আফগানিস্তানে বিশ্ববিদ্যালয় খোলা, ক্লাসে মেয়েদের উপস্থিতি

আফগানিস্তানে বিশ্ববিদ্যালয় খোলা, ক্লাসে মেয়েদের উপস্থিতি

পাথেয় টোয়েন্টিফোর ডটকম : তালেবান কর্তৃক আফগানিস্তানের ক্ষমতা দখলের পর থেকেই দেশটির বিশ্ববিদ্যালয়গুলো বন্ধ ছিলো। সেগুলো খুললেও মেয়েরা ক্লাস করতে পারবে কিনা তা নিয়ে প্রশ্ন ছিলো সবার মনে। অবশেষে খুলে গেল আফগানিস্তানের বিশ্ববিদ্যালয়। মেয়ে শিক্ষার্থীরাও করছেন ক্লাস। এক প্রতিবেদনে এ তথ্য জানিয়েছে এনডিটিভি।

প্রতিবেদনে বলা হয়, বুধবার (২ ফেব্রুয়ারি) থেকে খুলে যাওয়া বিশ্ববিদ্যালয় ক্যাম্পাসগুলোতে ছাত্রদের সঙ্গে ক্লাসে ফিরেছেন ছাত্রীরাও। তবে ছেলে শিক্ষার্থীদের থেকে তাদের শারীরিকভাবে দূরত্ব পালনের নির্দেশনা দেওয়া হয়েছে।

মেয়েদের বিশ্ববিদ্যালয়ে ফেরার প্রসঙ্গে তালেবান সরকার কোনো বিবৃতি না দিলেও বার্তা সংস্থা রয়টার্সকে আফগান শিক্ষা কর্তৃপক্ষের কর্মকর্তা বিষয়টি জানিয়েছেন। তিনি বলেন, মেয়ে শিক্ষার্থীদের কিছু নির্দেশনা দিয়ে বিশ্ববিদ্যালয়ে ক্লাস করার অনুমতি দেওয়া হয়েছে। পুরুষ ছাত্রদের থেকে তাদের শারীরিকভাবে দূরত্ব পালন করতে হবে।

১৯৯৬ থেকে ২০০১ সালের শাসনামলের সময় নারী ও মেয়েদের শিক্ষা নিষিদ্ধ করেছিল তালেবান। মার্কিন যুক্তরাষ্ট্রসহ ন্যাটো সেনা প্রত্যাহারের পর গত বছরের ১৫ আগস্ট ক্ষমতায় এসে নিজেদের পুরোনো সেই নীতি বদলের কথা জানিয়েছে তারা। তবে তালেবানের এই পরিকল্পনা এখনও অস্পষ্ট এবং দেশটির অনেক প্রদেশে উচ্চ মাধ্যমিক বিদ্যালয়ে মেয়েদের ফেরার অনুমিত দেওয়া হয়নি।

আফগানিস্তানের বেসরকারি কিছু বিশ্ববিদ্যালয় পুনরায় খুলে দেওয়া হলেও অনেক ক্ষেত্রে মেয়ে শিক্ষার্থীরা ক্লাসে ফিরতে পারেনি।

তালেবান বিদেশি সহায়তা এবং দেশের বাইরে থাকা সম্পদের ওপর থেকে নিষেধাজ্ঞা প্রত্যাহার চাওয়ায় আন্তর্জাতিক সম্প্রদায়, নারী ও মেয়েদের শিক্ষার অধিকার ফিরিয়ে দেওয়ার শর্ত জুড়ে দিয়েছে।

বিশ্ববিদ্যালয়ে মেয়েদের ক্লাস করা প্রসঙ্গে মঙ্গলবার এক টুইট বার্তায় আফগানিস্তানে নিযুক্ত জাতিসংঘ মিশন বলছে, ছেলে এবং মেয়ে শিক্ষার্থীদের জন্য সরকারি বিশ্ববিদ্যালয় পুনরায় খুলে দেওয়ার ঘোষণাকে স্বাগত জানায় জাতিসংঘ। এটি এত গুরুত্বপূর্ণ যে, প্রত্যেক তরুণ মানুষেরই শিক্ষার সমান অধিকার রয়েছে।

নানগরহার বিশ্ববিদ্যালয়ের প্রধান খলিল আহমাদ বিহসুদওয়াল বলেন, প্রতিষ্ঠানের ছেলে এবং মেয়ে শিক্ষার্থীরা আলাদা ক্লাসে অংশ নেবে। এই চর্চা ইতোমধ্যে অনেক প্রদেশে চালু রয়েছে।

বুধবার শুধু দেশটির উষ্ণতম প্রদেশের সব বিশ্ববিদ্যালয় খুলে দেওয়া হয়েছে। দ্বিতীয় ধাপে আগামী ২৬ ফেব্রুয়ারি থেকে রাজধানী কাবুলসহ শীতপ্রবণ অঞ্চলের সব বিশ্ববিদ্যালয় পুনরায় চালুর সিদ্ধান্ত নেওয়া হয়েছে।

Related Articles

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *