২৫শে জুন, ২০২২ খ্রিস্টাব্দ , ১১ই আষাঢ়, ১৪২৯ বঙ্গাব্দ , ২৪শে জিলকদ, ১৪৪৩ হিজরি

অজু করার সময় কথা বলা যাবে কি?

পাথেয় টোয়েন্টিফোর ডটকম : অজু করার সময় কথা বললে অসুবিধা হবে কি?— এমন প্রশ্ন করে থাকেন অনেকে। মূলত অজুর সময় কথা বলা জায়েজ, অজুর কোনো ক্ষতি হবে না।

তবে স্বাভাবিকভাবেই আল্লাহর বান্দা যখন একসঙ্গে দুটি কাজ করতে যাবে, তখন কোথাও ভুল হতেই পারে। এ জন্য কেউ কেউ মনে করেন যে, অজু করার সময় কথা না বলাই ভালো। এছাড়া অজুর সময় কোনো কথা বললে অজু নষ্ট হয়ে যাবে— এই মর্মে হাদিসে কোনো বক্তব্য নেই। ফলে অজুর সময় আপনি কথা বলতে পারেন, কথা বলা জায়েজ রয়েছে।

অজুতে কিছু কাজ করা মাকরুহ বা অপছন্দনীয়। তবে সেগুলো করলে অজু ভাঙবে না কিংবা অজুর কোনো ক্ষতি হবে না। অজুতে মাকরুহ বিষয়গুলো এখানে উল্লেখ করা হলো—

১. অজুতে পানির অপব্যয় করা। (ইবনে মাজাহ, হাদিস : ৪১৯, আবু দাউদ, হাদিস : ৮৮)
২. পানি ব্যবহারে অত্যধিক কার্পণ্য করা। (আবু দাউদ, হাদিস : ১১৬, মুসলিম, হাদিস : ৩৫৪)
৩. মুখের ওপর জোরে পানি মারা। (কানজুল উম্মাল : ৯/৪৭৩)
৪. দুনিয়াবি কথা বলা। (ফাতাওয়ায়ে আলমগিরি : ১/৯৮)
৫. অন্যের সাহায্য নেওয়া। (মুসনাদে আবি ইয়ালা : ১/২০০) তবে অপারগ অবস্থায় অন্যের সাহায্য নেওয়ায় কোনো সমস্যা নেই। (আল মুজামুল কাবির, হাদিস : ৩৮৫৭)
৬. তিনবার মাথা মাসেহ করা এবং প্রতিবার পানিতে হাত ভেজানো। (আবু দাউদ, হাদিস : ১১৬, কানজুল উম্মাল, হাদিস : ২৭০২৪)

শেয়ার করুন


সর্বস্বত্ব সংরক্ষিত © ১৯৮৬ - ২০২২ মাসিক পাথেয় (রেজিঃ ডি.এ. ৬৭৫) | patheo24.com
Design & Developed BY ThemesBazar.Com