২৭শে সেপ্টেম্বর, ২০২২ খ্রিস্টাব্দ , ১২ই আশ্বিন, ১৪২৯ বঙ্গাব্দ , ৩০শে সফর, ১৪৪৪ হিজরি

কুষ্টিয়ায় এক পরিবারের কাছে জিম্মি ৬শ’ মানুষ

পাথেয় টোয়েন্টিফোর ডটকম : কুষ্টিয়ার কুমারখালীতে এক পরিবারের কাছে জিম্মি হয়ে পড়েছে গ্রামের ৬শ’ মানুষ। রাস্তার জায়গা না দেয়ায় দুর্ভোগে পড়েছে উপজেলার কয়া ইউনিয়নের বানিয়াপাড়া গ্রামের মানুষ। বিষয়টি নিয়ে স্থানীয় জনপ্রতিনিধিরা একাধিকবার বৈঠকে বসলেও কোনো সুরাহা হয়নি।

এলাকাবাসী জানায়, বানিয়াপাড়া এলাকার ওই রাস্তা দিয়ে দিয়ে বছরের পর চলাচল করলে স্থানীয় মৃত আক্কাস মালিথার ছেলে ছলিম মালিথা রাস্তার জায়গা দিনে রাজি নন। রাস্তার অন্যপাশের বাসিন্দা রশকার রাস্তার জন্য দুই হাতের মতো নিজেদের জায়গা ছেড়ে দিলে ওই জায়গা দিয়ে কোনোমতে মানুষ চলাচল করছে। তবে কেউ অসুস্থ হলে বাড়ি থেকে বের হয়ে হাসপাতালে আসার মতো কোনো ব্যবস্থা নেই। কেউ মারা গেলে খাটিয়া পর্যন্ত বের করার জায়গা নেই। স্থানীয় জনপ্রতিনিধিরা এ নিয়ে একাধিক বার বৈঠক করলেও কোনো সমাধান হয়নি। উল্টো বাড়ির মালিক সন্ত্রাসী দিয়ে গ্রামবাসীদের হুমকি-ধমকি দেন

স্থানীয় ছিয়াত্তর বছর বয়সী জব্বার আলী বলেন, ‘চল্লিশ বছরের বেশি সময় এখানে আমরা বসবাস করি। সকলেই রাস্তার জায়গা ছেড়েছে শুধু ছলিম মালিথা জায়গা ছাড়েনি।’

এ বিষয়ে জায়গা ছেড়ে দেয়া রশকার বলেন, ‘আমি যে দুই হাত জায়গা ছেড়ে দিয়েছি সেই জায়গা দিয়ে এলাকার মানুষ চলাচল করছে। কিন্তু ছলিম মালিথা এক ইঞ্চি জমিও ছাড়েনি। তিনি আমার সমপরিমাণ জায়গা ছাড়লে এলাকার মানুষ স্বাভাবিকভাবে চলাচল করতে পারতেন।’

এ ব্যাপারে অভিযুক্ত ছলিম মালিথা বলেন, ‘এ ব্যাপারে কোর্টে মামলা চলমান রয়েছে। এটা কোর্টেই মীমাংসা হবে। এদিকে বিল্ডিং কোড অনুযায়ী সাড়ে ৩ কাঠা জমির উপর বাড়ি করতে হলে রাস্তার দিকে পাঁচফুট এবং অন্যপাশে তিনফুট জায়গা ছাড়ার নিয়ম রয়েছে।’

কয়া ইউনিয়ন পরিষদের (ইউপি) চেয়ারম্যান জিয়াউল ইসলাম স্বপন বলেন, ‘স্থানীয়ভাবে বিষয়টি সমাধানের চেষ্টা চলছে।’

শেয়ার করুন


সর্বস্বত্ব সংরক্ষিত © ১৯৮৬ - ২০২২ মাসিক পাথেয় (রেজিঃ ডি.এ. ৬৭৫) | patheo24.com
Design & Developed BY ThemesBazar.Com