৩০শে নভেম্বর, ২০২১ খ্রিস্টাব্দ , ১৫ই অগ্রহায়ণ, ১৪২৮ বঙ্গাব্দ , ২৪শে রবিউস সানি, ১৪৪৩ হিজরি

ইন্দোনেশিয়ায় সুনামিতে নিহতদের প্রতি আল্লামা মাসঊদের শোক

আল্লামা ফরীদ উদ্দীন মাসঊদ, বাংলাদেশ জমিয়তুল উলামার চেয়ারম্যান ও ঐতিহাসিক শোলাকিয়ার গ্র্যান্ড ইমাম

ইন্দোনেশিয়ায় সুনামিতে নিহতদের প্রতি আল্লামা মাসঊদের শোক

পাথেয় রিপোর্ট : ভয়াবহ সুনামিতে ইন্দোনেশিয়ায় এখন পর্যন্ত ৪০০ জনের মৃত্যু হওয়ায় বাংলাদেশ জমিয়তুল উলামার চেয়ারম্যান ও ঐতিহাসিক শোলাকিয়ার গ্র্যান্ড ইমাম শাইখুল হাদিস আল্লামা ফরীদ উদ্দীন মাসঊদ বলেন, প্রাকৃতিক দুর্যোগ সুনামিতে ইন্দোনেশিয়ার সাধারণ নিহত জনগণের প্রতি গভীর শোক জানাই। নিহতদের পরিবারের প্রতি জানাই গভীর সমবেদনা। আহতদের দ্রুত সুস্থতার জন্যও আল্লাহ রাব্বুল আলামিনের কাছে প্রার্থনা করছি।

সব বিপদে বান্দাকে আল্লাহর দিকে ফিরে আসতে হয় জানিয়ে ফরীদ উদ্দীন মাসঊদ বলেন, ভালোমন্দ আল্লাহর পক্ষ থেকেই হয়ে থাকে। প্রাকৃতিক দুর্যোগ মোকাবেলার প্রধান অস্ত্র হলো মহান আল্লাহর দিকে বান্দাকে ফিরে আসা। বান্দা যদি আল্লাহর হয়ে যায় বিপদেও বান্দার কষ্ট হবে না। সুখ অনুভূত হবে।

ইন্দোনেশিয়ায় অসংখ্য মানুষের হতাহতের জন্য সবাই দুআ করার আহ্বান জানিয়ে আল্লামা মাসঊদ বলেন, আমরা সবাই যার যার জায়গা থেকে সুনামিতে নিহতদের জন্য দুআ করবো। ইকরার প্রত্যেকটি শাখা, জাতীয় বেফাকের প্রত্যেকটা প্রতিষ্ঠানে আনুষ্ঠানিকভাবে তাদের জন্য দুআর ব্যবস্থা করতে হবে।

মঙ্গলবার দুপুরে বাংলাদেশ জমিয়তুল উলামার কেন্দ্রীয় প্রচার সম্পাদক মাওলানা মাসউদুল কাদির স্বাক্ষরিত গণমাধ্যমে পাঠানো এক বিবৃতিতে আল্লামা মাসঊদ এসব কথা বলেন।

বিশ্বে বিত্তশালীদের ইন্দোনেশিয়ায় দুর্যোগ কবলিতদের পাশ দাঁড়ানোর আহ্বান জানিয়ে আল্লামা মাসঊদ বলেন, কুরআনে আল্লাহ তাআলা বলেছেন, তুমি দয়া কর আল্লাহ তাআলা তোমাকে দয়া করবেন। সমগ্র বিশ্বের বিত্তশালীদের ইন্দোনেশিয়ায় সুনামিতে হতাহতদের পাশে দাঁড়ানো উচিত। ভয়াবহ এই দুর্যোগ থেকে মানুষকে উদ্ধারে জাতিসংঘ, ওআইসিকে এগিয়ে আসতে হবে।

প্রসঙ্গত, ২২ ডিসেম্বর শনিবার উপকূলীয় শহর সুমাত্রা এবং জাভায় পর পর দুটি ঢেউ আঘাত হানে। প্রথম ঢেউ অতটা শক্তিশালী না হলেও দ্বিতীয় ঢেউটি ছিল ভয়াবহ। আনাক ক্রাকাতাও আগ্নেয়গিরির অগ্ন্যুৎপাতের ফলে সাগরতলে ভূমিধসের কারণেই এই সুনামির উৎপত্তি হয়েছে। এর সঙ্গে পূর্ণিমার প্রভাব যুক্ত হওয়ায় বিপুল শক্তি নিয়ে সৈকতে আছড়ে পড়েছে সুনামির ঢেউ। নতুন করে আবারও সুনামির আশঙ্কায় আনাক ক্রাকাতাও আগ্নেয়গিরির কাছাকাছি উপকূলীয় এলাকার বাসিন্দাদের বীচের কাছ থেকে দূরে থাকার পরামর্শ দেয়া হয়েছে। ২৩ ডিসেম্বর রোববার আবারও আনাক ক্রাকাতাও আগ্নেয়গিরিতে অগ্ন্যুৎপাত হয়। একটি চার্টার বিমান থেকে সুমাত্রা এবং জাভার মধ্যবর্তী স্থানে অবস্থিত সুন্দা স্ট্রেইট এলাকায় অগ্ন্যুৎপাতের ভিডিও ধারণ করা হয়। চারদিকে কালো ধোঁয়া ছড়িয়ে পড়তে দেখা গেছে।

সম্পাদনা : মাসউদুল কাদির

শেয়ার করুন


সর্বস্বত্ব সংরক্ষিত © ১৯৮৬ - ২০২১ মাসিক পাথেয় (রেজিঃ ডি.এ. ৬৭৫) | patheo24.com
Design & Developed BY ThemesBazar.Com