২৬শে সেপ্টেম্বর, ২০২২ খ্রিস্টাব্দ , ১১ই আশ্বিন, ১৪২৯ বঙ্গাব্দ , ২৯শে সফর, ১৪৪৪ হিজরি

চীনে দাবানল, রেকর্ড পরিমাণ তাপদাহ

পাথেয় টোয়েন্টিফোর ডটকম : চীনের দক্ষিণ-পশ্চিমাঞ্চলের চংকিং শহরে দ্রুত ছড়িয়ে পড়েছে দাবানল। মাত্র ৫দিনেই ছড়িয়ে পড়া এই দাবানলে ভস্ম হয়ে গেছে বিশাল বনাঞ্চল। আর এ কারণে অঞ্চলটিতে এখন পর্যন্ত সর্বোচ্চ তাপদাহ রেকর্ড করা হয়েছে বলে জানিয়েছে মার্কিন সংবাদমাধ্যম সিএনএন।

প্রতিবেদনে বলা হয়, চংকিং এর গুরুত্বপূর্ণ অঞ্চলগুলো থেকে রাতে এই আগুন দৃশ্যমান হয়। সম্প্রতি দাবানলে এই মেগাসিটির আশেপাশের বিশাল বনাঞ্চল ভস্ম হয়ে গেছে। শুধু গাছপালা না এই দাবানলে ক্ষতির মুখোমুখি পাহাড়ও।

দাবানলের পর থেকেই বেশ গরম সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যম। সেখানে চংকিং এর বাসিন্দারা অভিযোগ করেন, তাদের বাসস্থান থেকে ধোঁয়ার গন্ধ পাওয়া যাচ্ছে। আরও কিছু বাসিন্দা সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে তাদের বারান্দায় জ্বলন্ত ফুলকি প্রবেশের ছবি পোস্ট করেন।

গত ১৮ই আগস্ট এই দাবানলের সূত্রপাত ঘটে। ওই এলাকার পৌরসভার পক্ষ থেকে জানানো হয়, দাবানলে এখন পর্যন্ত কোনো হতাহতের ঘটনা ঘটেনি।

স্থানীয় প্রশাসনের বরাত দিয়ে দেশটির রাষ্ট্রীয় বার্তা সংস্থা সিনহুয়া জানায়, প্রায় দেড় হাজার বাসিন্দাদের নিরাপদ স্থানে সরিয়ে নেওয়া হয়। ৫ হাজার দমকলকর্মী, পুলিশ, স্থানীয় কর্মকর্তা, স্বেচ্ছাসেবক ও ৭টি দমকলবাহিনীর হেলিকপ্টার এই দুর্যোগ নিয়ন্ত্রণে কাজ করছে।

দেশটির বনাঞ্চল ও তৃণভূমি প্রতিরক্ষা ও গবেষণা কেন্দ্রের প্রফেসর বাই ইয়ে বলেন, ‘প্রচণ্ড তাপদাহের ফলে স্বতঃস্ফূর্ত দহনের সৃষ্টি হয় যার ফলাফল এই দাবানল।

১৯৬১ সালের পর সর্বোচ্চ ভয়াবহ তাপদাহ এটি। সম্প্রতি ১০০টি শহরে তাপমাত্রা ৪০ ডিগ্রি সেলসিয়াস অতিক্রম করেছে বলে জানিয়েছে চংকিং শহরের স্থানীয় প্রশাসন।

বিজ্ঞানীদের মতে অস্ট্রেলিয়া, ক্যালিফোর্নিয়ার মত এসব দাবানল বিশ্বব্যাপী ক্রমবর্ধমান তাপমাত্রার ফল। মানবসৃষ্ট জলবায়ু পরিবর্তনের ফলে এসব ঘটনা দিন দিন বেড়েই চলছে।

এদিকে চীনের এই তীব্র তাপদাহের কারণে এয়ার কন্ডিশনিং পণ্যের চাহিদা বেড়েছে। এছাড়াও তাপদাহের ফলে সৃষ্ট খরায় দেশটির জলবিদ্যুৎ উৎপাদনে ঘাটতি দেখা দিয়েছে। এই খরায় দেশটির বাণিজ্যিকভাবে আলোচিত ইয়াংটঝি নদী ও সংযুক্ত জলপথ শুকিয়ে গেছে।

স্থানীয় সময় মঙ্গলবার(২৩ আগস্ট) তীব্র তাপদাহের ফলে রেড অ্যালার্ট জারি করে চীন। অন্তত ১৬৫টি শহর ও কাউন্টিতে সর্বোচ্চ এই সতর্কতা জারি করা হয়।

এদিকে দেশটির আবহাওয়া অধিদপ্তর জানায়, পরবর্তী ২৪ঘন্টায় এসব অঞ্চলের তাপমাত্রা ৪০ ডিগ্রি সেলসিয়াস অতিক্রম করবে।

দেশটির আরও ৩৭৩টি শহরে দ্বিতীয় সর্বোচ্চ সতর্কতা ‘অরেঞ্জ অ্যালার্ট জারি করে।

আবহাওয়া অধিদপ্তরের মতে এসব অঞ্চলে আগামী তিনদিনে ৩৭ ডিগ্রি সেলসিয়াস অতিক্রম করবে।

এদিকে দেশবাসীকে ঘরের বাইরের কাজকর্ম কমিয়ে আনতে পরামর্শ দিয়েছে চীন সরকার। একই সাথে কাজের পরিমাণ কমিয়ে আনার কথা বলা হয়েছে।

শেয়ার করুন


সর্বস্বত্ব সংরক্ষিত © ১৯৮৬ - ২০২২ মাসিক পাথেয় (রেজিঃ ডি.এ. ৬৭৫) | patheo24.com
Design & Developed BY ThemesBazar.Com