২৫শে জুন, ২০২২ খ্রিস্টাব্দ , ১১ই আষাঢ়, ১৪২৯ বঙ্গাব্দ , ২৪শে জিলকদ, ১৪৪৩ হিজরি

খারকিভ শহরের কেন্দ্রে ক্ষেপণাস্ত্র হামলা

পাথেয় টোয়েন্টিফোর ডটকম : ইউক্রেনে সামরিক আগ্রাসনের ষষ্ঠ দিনে দেশটির দ্বিতীয় বৃহত্তম শহর খারকিভের কেন্দ্রস্থলে ক্ষেপণাস্ত্র হামলা চালিয়েছে রাশিয়া।

পূর্বাঞ্চলীয় শহর খারকিভে হামলা রাশিয়ার রাষ্ট্রীয় সন্ত্রাসবাদ বলে মন্তব্য করেছেন ইউক্রেনের প্রেসিডেন্ট ভলোদিমির জেলেনস্কি।

ভিডিও কনফারেন্সের মাধ্যমে ইউরোপীয় পার্লামেন্টে ভাষণ দেওয়ার সময়, খারকিভের কেন্দ্রস্থল ও প্রশাসনিক ভবনে রাশিয়ার হামলাকে যুদ্ধাপরাধ বলে উল্লেখ করেন তিনি।

ব্রিটিশ সংবাদমাধ্যম বিবিসির প্রতিবেদনে বলা হয়েছে, স্থানীয় সময় মঙ্গলবার (০১ মার্চ) সকালে শহরের প্রাণকেন্দ্র ফ্রিডম স্কয়ারে এ হামলা করা হয়। খারকিভের সরকারি কার্যালয়গুলো ক্ষেপণাস্ত্র হামলার লক্ষ্যবস্তু ছিল বলে ধারণা করা হচ্ছে।

ফ্রিডম স্কয়ারে রুশ ক্ষেপণাস্ত্র আঘাত করছে, এমন একটি ভিডিও টুইটারে পোস্ট করেছেন ইউক্রেনের পররাষ্ট্রমন্ত্রী।

ভিডিও ফুটেজে দেখা যায়, শহরের প্রাণকেন্দ্রে পুড়ে যাওয়া গাড়ি ও ধ্বংসস্তূপ পড়ে আছে। ভিডিওটির সত্যতা যাচাই করেছে বিবিসি।

ইউক্রেনের সামাজিক যোগাযোগমাধ্যম চ্যানেলগুলোতে ছড়িয়ে পড়া ভিডিওতে দেখা যায়, আঞ্চলিক প্রশাসনিক ভবনের সামনে একটি ক্ষেপণাস্ত্র আঘাত করেছে। প্রচণ্ড বিস্ফোরণের কারণে আশপাশের বিভিন্ন ভবনের জানালা ও গাড়ি উড়ে গেছে।

ইউক্রেনের দ্বিতীয় বৃহত্তম শহর খারকিভে ১৬ লাখ মানুষের বসবাস। কয়েক দিন ধরেই শহরটিতে ইউক্রেনীয় ও রুশ সেনাদের মধ্যে সংঘর্ষ ও বিমান হামলা চলছে।

রুশ বাহিনী আবাসিক এলাকা লক্ষ্য করে গ্র্যাড ক্ষেপণাস্ত্র ছুড়ছে বলে অভিযোগ করেছেন খারকিভের আঞ্চলিক প্রধান ওলে সিনেহুবভ। এটি ট্রাকে স্থাপিত এমন একধরনের ক্ষেপণাস্ত্র ব্যবস্থা, যা একসঙ্গে অনেকগুলো গোলা ছুড়তে সক্ষম।

অন্যদিকে ৪০ মাইল দীর্ঘ রাশিয়ার সামরিক কনভয় ইউক্রেনের রাজধানী কিয়েভের কাছাকাছি পৌঁছে গেছে। কিয়েভ এখন আতঙ্ক আর উদ্বেগের শহরে পরিণত হয়েছে।

কিয়েভ শহরের অনেকে আশঙ্কা করছেন রাশিয়ার সৈন্যরা মধ্যযুগীয় কায়দায় শহরটিকে অবরোধ করে রাখবেন। শহরের বাসিন্দাদের জন্য খাদ্য, পানি এবং জরুরি সরবরাহ বন্ধের আশঙ্কা করা হচ্ছে।

শেয়ার করুন


সর্বস্বত্ব সংরক্ষিত © ১৯৮৬ - ২০২২ মাসিক পাথেয় (রেজিঃ ডি.এ. ৬৭৫) | patheo24.com
Design & Developed BY ThemesBazar.Com