৮ই ফেব্রুয়ারি, ২০২৩ খ্রিস্টাব্দ , ২৫শে মাঘ, ১৪২৯ বঙ্গাব্দ , ১৬ই রজব, ১৪৪৪ হিজরি

কোনো কথা বললেন না পুতিন

পাথেয় টোয়েন্টিফোর ডটকম : রাশিয়ার সেনাদের প্রতিহতে ইউক্রনকে ট্যাংক দেওংয়ার ঘোষণা দিয়েছে যুক্তরাষ্ট্র ও জার্মানি। এর আগে যুক্তরাজ্য কিয়েভকে এ ভারী যুদ্ধ যান দেওয়ার কথা বলেছিল।

ইউক্রেনকে দুই পরাশক্তির ট্যাংক দেওয়া নিয়ে বুধবার (২৫ জানুয়ারি) তীব্র প্রতিক্রিয়া জানায় রাশিয়ার পররাষ্ট্র মন্ত্রণালয় এবং জার্মানিতে নিযুক্ত রাশিয়ার রাষ্ট্রদূত।

তবে এ ট্যাংক নিয়ে কোনো কথা বলেননি রুশ প্রেসিডেন্ট ভ্লাদিমির পুতিন। বুধবার জার্মানি ইউক্রেনকে ট্যাংক দেওয়ার ঘোষণা দেওয়ার পর মস্কো স্টেট বিশ্ববিদ্যালয়ে যান তিনি।

সেখানে শিক্ষার্থীদের বিভিন্ন উপদেশ দেন এবং প্রশ্নের উত্তর দেন। ওই অনুষ্ঠানে উপস্থিত ছিলেন ভ্লাদিসাভ নামের এক শিক্ষার্থী। তিনি রাশিয়ার নিয়ন্ত্রিত লুহানেস্ক থেকে এসেছেন। প্রেসিডেন্ট পুতিনকে ভ্লাদিসাভ জানান, গত বছর ইউক্রেনের বিরুদ্ধে বিশেষ সামরিক অভিযানে অংশ নিয়েছিলেন। তিনি আরও জানান, তার ইচ্ছা রাশিয়ার গোয়েন্দা সংস্থায় (এফএসবিতে) যোগ দেবেন। পুতিন উত্তরে জানান, বিষয়টি অবশ্যই দেখবেন।

পুতিন ওই শিক্ষার্থীকে বলেন, ‘মানুষকে রক্ষার বিষয়টি তোমার মতো মানুষ সবচেয়ে বেশি বুঝতে পারে। সৃষ্টিকর্তাকে ধন্যবাদ তুমি বেঁচে আছো এবং ভালো আছো, তোমার মতো মানুষকে বিশেষ কাজ এবং এফএসবিতে প্রয়োজন।’

অপর এক শিক্ষার্থী জানান, তার মা একজন নার্স। এখন ইউক্রেনের বিরুদ্ধে চালানো বিশেষ সামরিক অভিযানে যোগ দিতে তিনি যুদ্ধক্ষেত্রে আছেন। বাড়িতে তার ৯,১০ এবং ১৬ বছর বয়সী তিন ছোট ভাই-বোন আছে। তাদের দেখাশুনা করছেন তিনি। পুতিন উত্তরে বলেন, ‘তোমার মাকে আমি স্যালুট জানাই।’

অবশ্য পুতিন পরোক্ষভাবে জার্মানির কথা উল্লেখ করেছেন। তিনি বলেছেন, জার্মানি যুক্তরাষ্ট্রের ‘সামরিক দখলদারিত্বের’ মধ্যে থেকে কাজ করছে। এর মাধ্যমে জার্মানিতে থাকা যুক্তরাষ্ট্রের সামরিক ঘাঁটির প্রতি ইঙ্গিত করেছেন তিনি। এছাড়া তিনি দাবি করেছেন, ইউরোপ এখন যুক্তরাষ্ট্রের বলয়ের মধ্যে রয়েছে।

পুতিন বলেছেন, ‘এখন যা হচ্ছে এগুলোর শিকড় অনেক গভীর। ইউরোপে সার্বভৌমত্ব ফিরবে। কিন্তু এখন যা মনে হচ্ছে, এটি সময় নেবে।’

সূত্র: রয়টার্স

শেয়ার করুন


সর্বস্বত্ব সংরক্ষিত © ১৯৮৬ - ২০২২ মাসিক পাথেয় (রেজিঃ ডি.এ. ৬৭৫) | patheo24.com
Design & Developed BY ThemesBazar.Com