৩০শে সেপ্টেম্বর, ২০২২ খ্রিস্টাব্দ , ১৫ই আশ্বিন, ১৪২৯ বঙ্গাব্দ , ৩রা রবিউল আউয়াল, ১৪৪৪ হিজরি

গ্রিসে অভিবাসনপ্রত্যাশীদের নৌকাডুবে নিখোঁজ অন্তত ৫০

পাথেয় টোয়েন্টিফোর ডটকম : গ্রিসের কারপাথোস দ্বীপের কাছে অভিবাসনপ্রত্যাশীদের একটি নৌকা ডুবে অন্তত ৫০ জন নিখোঁজ হয়েছেন বলে প্রতিবেদন প্রকাশ করেছে বার্তা সংস্থা এএফপি।

বুধবার গ্রিসের উপকূলরক্ষী বাহিনীর এক কর্মকর্তার বরাতে প্রতিবেদনে বলা হয়, এজিয়ান সাগরে গ্রিস উপকূলের কাছে নৌকাডুবির এই ঘটনায় তল্লাশি শুরু করেছে দেশটির উপকূলরক্ষী বাহিনী।

তিনি বলেন, উদ্ধার হওয়া ২৯ জনের বক্তব্য অনুযায়ী নৌকায় ৮০ জন অভিবাসনপ্রত্যাশী ছিলেন। তাদের মধ্যে ৫০ জন এখনও নিখোঁজ রয়েছেন।

মঙ্গলবার নৌকাটি তুরস্ক থেকে ইতালির উদ্দেশে ছেড়ে যাওয়ার পর জাহাজডুবির এই ঘটনা ঘটেছে। নিখোঁজদের সন্ধানে গ্রিসের উপকূলরক্ষীরা তল্লাশি অভিযান শুরু করেছে।

ওই কর্মকর্তা বলেন, উদ্ধার অভিযানে অন্তত চারটি যান অংশ নিয়েছে। এসব জাহাজ ইতোমধ্যে এজিয়ান সাগরের দক্ষিণে তল্লাশি শুরু করেছে। এছাড়াও গ্রিসের উপকূলরক্ষী বাহিনীর একটি টহল নৌকা এবং বিমান বাহিনীর একটি হেলিকপ্টারও অভিযানে যোগ দিয়েছে।

গ্রিসের উপকূলরক্ষী বাহিনীর মুখপাত্র নিকোস কোকালাস স্কাই রেডিওকে বলেছেন, সাগরে বাতাসের গতিবেগ ঘণ্টায় ৫০ কিলোমিটারের বেশি হওয়ায় উদ্ধার তৎপরতা ব্যাহত হচ্ছে।

দারিদ্রপীড়িত আফ্রিকা এবং যুদ্ধবিধ্বস্ত মধ্যপ্রাচ্যের বিভিন্ন দেশ থেকে পালিয়ে উন্নত জীবনের আশায় প্রায়ই অভিবাসীরা গ্রিস উপকূল হয়ে ইউরোপে যাওয়ার চেষ্টা করেন। ঝুঁকিপূর্ণ এই পথ পাড়ি দিতে গিয়ে শত শত অভিবাসী সাগরে ডুবে মারা যান। এই অভিবাসীদের বেশিরভাগই তুরস্ক হয়ে গ্রিসে পৌঁছান।

আন্তর্জাতিক অভিবাসন সংস্থা (আইওএম) বলছে, চলতি বছরের জানুয়ারি থেকে এখন পর্যন্ত পূর্ব ভূমধ্যসাগরে ডুবে অন্তত ৬৪ জন অভিবাসনপ্রত্যাশীর মৃত্যু হয়েছে। জাতিসংঘের এই অভিবাসন সংস্থার তথ্য অনুযায়ী, গত ১৯ জুন গ্রিসের মাইকোনোস দ্বীপের কাছে নৌকা ডুবে অন্তত ৮ জন মারা যান। এছাড়া ডুবে যাওয়া নৌকা থেকে আরও ১০৮ জনকে জীবিত উদ্ধার করা হয়।

শেয়ার করুন


সর্বস্বত্ব সংরক্ষিত © ১৯৮৬ - ২০২২ মাসিক পাথেয় (রেজিঃ ডি.এ. ৬৭৫) | patheo24.com
Design & Developed BY ThemesBazar.Com