিংটনে নামেন, তখন হোয়াইট হাউস থেকে ডোনাল্ড ট্রাম্পের ২০ মিনিটের ভিডিও বার্তা অবমুক্ত করা হয়। জাতির উদ্দেশে দেওয়া বিদায়ী বক্তব্যে ডোনাল্ড ট্রাম্প তাঁর উত্তরসূরি জো বাইডেনের নামটাও মুখে নেননি। জানাননি কোনো অভিনন্দন। আমেরিকার সংস্কৃতিতে এসবই এক বিরল ঘটনা।
বুধবার ওয়াশিংটন সময় মধ্যদুপুরে (বাংলাদেশ সময় রাত ১১টা) যুক্তরাষ্ট্রের ৪৬তম প্রেসিডেন্ট ও ভাইস প্রেসিডেন্ট হিসেবে শপথ নেবেন জো বাইডেন ও কমলা হ্যারিস। কংগ্রেস ভবন পেছনে রেখে নির্মিত হয়েছে সুউচ্চ মঞ্চ। এখানে দাঁড়িয়েই শপথ নেবেন তাঁরা। তাঁদের শপথ পড়াবেন যথাক্রমে প্রধান বিচারপতি জন রবার্টস ও বিচারপতি সোনিয়া সটোমাইয়র।

অভিষেক অনুষ্ঠানে উপস্থিত থাকবেন হাজারখানেক অতিথি, যাঁদের অধিকাংশই কংগ্রেস সদস্য ও বাইডেন-হ্যারিস পরিবারের লোকজন। থাকবেন বিদায়ী ভাইস প্রেসিডেন্ট মাইক পেন্স। বিদায়ী প্রেসিডেন্ট ডোনাল্ড ট্রাম্প শপথ অনুষ্ঠানের ঘণ্টা তিনেক আগে স্ত্রী মেলানিয়াসহ ওয়াশিংটন ছেড়ে চলে যাবেন ফ্লোরিডায়।

শেয়ার করুন


সর্বস্বত্ব সংরক্ষিত © ১৯৮৬ - ২০২১ মাসিক পাথেয় (রেজিঃ ডি.এ. ৬৭৫) | patheo24.com
Design & Developed BY ThemesBazar.Com