১০ই আগস্ট, ২০২২ খ্রিস্টাব্দ , ২৬শে শ্রাবণ, ১৪২৯ বঙ্গাব্দ , ১১ই মহর্‌রম, ১৪৪৪ হিজরি

কথা বলার সময় যে ভুলগুলো করবেন না

পাথেয় টোয়েন্টিফোর ডটকম : আমরা যখন কারও সঙ্গে কথা বলি তখন আমাদের শারীরিক বিভিন্ন ভঙ্গির দিকে খেয়াল করেন বাকিরা। আমাদের নানা ধরনের অঙ্গভঙ্গি আমাদের মানসিকতা, আত্মবিশ্বাস ও মনের ভাব প্রকাশের অন্যতম শক্তিশালী মাধ্যম। মুখে কথা না বলেও আমরা নানাভাবে যোগাযোগ করতে পারি। শরীরের ভাষা আমাদের ব্যক্তিত্ব প্রকাশেও ভূমিকা রাখে। তাই সঠিক শারীরিক ভাষা বা অঙ্গভঙ্গি শিখে নেওয়া জরুরি।

কথা বলার সঠিক ভঙ্গি, শারীরিক ভাষা, অঙ্গপ্রত্যঙ্গের নড়াচড়া, চোখের দৃষ্টি ও মুখের অভিব্যক্তি আপনার শক্তিশালী ব্যক্তিত্বের চাবিকাঠি হতে পারে। কেউ যখন আপনার সঙ্গে প্রথম সাক্ষাৎ করবেন, এই বিষয়গুলো আপনার সম্পর্কে তাকে ধারণা দেবে। এমন কিছু শারীরিক অঙ্গভঙ্গি রয়েছে, যেগুলো আপনার দুর্বল ব্যক্তিত্বের প্রকাশ করে। তাই কথা বলার সময় এই ভুলগুলো করা যাবে না-

হাত পেছনে রেখে ক্রস করে দাঁড়ানো

আপনি যখন কারও সঙ্গে কথা বলছেন তখন হাতদুটি পেছনে নিয়ে ক্রস করে দাঁড়াবেন না। এতে কিন্তু মনে হতে পারে যে আপনি যোগাযোগ থামিয়ে দেওয়ার চেষ্টা করছেন। এছাড়া এতে আরও বোঝা যায় আপনি অপর ব্যক্তির কথা বিশ্বাস করছেন না। শক্তভাবে হাত ধরে রাখার অর্থ হলো আপনি কিছু লুকাচ্ছেন। এছাড়াও এটি নার্ভাসনেস, রাগ, হতাশা ও আত্মবিশ্বাসের অভাব প্রকাশ করে।

মুখ স্পর্শ করা

কারও সঙ্গে কথা বলার সময় আপনার মুখ স্পর্শ করা থেকে বিরত থাকুন। কারণ এটি প্রকাশ করে যে আপনি ভীষণ নার্ভাস এবং উদ্বিগ্ন। এটি আপনার আত্মবিশ্বাসের অভাব প্রকাশ করে। আপনি কিছু নিয়ে চিন্তিত এবং অপর ব্যক্তির কথোপকথনে মনোযোগ দিতে পারছেন না, এটিও প্রকাশ করে। আপনি যদি কথা বলার সময় নিজের মুখ স্পর্শ করেন তবে সেটি বোঝায় যে আপনি আপনার সত্যিকারের আবেগ লুকিয়ে রাখছেন।

হ্যান্ড ক্ল্যাসিং

হ্যান্ড ক্ল্যাসিংয়ের অর্থ হলো কারও সঙ্গে আলাপ করা বা কথা বলার সময় নিজের হাতের আঙুল আঁকড়ে ধরে থাকা। এটি মূলত উদ্বেগ, নার্ভাস হওয়া, দ্বিধাগ্রস্ততা, চিন্তিত এবং আত্মবিশ্বাসের অভাব বোঝায়। এটি হতাশা, মানসিক চাপ ও উত্তেজনার লক্ষণও প্রকাশ করে। তাই কারও সঙ্গে কথা বলার সময় এই কাজ থেকে বিরত থাকুন।

আঙুল দ্বারা নির্দেশ করা

এমন অনেকেই আছেন যারা নির্দিষ্ট কিছু বোঝানোর জন্য আঙুলের ইশারায় কথা বলেন। এটি মূলত ওই ব্যক্তির অভদ্র এবং আক্রমণাত্মক ভঙ্গি প্রকাশ করে। ভদ্রতার পরিমাপে এই অঙ্গভঙ্গির স্থান নেই। এই স্বভাবকে শিষ্টাচারের অভাব হিসেবেই মনে করা হয়। তাই নির্দিষ্ট কিছু দেখানো বা বোঝানোর জন্য আঙুলের মাধ্যমে ইশারা করা বন্ধ করুন।

পা ক্রস করে দাঁড়ানো

কারও সঙ্গে কথা বলার সময় পা ক্রস করে দাঁড়ানো থেকে বিরত থাকুন। কারণ এভাবে দাঁড়িয়ে কথা বলার মানে হলো নিজের ওপর আস্থার অভাব। এটি আমাদের আত্মবিশ্বাস নষ্ট করার পাশাপাশি কথাবার্তার দুর্বলতাও প্রকাশ করে।

শেয়ার করুন


সর্বস্বত্ব সংরক্ষিত © ১৯৮৬ - ২০২২ মাসিক পাথেয় (রেজিঃ ডি.এ. ৬৭৫) | patheo24.com
Design & Developed BY ThemesBazar.Com