ইমরান খান ‘চার থেকে পাঁচ দিন’ এনএবির হেফাজতে থাকতে পারেন

ইমরান খান ‘চার থেকে পাঁচ দিন’ এনএবির হেফাজতে থাকতে পারেন

পাথেয় টোয়েন্টিফোর ডটকম : পাকিস্তানের সাবেক প্রধানমন্ত্রী ইমরান খান চার থেকে পাঁচ দিন দেশটির ন্যাশনাল অ্যাকাউন্টিবিলিটি ব্যুরোর (এনএবি) হেফাজতে থাকতে পারেন। এনএবির একটি সূত্র গতকাল মঙ্গলবার ডনকে এ তথ্য জানিয়েছে।

গতকাল দেশটির রাজধানী ইসলামাবাদের হাইকোর্ট চত্বর থেকে তেহরিক-ই-ইনসাফ (পিটিআই) দলের প্রধান ইমরান খানকে গ্রেপ্তার করা হয়। পরে জানানো হয়, দুর্নীতির অভিযোগ তাঁকে এনএবি গ্রেপ্তার করেছে।

আইন অনুযায়ী, সর্বোচ্চসংখ্যক দিন ইমরান খানের রিমান্ড চেয়ে আদালতে আবেদন করেছে এনএবি।

পাকিস্তানের সাবেক প্রধানমন্ত্রী ও পাকিস্তান তেহরিক-ই-ইনসাফের (পিটিআই) চেয়ারম্যান ইমরান খান
এনএবির একটি সূত্র ডনকে জানিয়েছে, ইমরান খানকে আজ বুধবার দুর্নীতি দমন আদালতে হাজির করা হবে।

এনএবি সূত্রটির ভাষ্য, ‘আমরা তাঁকে (ইমরান খান) চার থেকে পাঁচ দিন হেফাজতে রাখার জন্য যথাসাধ্য চেষ্টা করব।’

পাকিস্তানের ন্যাশনাল অ্যাকাউন্টিবিলিটি অর্ডিন্যান্স, ১৯৯৯-এর সংশোধনী অনুযায়ী, কোনো আসামির ক্ষেত্রে সর্বোচ্চ ১৪ দিনের রিমান্ড মঞ্জুর করতে পারবেন আদালত। আগে তা ছিল সর্বোচ্চ ৯০ দিন।

এনএবির সূত্র বলেছে, ‘আমরা আদালতে সর্বোচ্চ ১৪ দিনের রিমান্ড চাইব।’

আদালত চার থেকে পাঁচ দিনের রিমান্ড মঞ্জুর করবেন বলে আশা করছে এনএবি।

বার্তা সংস্থা রয়টার্সের প্রতিবেদনে বলা হয়, ইমরান খানকে গ্রেপ্তারের পরই পাকিস্তানজুড়ে বিক্ষোভ শুরু হয়। বিভিন্ন স্থানে নিরাপত্তা বাহিনীর সঙ্গে তাঁর দল পিটিআইয়ের কর্মী-সমর্থকদের সংঘর্ষের ঘটনা ঘটে। কোয়েটায় পুলিশের সঙ্গে সংঘর্ষে এক বিক্ষোভকারী নিহত হয়েছেন। লাহোরে সেনানিবাসে হামলা চালান ইমরান খানের সমর্থকেরা। পরিস্থিতি সামাল দিতে ইসলামাবাদ, পেশোয়ারসহ বিভিন্ন শহরে ১৪৪ ধারা জারি করা হয়েছে।

ইমরান খানকে গ্রেপ্তারের প্রতিবাদে রাস্তা অবরোধ করে বিক্ষোভ করেন তাঁর সমর্থকেরা। গতকাল দেশটির করাচি শহরে
গত বছর ইমরান খানের পিটিআইয়ের নেতৃত্বাধীন জোটে ফাটল ধরে। এরপর আস্থা ভোটে হেরে ক্ষমতা ছাড়তে বাধ্য হন তিনি। এর পর থেকে ইমরান খানের নামে একের পর এক মামলা হচ্ছিল। তাঁর বিরুদ্ধে গ্রেপ্তারি পরোয়ানাও জারি হয়।

Related Articles

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *