২৯শে সেপ্টেম্বর, ২০২২ খ্রিস্টাব্দ , ১৪ই আশ্বিন, ১৪২৯ বঙ্গাব্দ , ২রা রবিউল আউয়াল, ১৪৪৪ হিজরি

এবার আশুগঞ্জে বাড়লো ধান-চালের দাম

পাথেয় টোয়েন্টিফোর ডটকম : ব্রাহ্মণবাড়িয়ার আশুগঞ্জে বেড়েছে ধান-চালের দাম। গত এক সপ্তাহের ব্যবধানে ধানের মণপ্রতি ১০০ টাকা আর চালের বস্তা (৫০ কেজি) প্রতি ১৫০ টাকা বেড়েছে। জ্বালানি তেলের মূল্যবৃদ্ধির প্রভাবেই ধান-চালের দাম বাড়ার কথা বলছেন ব্যবসায়ীরা। বাজার আরও অস্থিতিশীল হওয়ারও আশঙ্কাও করছেন তারা।

খোঁজ নিয়ে জানা যায়, আশুগঞ্জ মোকামে কিশোরগঞ্জ, হবিগঞ্জ, সুনামগঞ্জ ও সিলেটসহ অন্তত সাত জেলা থেকে অধিকাংশ ব্যাপারীরা ইঞ্জিন চালিত নৌকা ও ট্রলারযোগে ধান নিয়ে আসেন। এছাড়া মোকাম থেকে চালকল পর্যন্ত ধান পরিবহনে ব্যবহৃত হয় ট্রাক। সম্প্রতি দেশে জ্বালানি তেলের দাম বাড়ায় এসব যানের ভাড়াও বাড়ানো হয়েছে। ফলে ধান থেকে চাল তৈরিতে উৎপাদন খরচ বেড়েছে। আর সেই খরচ সমন্বয় করতে গিয়ে বাড়ানো হয়েছে ধান-চালের দর।

বর্তমানে প্রতিদিন মোকামে ৫০-৬০ হাজার মণ ধান বেচাকেনা হচ্ছে। এসব ধান যায় জেলার চালকলগুলোতে। আর এসব চালকলগুলো থেকে ঢাকা, চট্টগ্রাম ও সিলেট বিভাগে চাল সরবরাহ করা হয়। বর্তমানে ব্রাহ্মণবাড়িয়ায় বিআর-২৮ জাতের চাল আগে দাম ছিল প্রতি বস্তা (৫০ কেজি) পাইকারি ২৪৫০টাকা, তা বেড়ে বিক্রি হচ্ছে ২৬০০ টাকা এবং বিআর-২৯ চাল ছিল ২৪০০ টাকা তা বেড়ে বিক্রি হচ্ছে ২৫৫০ টাকায়।

এদিকে, গত ৬ আগস্ট জ্বালানি তেলের নতুন দর কার্যকর হওয়ার দিন থেকে ভাড়া বাড়ানোর দাবিতে ধর্মঘটের ডাক দেন আশুগঞ্জের ট্রাক মালিক-শ্রমিকরা। টানা তিন দিন মোকামে ধান বেচাকেনা বন্ধ থাকে। এতে ধান সংকটে পড়ে ব্রাহ্মণবাড়িয়ার প্রায় আড়াইশ চালকল। তাদের ধর্মঘটে বেকায়দায় পড়ে বাধ্য হয়েই ট্রাক মালিক-শ্রমিকদের দাবি মেনে মোকাম থেকে ধান পরিবহনে এলাকা ভেদে বস্তা প্রতি ভাড়া বাড়ানো হয় দেড় থেকে দুই টাকা পর্যন্ত।

এরপর পরই আশুগঞ্জ মোকামে বিভিন্ন জায়গা থাকে আসা ধানবোঝাই নৌকার ভাড়াও বস্তা প্রতি ১০-২০ টাকা পর্যন্ত বাড়ানো হয়েছে। এর ফলে প্রভাব পড়েছে ধানের বাজারে। উপজেলার সরকার অটোরাইস মিলের ধান ব্যবসায়ী মেজবাহ উদ্দিন বলেন, ‘দাম যেভাবে বাড়ছে, তাতে বাজার আরও অস্থিতিশীল হয়ে উঠবে। খরচ বেড়ে যাওয়ায় অনেকটা নিরুপায় হয়েই চালের দাম বাড়িয়েছেন মিল মালিকরা।’

মো. ওবায়দুল্লাহ নামের এক চাল ব্যবসায়ী বলেন, ‘পরিবহন খরচ বাড়ায় স্বাভাবিকভাবেই চালের বাজারে প্রভাব পড়েছে। সব ধরনের ধান-চালের দাম বেড়েছে ১০০-১৫০ টাকা পর্যন্ত।’

আশুগঞ্জ উপজেলা অটোরাইস মিল মালিক সমিতির সদস্য হাসান ইমরান বলেন, ‘ট্রাক ধর্মঘটের কারণে ভাড়া বাড়ানোর সময়ই আমরা বলেছিলাম এর প্রভাব চালের বাজারে পড়বে। উৎপাদন খরচ বেড়েছে, তাই চালের দাম বাড়ানো ছাড়া বিকল্প পথ নেই। যদি জ্বালানি তেলের দাম কমে, তাহলে বাজার দর কমতে পারে। সামনে ধান-চালের বাজার আরও অস্থিতিশীল হয়ে উঠতে পারে।’

শেয়ার করুন


সর্বস্বত্ব সংরক্ষিত © ১৯৮৬ - ২০২২ মাসিক পাথেয় (রেজিঃ ডি.এ. ৬৭৫) | patheo24.com
Design & Developed BY ThemesBazar.Com