৪ঠা ডিসেম্বর, ২০২০ ইং , ১৯শে অগ্রহায়ণ, ১৪২৭ বঙ্গাব্দ , ১৮ই রবিউস-সানি, ১৪৪২ হিজরী

১৮ উপজেলায় ভোটযুদ্ধ সোমবার

নিজস্ব প্রতিবেদক ● সোমবার দলীয়ভাবে প্রথমবার ১৮ উপজেলা পরিষদে ভোটের লড়াই অনুষ্ঠিত হবে। শনিবার রাতেই শেষ হয়েছে সব ধরনের প্রচার-প্রচারণা। একই সঙ্গে রবিবার থেকে বন্ধ হচ্ছে সব ধরনের যান্ত্রিক যান চলাচল। শেষ মুহূর্তেও কেন্দ্র দখল ও ভোট জালিয়াতির আশঙ্কা প্রকাশ করে নতুন নির্বাচন কমিশনে (ইসি) আবেদন করেছেন একাধিক প্রার্থী।

সোমবার সকাল ৮টা থেকে বিকেল ৪টা পর্যন্ত চলবে বিরতিহীনভাবে ভোটগ্রহণ। ভোটের দিন এসব এলাকায় সাধারণ ছুটি ঘোষণা করেছে ইসি। শনিবার রাত ১২টা থেকে নির্বাচনের পরবর্তী ৬৪ ঘন্টা সংশ্লিষ্ট নির্বাচনী এলাকায় সব ধরনের প্রচার-প্রচারণা নিষিদ্ধ ঘোষণা করেছে কমিশন। কেউ এই আইন ভঙ্গ করলে কারাদণ্ড ও আর্থিক জরিমানা বিধান রয়েছে।

এদিকে, কেএম নুরুল হুদা নেতৃত্বাধীন নতুন নির্বাচন কমিশনের (ইসি) পাঁচজন সদস্য জেলা সফরে বের হয়ে সুষ্ঠু নির্বাচন আয়োজনের বার্তা দিয়েছিলেন। কিন্তু মাঠে সেই বার্তার প্রতিফলন ঘটেনি বলে দাবি করেছেন পাবনার সুজানগর উপজেলার উপ-নির্বাচনে চেয়ারম্যান পদে বিএনপি মনোনীত প্রার্থী হাজারী জাকির হোসেনসহ একাধিক প্রার্থী ও তাদের সমর্থকরা। গত বৃহস্পতিবার হাজারী জাকির হোসেন এ সংক্রান্ত একটি চিঠি প্রধান নির্বাচন কমিশনার বরাবর পাঠান। চিঠিতে তিনি উল্লেখ করেন, একজন কমিশনার গত ২৭ ফেব্রুয়ারি এ নির্বাচনকে কেন্দ্র করে পাবনা জেলা রাজশাহী বিভাগীয় প্রশাসনিক কর্মকর্তা ও প্রার্থীদের নিয়ে করা সভায় সুষ্ঠু নির্বাচনের প্রতিশ্রুতি দিয়ে যথাযথ নির্দেশনা দেওয়া সত্ত্বেও প্রশাসনের নীরব ভূমিকা দুঃখজনক। এসব এলাকায় সহিংসতা চলছে। ১ মার্চ সুজানগর পৌর এলাকায় পাবনা জেলা বিএনপির নেতা-কর্মীরা নির্বাচনী প্রচারণা চালাতে গেলে তাদের ওপর নৃশংস হামলা চালানো হয়। এতে তিনজন গুরুতর আহত হয়ে হাসপাতালে ভর্তি এবং ২ জনকে প্রাথমিক চিকিত্সা দেওয়া হয়েছে। কমিশনে চিঠি দিতে আসা বিএনপি প্রার্থী হাজারী জাকির হোসেনের মেয়ে অ্যাডভোকেট জাকিয়া হুমায়রা বলেন, এ পর্যন্ত কমিশনকে দশটি চিঠি দেয়া হয়েছে। কিন্তু তাদের কোনো কার্যক্রম আমরা লক্ষ্য করছি না। আমাদের বাড়িতে হামলা হচ্ছে। নির্বাচনী এজেন্টদের বাড়িতে গিয়ে হুমকি দেওয়া হচ্ছে। কিন্তু কমিশন কোনো ব্যবস্থা নিচ্ছে না।

উল্লেখ্য, সোমবার সিলেটের ওসমানীনগর, খাগড়াছড়ির গুইমারা ও সুনামগঞ্জের জগন্নাথপুরে সাধারণ নির্বাচন এবং কুড়িগ্রামের সদর, বরিশালের বানারীপাড়া ও গৌরনদী, ঝালকাঠির কাঁঠালিয়া, পটুয়াখালীর রাঙ্গাবালি, কুমিল্লা আদর্শ সদর, নাটোরের বড়াইগ্রাম, পাবনার সুজানগর, কিশোরগঞ্জের হোসেনপুর উপজেলায় চেয়ারম্যান পদে, কুমিল্লার সদর দক্ষিণ ও পাবনার ঈশ্বরদীতে মহিলা ভাইস চেয়ারম্যান, কুমিল্লার চৌদ্দগ্রাম, নীলফামারীর জলঢাকা, সাতক্ষীরার কলারোয়া ও বাগেরহাটের মোরেলগঞ্জে ভাইস চেয়ারম্যান পদে উপ-নির্বাচন অনুষ্ঠিত হব।

নিউজটি শেয়ার করুন

এই ওয়েবসাইটের কোনো লেখা, ছবি, ভিডিও অনুমতি ছাড়া ব্যবহার সম্পূর্ণ বেআইনি এবং শাস্তিযোগ্য অপরাধ
Design & Developed BY ThemesBazar.Com