১৯শে মে, ২০২২ খ্রিস্টাব্দ , ৫ই জ্যৈষ্ঠ, ১৪২৯ বঙ্গাব্দ , ১৭ই শাওয়াল, ১৪৪৩ হিজরি

গণটিকাদান চলবে আরও দুদিন, বন্ধ হচ্ছে না প্রথম ডোজ

পাথেয় টোয়েন্টিফোর ডটকম : করোনাভাইরাসের গণটিকাদান কার্যক্রম আরও দুদিন চালানোর সিদ্ধান্ত হয়েছে। এছাড়া, বাদ পড়াদের স্থায়ী কেন্দ্র থেকে প্রথম ডোজ টিকা নেয়ার সুযোগও বন্ধ হচ্ছে না।

শনিবার (২৬ ফেব্রুয়ারি) স্বাস্থ্য অধিদপ্তরের অতিরিক্ত মহাপরিচালক এবং কোভিড-১৯ ভ্যাকসিন ডেপ্লয়মেন্ট কমিটির সভাপতি অধ্যাপক ডা. মীরজাদী সেব্রিনা ফ্লোরা এ সব তথ্য জানান।

দেশজুড়ে গণটিকাদানে এক কোটি ব্যক্তিকে প্রথম ডোজ দেওয়ার লক্ষ্য ঠিক করা হয়েছিল। তবে সকাল থেকে টিকাদান কেন্দ্রগুলোতে ব্যাপক ভিড়ের প্রেক্ষাপটে গণটিকাদান কর্মসূচির আওতায় প্রথম ডোজ দেওয়ার সময় আরও দুদিন বাড়ানোর এই সিদ্ধান্ত নেয়া হয়।

ডা. মীরজাদী সেব্রিনা ফ্লোরা বলেন, ‘এখনও প্রচুর ভিড় দেখা যাচ্ছে বিভিন্ন কেন্দ্রে। মানুষকে দীর্ঘসময় ধরে কেন্দ্রে অপেক্ষায় থাকতে হচ্ছে। সে কারণে আমরা আলোচনা করে সিদ্ধান্ত নিয়েছি, আগামী ২৮ ফেব্রুয়ারি পর্যন্ত সময় বাড়ানোর।’

সবাইকে টিকা নিয়ে নেওয়ার আহ্বান জানিয়ে ডা. সেব্রিনা ফ্লোরা বলেন, ‘এখন পর্যন্ত যারা করোনাভাইরাসের টিকা জন্য নিবন্ধন করেছেন বা করেননি, এমন সবাই এই সময়ের মধ্যে টিকার প্রথম ডোজ নিয়ে নেবেন। কেউ এসএমএসের জন্য অপেক্ষা করবেন না।’

তবে টিকার প্রথম ডোজ দেওয়া বন্ধ হচ্ছে না জানিয়ে তিনি বলেন, ‘কেউ বাদ পড়লে স্থায়ী কেন্দ্র থেকে করোনাভাইরাসের টিকার প্রথম ডোজ নিতে পারবেন।’

তিনি বলেন, ‘আমরা কখনও বলিনি, করোনাভাইরাসের প্রথম ডোজ দেওয়া বন্ধ হয়ে গেছে। এ কারণে বিষয়টি নিয়ে বিভ্রান্তির সুযোগ নেই। আমরা বলেছি, ২৬ তারিখের মধ্যে সবাইকে টিকার আওতায় নিয়ে আসা হবে। এরমধ্যে যৌক্তিক কারণে কেউ যদি টিকার প্রথম ডোজ নিতে না পারেন, তারা আমাদের যে স্থায়ী কেন্দ্রগুলো আছে যেখানে দ্বিতীয় ডোজ এবং বুস্টার ডোজ দেওয়া হচ্ছে সেখানে আসলে টিকা নিতে পারবেন।’

স্বাস্থ্য অধিদপ্তরের হিসাবে, শুক্রবার পর্যন্ত সারাদেশে ১০ কোটি ৯৫ লাখ ৮১ হাজারের বেশি মানুষ করোনাভাইরাসের টিকার প্রথম ডোজ নিয়েছেন। দ্বিতীয় ডোজ পেয়েছেন ৮ কোটি ১৯ লাখ এবং বুস্টার ডোজ নিয়েছেন ৩৫ লাখ ৫৯ হাজারের বেশি মানুষ।

শেয়ার করুন


সর্বস্বত্ব সংরক্ষিত © ১৯৮৬ - ২০২২ মাসিক পাথেয় (রেজিঃ ডি.এ. ৬৭৫) | patheo24.com
Design & Developed BY ThemesBazar.Com