২৮শে মে, ২০২২ খ্রিস্টাব্দ , ১৪ই জ্যৈষ্ঠ, ১৪২৯ বঙ্গাব্দ , ২৬শে শাওয়াল, ১৪৪৩ হিজরি

‘ইসরায়েলের সাথে সম্পর্ক গড়া দেশগুলোর লজ্জিত হওয়া উচিত’

পাথেয় টোয়েন্টিফোর ডটকম : অধিকৃত পশ্চিম তীরের জেনিনে ইসরায়েলি বাহিনীর গুলিতে ফিলিস্তিনি সাংবাদিক শিরিন আবু আকলেহর নিহত হওয়ার ঘটনায় তীব্র নিন্দা জানিয়েছে লেবাবনের সামরিক রাজনৈতিক সংগঠন হিজবুল্লাহ। দলটির সেক্রেটারি জেনারেল হাসান নাসরুল্লাহ বলেছেন, যারা দখলদার ইসরায়েলের সাথে সম্পর্ক স্বাভাবিক করতে চায়, জঘন্য এ ঘটনায় তাদের লজ্জিত হওয়া উচিত। এই ইসরায়েলিরা হত্যা-জুলুমের ক্ষেত্রে মুসলিম-খ্রিস্টানের মধ্যে কোনো পার্থক্য করে না।

লেবাননের প্রতিরোধ আন্দোলনের সেক্রেটারি হাসান নাসরুল্লাহ গত শুক্রবার পূর্ব লেবাননের একটি টেলিভিশন ভাষণে এই মন্তব্য করেন। তিনি বলেন, শিরিন আবু আকলেহ বহু বছর ধরে ফিলিস্তিনি জনগণের বিরুদ্ধে ইসরায়েলি অপরাধের সাক্ষী ছিলেন। তাকে গুলি করে হত্যা করেছে ইসরায়েলি সেনারা। এই অপরাধে লজ্জিত হওয়া উচিত তাদের, যারা ইহুদিবাদী শাসনের সাথে সম্পর্ক স্বাভাবিক করার আহ্বান জানিয়েছিল। যারা দেশগুলোকে বোঝানোর চেষ্টা করেছিল, ইসরায়েলের অস্তিত্ব স্বাভাবিক এবং তাদের সহাবস্থান হওয়া উচিত।

হিজবুল্লাহর শীর্ষ নেতা এ সময় আরো বলেন, আবু আকলেহের শাহাদাতের পিছনে শক্তিশালী বার্তাটি হল, তিনি একজন খ্রিস্টান হওয়া সত্ত্বেও তাকে হত্যা করা হয়েছে। অর্থাৎ ইসরায়েলি সরকার হত্যা-জুলুমের ক্ষেত্রে ফিলিস্তিনের একজন মুসলিম ও একজন খ্রিস্টানের মধ্যে কোনো পার্থক্য করে না।

গত শুক্রবার আবু আকলেহের অন্ত্যেষ্টিক্রিয়ায় আল-কুদস এবং অধিকৃত অঞ্চল থেকে হাজার হাজার মুসলিম ও খ্রিস্টান ফিলিস্তিনি এই সাংবাদিকের প্রতি শ্রদ্ধা জানাতে এসেছিলেন। সেখানেও হামলা চালাতে দ্বিধা করেনি দখলদার ইসরায়েলি বাহিনী।

উল্লেখ্য, আবু আকলেহ মুসলিম বিশ্বের দর্শকদের কাছে খুবই সম্মানিত ও প্রিয় ছিলেন। বিশেষ করে দুই দশকেরও বেশি সময় ধরে ইসরায়েলি অপরাধ ও দখলদারিত্বের নিউজ কভার করার ক্ষেত্রে অগ্রণী ভূমিকা রাখায় তিনি ফিলিস্তিনিদের কাছে খুবই প্রিয় একজন ব্যক্তিত্ব ছিলেন।

শেয়ার করুন


সর্বস্বত্ব সংরক্ষিত © ১৯৮৬ - ২০২২ মাসিক পাথেয় (রেজিঃ ডি.এ. ৬৭৫) | patheo24.com
Design & Developed BY ThemesBazar.Com