৩০শে মে, ২০২৩ খ্রিস্টাব্দ , ১৬ই জ্যৈষ্ঠ, ১৪৩০ বঙ্গাব্দ , ৯ই জিলকদ, ১৪৪৪ হিজরি

একটি আমের দাম ২৪ হাজার টাকা

পাথেয় টোয়েন্টিফোর ডটকম : আম খেতে পছন্দ করেন না, এমন মানুষ পাওয়া কঠিন। সহজলভ্য ফলটির দামও থাকে হাতের নাগালে। তবে যদি বলা হয় একটি আমের দাম ২৪ হাজার টাকার বেশি (২৩০ ডলার), তাহলে অবাক হতেই হবে। জাপানের এক ব্যক্তি এমন দামেই তাঁর চাষ করা আম বিক্রি করছেন। দেদার বিক্রিও হচ্ছে সেগুলো।

গালফ নিউজের প্রতিবেদনে বলা হয়, ওই কৃষকের নাম হিরোউকি নাকাগাওয়া। বাড়ি জাপানের হোক্কাইডো দ্বীপে। সেখানেই ২০১১ সাল থেকে ওই আম চাষ করছেন তিনি, তবে এক বিচিত্র কৌশলে।

কৌশলটি জানতে যেতে হবে কিছুটা অতীতে। নাকাগাওয়া তখন আম চাষে নামেননি, তখন করতেন জ্বালানি তেলের ব্যবসা। তবে তেলের দাম বাড়তে থাকায় অন্য পেশায় নামার কথা ভাবছিলেন। এমন সময় মিয়াজাকি অঞ্চলের এক আমচাষির সঙ্গে পরিচয় হয় তাঁর। ওই ব্যক্তি দাবি করেন, শীতের মধ্যেও আম ফলানো সম্ভব। তাঁর নির্দেশনায় গ্রিনহাউস পদ্ধতিতে আম চাষ শুরু করেন নাকাগাওয়া।

আম চাষে হোক্কাইডো দ্বীপের দুটি প্রাকৃতিক সম্পদ ব্যবহার করছেন নাকাগাওয়া। একটি তুষার, অপরটি গরম পানি। শীতকালে সংরক্ষণ করে রাখা তুষার গ্রীষ্মকালে গ্রিনহাউস ঠান্ডা করতে কাজে লাগান তিনি। আর শীতকালে গ্রিনহাউস গরম করতে ব্যবহার করেন প্রাকৃতিক গরম পানি। এভাবে প্রতি মৌসুমে প্রায় পাঁচ হাজার আম উৎপাদন করেন নাকাগাওয়া।

এ পদ্ধতিতে আমগুলো শীতকালে পাকে। এ সময় পোকামাকড়ের উপদ্রব থাকে না। তাই কীটনাশকেরও প্রয়োজন পড়ে না। আর হোক্কাইডোর বাতাসের কম আর্দ্রতার কারণে আমের গায়ে তেমন একটা দাগ পড়ে না। ফলে তেমন একটা রাসায়নিক ব্যবহার করতে হয় না। নাকাগাওয়া বলেন, ‘হোক্কাইডোতে আমি প্রকৃতির বাইরে গিয়ে প্রাকৃতিক কিছু করতে চেয়েছিলাম।’

নাকাগাওয়ার বয়স এখন ৬২ বছর। আম চাষের উদ্যোগের নাম দিয়েছেন নোরাওয়ার্ক জাপান। এই আমের স্বত্বও তিনি নিজের করে নিয়েছেন। আর আমটির নাম দিয়েছেন ‘তুষারের মধ্যে সূর্য’।

শেয়ার করুন


সর্বস্বত্ব সংরক্ষিত © ১৯৮৬ - ২০২৩ মাসিক পাথেয় (রেজিঃ ডি.এ. ৬৭৫) | patheo24.com
Design & Developed BY ThemesBazar.Com