৩০শে জুলাই, ২০২১ খ্রিস্টাব্দ , ১৫ই শ্রাবণ, ১৪২৮ বঙ্গাব্দ , ১৯শে জিলহজ, ১৪৪২ হিজরি

চীনের বাধায় নিষিদ্ধ হননি মাসুদ আজহার

চীনের বাধায় নিষিদ্ধ হননি মাসুদ আজহার

পাথেয় টোয়েন্টিফোর ডটকম : মাসুদ আজহার ভারতের কাছে ভয়ঙ্কর এক জঙ্গি। আক্রমণাত্মক অভিযানে তিনি বড়ধরনের ভূমিকা রাখছেন বলে দাবি করে তারা। পাকিস্তানের জয়েশ-ই মোহাম্মদের প্রধান মাসুদ আজহারকে আন্তর্জাতিক সন্ত্রাসী হিসেবে নিষিদ্ধ করার প্রক্রিয়া আরও একবার থমকে গেল। জাতিসংঘের নিরাপত্তা পরিষদে চীনের বাধায় মাসুদ আজহারকে নিষিদ্ধ তালিকায় অন্তর্ভুক্ত করা সম্ভব হয়নি। চীন কি কারণে মাসুদ আজহারের বিষয়ে নাক গলাচ্ছে তাও ক্লিয়ার নয়। এর আগেও মাসুদ আজহারের পক্ষাবলম্বন করেছিল চীন।

অবশ্য ভারতের উত্থাপিত এই প্রস্তাবে সম্মতি জানিয়েছে যুক্তরাষ্ট্র, ফ্রান্স, রাশিয়া, ব্রিটেনসহ বিভিন্ন দেশ। কিন্তু চীনের বিরোধিতায় মাসুদ আজহারকে জাতিসংঘের নিষেধাজ্ঞার তালিকায় আনা যায়নি। এই ঘটনায় ‘হতাশ’ হয়েছে বলে এক বিবৃতিতে জানিয়েছে ভারত পররাষ্ট্র মন্ত্রণালয়।

মাসুদ আজহারকে নিষিদ্ধ তালিকায় আনার চেষ্টা এবারই প্রথম নয়। গত দশ বছর ধরেই ভারত সরকার বিষয়টির জন্য আহ্বান জানিয়ে আসছে নিরাপত্তা পরিষদের স্থায়ী সদস্য দেশগুলোর কাছে। কিন্তু বেইজিংয়ের আপত্তিতে প্রত্যেকবারই তাদের হোঁচট খেতে হয়েছে। পুলওয়ামায় জঙ্গি হামলার পর নয়াদিল্লির চেষ্টায় এবং আন্তর্জাতিক সন্ত্রাসবাদে মাসুদ আজহারের ভূমিকা সামনে চলে আসায় প্রধানত যুক্তরাষ্ট্রই উঠে পড়ে লেগেছিল। সেই সঙ্গে সক্রিয় হয়েছিল পশ্চিমা বিশ্বের অন্যান্য দেশগুলোও।

কিন্তু তারপরেও এর বিপক্ষে অবস্থান নিয়েছে চীন। প্রস্তাব পেশ হওয়ার কয়েক ঘণ্টা আগেও তার ইঙ্গিত দেওয়া হয়েছিল। চীনের পররাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ের পক্ষ থেকে বলা হয়েছে, এই বিষয়টির মীমাংসা ‘প্রত্যেকের কাছে গ্রহণযোগ্য’ হওয়া প্রয়োজন। দেশটির পররাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ের মুখপাত্র লু কাং বলেন, আমি আগেও বলেছি, আবারও বলছি, দায়িত্বশীল রাষ্ট্রের মতো আচরণ করবে চীন।

চীনের বিপরীতে দাঁড়িয়ে যুক্তরাষ্ট্রের পররাষ্ট্র দফতরের মুখপাত্র রবার্ট পালাডিনো বলেন, আন্তর্জাতিক সন্ত্রাসবাদী হিসেবে ঘোষণা করার যে কয়টি শর্ত প্রয়োজন, তার সবকয়টিই মাসুদ আজহারের ক্ষেত্রে প্রযোজ্য। কিন্তু শেষ পর্যন্ত চীনের বাধায় মাসুদ আজহারকে নিষিদ্ধ করা নিয়ে সংশ্লিষ্ট কমিটিতে ঐকমত্য হয়নি।

প্রস্তাবে আপত্তি জানানোর সময়সীমা শেষ হওয়ার এক ঘণ্টা আগে চীন জানায়, এই প্রস্তাব বিবেচনা করতে তাদের আরও সময় প্রয়োজন। এ নিয়ে চারবার এই উদ্যোগ আটকে দিল বেইজিং।

শেয়ার করুন


সর্বস্বত্ব সংরক্ষিত © ১৯৮৬ - ২০২১ মাসিক পাথেয় (রেজিঃ ডি.এ. ৬৭৫) | patheo24.com
Design & Developed BY ThemesBazar.Com