১৯শে জানুয়ারি, ২০২২ খ্রিস্টাব্দ , ৫ই মাঘ, ১৪২৮ বঙ্গাব্দ , ১৫ই জমাদিউস সানি, ১৪৪৩ হিজরি

কীভাবে আল্লাহ তাআলার সাথে সম্পর্ক স্থাপন করা যায়?

আল্লাহ তাআলার সাথে সম্পর্ক স্থাপনের উপায়

পাথেয় টোয়েন্টিফোর ডটকম : আল্লাহ তাআলার নৈকট্য অর্জনের মাধ্যমে আত্মার প্রশান্তি লাভ করা যায়। কিন্তু কীভাবে আল্লাহ তাআলার সাথে সম্পর্ক তৈরি করা যায়? আজকের লেখায় সেটাই জানবো এবং জানাবো ইনশাআল্লাহ।

কেন আল্লাহর সাথে সম্পর্ক স্থাপন করবো?

  • আল্লাহ তাআলার সাথে সম্পর্ক স্থাপন হলে তাঁর ভালবাসা অর্জন করা যায়।
  • আল্লাহ তাআলার নৈকট্য লাভ হলে বেশি বেশি তাঁর ইবাদাত করতে পারবেন।
  • যেকোনো কাজে, যেকোনো সময়, যেকারো সামনে আপনি আত্মবিশ্বাসী থাকবেন। দুনিয়ার কাউকে আপনি ভয় পাবেন না।
  • দুনিয়ার জীবনে অল্পতেই আপনি পরিতৃপ্তি এবং আনন্দ পাবেন।

যে গুণগুলো থাকা দরকার:

  • আল্লাহর নিকটবর্তী হওয়ার দৃঢ় অভিপ্রায়
  • ধৈর্য্য
  • দৃঢ়তা
  • আল্লাহর আদেশ ও নিষেধগুলো মানা

আল্লাহর নৈকট্য লাভের কিছু উপায় এবং তার ফায়দা

নিজকে সমর্পণ করা

আল্লাহর নৈকট্য অর্জন করা বান্দার অন্তর সকাল-সন্ধ্যায় আল্লাহ তাআলার স্মরণে কাটায়। এক মূহুর্তের জন্যও আল্লাহর স্মরণ সে গাফেল হয় না। সারাক্ষণ আল্লাহ তাআলাকে স্মরণ করা মাধ্যমে তার খাওয়া-দাওয়া, ঘুম-বিশ্রাম সব কিছু আল্লাহর জন্য হয়ে যায়। এক পর্যায়ে সে আল্লাহ তাআলার ভালোবসা, সন্তুষ্ট অর্জন করতে পারে।

দোয়া

আমরা ভুলে যাই যে আমাদের দিক নির্দেশনার জন্য আল্লাহ তাআলার সাহায্যের প্রয়োজন। আমরা দুনিয়াতে বিভিন্ন বিপদ-আপদের মধ্যে পড়ি, মনে করি আমরা আল্লাহর সাহায্য ছাড়া নিজেরাই এর সমাধান করতে পারবো। আসলে আল্লাহ তাআলার সাহায্য ছাড়া আমাদের কিছুই করা সম্ভব না। সব বিপদ-আপদের মালিক আল্লাহ তাআলা এবং এসব থেকে আমাদেরকে উদ্ধার করতে পারেন একমাত্র তিনিই। তাই আল্লাহর ইবাদাতের মাধ্যমে তাঁর কাছে সাহায্য চাইতে হবে। সরল পথে পরিচালিত করার জন্য আল্লাহর কাছে দোয়া করতে হবে।

মন্দ কাজ থেকে দূরে থাকা

নিজেক সব খারাপ কাজ থেকে মুক্ত রাখতে হবে। কারণ আল্লাহ তাআলা কোনো খারাপ কাজ পছন্দ করেন না, খারাপ কাজ থেকে নিজেকে দূরে রাখার মাধ্যমে আত্মাকে সংশোধন করতে হবে। এক্ষেত্র আপনার বন্ধুবান্ধব যদি আপনাকে বাধা দেয়, যারা আপনাকে বারবার খারাপ কাজে জড়াতে উদ্বুদ্ধ করছে, পাপ কাজে লিপ্ত করছে, তবে তার থেকে দূরে সরে যান। বিশ্বাস করুন, আপনার এসব বন্ধুরাই আপনার জীবনের বড় শত্রু।

