২৫শে জুন, ২০২২ খ্রিস্টাব্দ , ১১ই আষাঢ়, ১৪২৯ বঙ্গাব্দ , ২৪শে জিলকদ, ১৪৪৩ হিজরি

ইভিএম ব্যবহার বাতিল করে পাকিস্তানের পার্লামেন্টে বিল পাস

পাথেয় টোয়েন্টিফোর ডটকম : জাতীয় নির্বাচনে ইলেকট্রনিক ভোটিং মেশিনের (ইভিএম) ব্যবহার বাতিল করে পাকিস্তানের জাতীয় পরিষদে একটি বিল পাস হয়েছে। একই সঙ্গে প্রবাসী পাকিস্তানিদের অনলাইনে ভোট দেওয়ার ব্যবস্থাও বাতিল করা হয়েছে। গত বৃহস্পতিবার (২৬ মে) পাকিস্তানি পার্লামেন্টের নিম্নকক্ষে এই বিল পাস হয়। খবর ডনের।

এদিন নির্বাচন (সংশোধন) বিল-২০২২ জাতীয় পরিষদে উত্থাপন করেন পাকিস্তানের সংসদীয় বিষয়ক মন্ত্রী মুর্তজা জাভেদ আব্বাসি। পরে তা সংখ্যাগরিষ্ঠ ভোটে পাস হয়। কেবল গ্র্যান্ড ডেমোক্রেটিক অ্যালায়েন্সের সদস্যরা এর বিরোধিতা করেছিলেন। অধিবেশনে পাকিস্তানি প্রধানমন্ত্রী শাহবাজ শরিফও উপস্থিত ছিলেন।

নির্বাচনী আইনে সংশোধনের মাধ্যমে জাতীয় নির্বাচনে ইভিএম ব্যবহার ও প্রবাসী পাকিস্তানিদের আই-ভোটিংয়ের মতো ইমরান খানের সরকারের চালু করা নানা বিষয় বাদ দেওয়া হয়েছে।

বিল পাসের আগে সেটি বিভিন্ন স্ট্যান্ডিং কমিটিকে পাশ কাটিয়ে সরাসরি পার্লামেন্টের উচ্চকক্ষ সিনেটে পাঠানোর একটি প্রস্তাব পেশ করেন আব্বাসি। তার এই প্রস্তাবটিও সংখ্যাগরিষ্ঠ ভোটে পাস হয়। নির্বাচন (সংশোধন) বিল-২০২২ শুক্রবার সিনেটে পাঠানোর কথা রয়েছে।

এদিকে, জাতীয় পরিষদে পাস হওয়া বিলে প্রবাসীদের প্রযুক্তির মাধ্যমে ভোটদানের সুযোগ ও পরবর্তী জাতীয় নির্বাচনগুলোতে ইভিএম ব্যবহার বাতিলের কঠোর সমালোচনা করেছে পাকিস্তান তেহরিক-ই-ইনসাফ (পিটিআই)। দলটির ভাইস চেয়ারম্যান শাহ মেহমুদ কোরেশি বলেছেন, এর মাধ্যমে প্রবাসী পাকিস্তানিদের ভোটাধিকার থেকে বঞ্চিত করা হয়েছে।

এক টুইটে এ পিটিআই নেতা বলেন, পিটিআই সরকার ৯০ লাখ প্রবাসী পাকিস্তানিকে ভোটাধিকার দিয়েছিল। আজ এই চোর ও দুর্বৃত্তদের দল তা কেড়ে নিয়েছে।

তবে প্রবাসীদের ভোটাধিকার থেকে বঞ্চিত করার অভিযোগ মিথ্যা বলে মন্তব্য করেছেন পাকিস্তানের প্রবাসী ও মানবসম্পদ উন্নয়নমন্ত্রী সাজিদ হুসাইন তুরি। তার বক্তব্য, আমরা প্রবাসীদের জন্য আরও ভালো কিছু করতে চলেছি। প্রবাসী পাকিস্তানিদের জন্য জাতীয় পরিষদে বিশেষ আসন সৃষ্টির পরিকল্পনা রয়েছে বলেও জানান এ মন্ত্রী।

শেয়ার করুন


সর্বস্বত্ব সংরক্ষিত © ১৯৮৬ - ২০২২ মাসিক পাথেয় (রেজিঃ ডি.এ. ৬৭৫) | patheo24.com
Design & Developed BY ThemesBazar.Com