১৭ই জুন, ২০২১ খ্রিস্টাব্দ , ৩রা আষাঢ়, ১৪২৮ বঙ্গাব্দ , ৬ই জিলকদ, ১৪৪২ হিজরি

সংসদে পাশ না হওয়া পর্যন্ত আন্দোলন করে যাবে আলেমগণ

নিজস্ব প্রতিবেদক : সংসদে পাশ না হওয়া পর্যন্ত আলেমগণ আন্দোলন করে যাবে বলে অভিমত ব্যক্ত করেছে আল হাইয়াতুল উলয়া লিল জামিঅতিল কাওমিয়া বাংলাদেশের নেতৃবৃন্দ। কেন্দ্রীয় পরীক্ষার ফলাফল উপলক্ষে এক সংবাদ সম্মেলনের আলেমগণ এসব মন্তব করেন। পরীক্ষা নিয়ন্ত্রক মাওলানা মুহাম্মদ ঈসমাইল বরিশালী ফলাফলের ফাইল দাওরায়ে হাদিসে মান বাস্তবায়ন কমিটির কো-চেয়ারম্যান আল্লামা আশরাফ আলীর হাতে তুলে দেন।

আল হাইয়াতুল উলয়া লিল জামিঅতিল কাওমিয়া  বাংলাদেশের দপ্তর সম্পাদক মাওলানা ওছিউর রহমান এর সঞ্চালনায় এছাড়াও অনুষ্ঠানে উপস্থিত ছিলেন দাওরায়ে হাদিসে মান বাস্তবায়ন কমিটির সদস্য মাওলানা আনোয়ার শাহ, মাওলানা নূর হোসাইন কাসেমী, মুফতী মুহাম্মদ ওয়াক্কাস, মাওলান আব্দুল কুদ্দুস, মুফতী মাহফুজুল হক, মুফতী মুহাম্মদ আলী, মাওলানা সাজিদুর রহমান, মুফতী ফয়জুল্লাহ, মাওলানা মুসেলহ উদ্দীন রাজু, আযাদ দ্বীনি এদারার প্রতিনিধি মাওলানা মুহিব্বুল হক, বেফাকের মহাপরিচার অধ্যাপক যোবায়ের আহমদ চৌধুরী, মাওলানা আব্দুর রহমান হাফেজ্জী, মাওলান ইয়াহইয়া মাহমুদ প্রমুখ।

দাওরায়ে হাদিসে মান বাস্তবায়ন কমিটির কো-চেয়ারম্যান আল্লামা আশরাফ আলী বলেন, কওমি মাদরাসার ছাত্রছাত্রী হলো দেশের আর্দশ নাগরিক। শিক্ষাঙ্গনে সুষ্ঠ পরিবেশ রক্ষা ও নকলমুক্ত পরীক্ষা দেয়া কওমি মাদরাসর এক অনন্য বৈশিষ্ট। দাওরায়ে হাদিসকে মাস্টার্সের সমমান প্রদান করায় আমরা মাননীয় প্রধানমন্ত্রীকে আন্তরিক কৃতজ্ঞতা জানাচ্ছি।

তিনি আরো বলেন, মাস্টার্স সমমানের বিল যতদিন সংসদে বিল পাশ না হবে ততদিন আমরা আমাদের আন্দোলন চালিয়ে যাবো।

অনুষ্ঠানে সাংবাদিকদের প্রশ্নের জবাবে আল্লামা আনোয়ার শাহ বলেন, যারা শুধু এক বিষয়ে ফেল করেছে পরবর্তী বছর পরীক্ষার ফি প্রদান করে ওই বিষয় পরীক্ষা দিতে পারবে। একাধিক বিষয়ে ফেল করলে নতুনভাবে নিবন্ধন করে যথা নিয়মে সব বিষয় পরীক্ষা দিতে হবে।

ফেল করাদের মধ্যে যারা তাখাসসুসে (উচ্চতর গবেষণা কোর্স) ভর্তি হয়েছে তাদের কী হবে এমন প্রশ্নে তিনি বলেন, যারা তাখাসসুসে ভর্তি হয়েছে তাদের আমরা বলেছি ছাত্রদের ২য় সাময়িক পরীক্ষার ফলাফল দেখে ভর্তি করতে। এভাবেই ভর্তি করা হয়েছে। তবে পরবর্তীতে এসব ঝামেলা আর থাকবে না।

দাওরার এ সার্টিফিকেট কোন কোন কাজে ব্যবহার করা যাবে এমন প্রশ্নে আল্লামা আশরাফ আলী বলেন, সরকার তো সবেমাত্র প্রজ্ঞাপন জারি করল যখন সংসদে বিল পাশ হবে তখন থেকে সেটা নির্ধারণ হবে।

অনুষ্ঠানে নেতৃবৃন্দ বলেন, কওমি স্বীকৃতি যতদিন পর্যন্ত সংসদে পাশ না হবে ততদিন পর্যন্ত আন্দোলন, দোয়া ও সরকারি লোকদের সঙ্গে যোগাযোগ অব্যাহত রাখবো।

শেয়ার করুন


সর্বস্বত্ব সংরক্ষিত © ১৯৮৬ - ২০২১ মাসিক পাথেয় (রেজিঃ ডি.এ. ৬৭৫) | patheo24.com
Design & Developed BY ThemesBazar.Com