আল্লাহ তাআলার প্রেমে পড়ুন

আপনি কিভাবে আল্লাহর নৈকট্য লাভ করবেন, যদি আপনি তাকে ভালোভাবে না জানেন? আল্লাহ সকল কিছুর স্রষ্টা। তার সম্পর্কে আপনার স্পষ্ট ধারনা থাকতে হবে। আপনাকে তাঁর সম্পর্কে আরও জানতে হবে। আপনাকে সৃষ্টিকর্তার প্রেমে পড়া শিখতে হবে। আল-ওয়াদুদ নাম দিয়ে শুরু করুন,যার অর্থ বন্ধুত্বপূর্ণ। আপনার জন্য আল্লাহর ভালবাসা নিঃশর্ত। তিনি কখনো আপনার কাছ থেকে বিনিময়ে কিছু চাইবেন না। তিনি আপনাকে ভালবাসেন এবং তাই তিনি আপনার ওপর তার রহমত অব্যাহত রাখেন। এমনকি যদি আপনি তাকে অমান্যও করে থাকেন।

জিকির

আল্লাহকে সব সময় স্মরণ করা দ্বারা খুব সহজেই তাঁর সাথে সম্পর্ক করা যায়। আপনি তাকে স্মরণ রাখতে পারেন জিকির এবং তাসবীহর (প্রশংসা) দ্বারা। আপনার গুনাহ মাফের জন্য প্রতিনিয়ত বলুন আস্তাগফিরুল্লাহ! বলুন আলহামদুলিল্লাহ, যার দ্বারা আল্লাহ আপনাকে আরও দান করবেন। আপনার চোখ মেলে বাইরের চার দিকে দেখুন এবং তাঁর সুন্দর সৃষ্টি সম্পর্কে বলুন সুবহান-আল্লাহ।

আল্লাহকে স্মরণ করার সবচেয়ে মার্জিত রূপ তাঁর সৃষ্টির দিকে তাকিয়ে তাকে স্মরণ করা। যখন আপনি গাড়িতে কিংবা হাঁটার মত কাজের মধ্যে থাকবেন তখন আপনি আল্লাহকে স্মরণ করতে পারেন। আল্লাহর গৌরবান্বিত ও মহিমান্বিত ইসলামিক ওয়াজ-নসিহত এবং ঈমানী বয়ান শুনুন। যারা আপনাকে আল্লাহর কথা স্মরণ করিয়ে দিচ্ছে, তাদের সাথে নিজেকে সম্পৃক্ত রাখুন।

নবীর সুন্নাত অনুসরণ করুন

আমাদের নবী সাল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়াসাল্লামের সুন্নত অনুসরণ করে আল্লাহর ভালবাসা অর্জন করা যায়। আমরা যখন আল্লাহর ভালবাসা লাভ করি, তখনই আমরা তাঁর নিকটবর্তী হই। রাসূলুল্লাহ সাল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়াসাল্লামের সকল সুন্নত অনুসরণের মাধ্যমে আপনি একজন মুমিন বান্দা হয়ে উঠবেন। আপনার মধ্যে ভাল আচরণ তথা ইসলামী আখলাকের প্রতিফলন হবে।

রাসূল সাল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়াসাল্লাম সম্পর্কে আরও জানুন এবং তাঁকে ভালবাসুন। সর্বোপরি, তিনি সমস্ত মানবজাতির জন্য রহমত। যা আল্লাহ তাআলা পবিত্র কুরআনে উল্লেখ করেছেন।

কুরআন তিলাওয়াত করুন

বেশী বেশী কুরআন তিলওয়াত করার দ্বারা যেমন ‍যিকিরের কাজ হয়ে যায় তেমনি কুরআন পাঠ করার সওয়াবও পাওয়া যায়। শুধুমাত্র কুরআন মাজীদ পাঠ বা মুখস্থ করার মধ্যে সীমাবদ্ধ থাকলে চলবে না। বরং এটি বুঝে পড়তে হবে। কুরআনে যা বলা হয়েছে তা করার জন্য আপনার যথাসাধ্য চেষ্টা করতে হবে। আল কুরআনের প্রতিটি আয়াতের অর্থ প্রতিফলিত করতে হবে নিজের জীবনে। কুরআনের মাধ্যমে আপনি আপনার দৈনন্দিন জীবনের জটিলতার উত্তর পাবেন।

শেয়ার করুন


সর্বস্বত্ব সংরক্ষিত © ১৯৮৬ - ২০২২ মাসিক পাথেয় (রেজিঃ ডি.এ. ৬৭৫) | patheo24.com
Design & Developed BY ThemesBazar.Com