১৯শে মে, ২০২২ খ্রিস্টাব্দ , ৫ই জ্যৈষ্ঠ, ১৪২৯ বঙ্গাব্দ , ১৭ই শাওয়াল, ১৪৪৩ হিজরি

জমিয়ত এগিয়ে চলেছে ‘নেক হও, এক হও’ স্লোগানে

পাথেয় টোয়েন্টিফোর ডটকম : বাংলাদেশ জমিয়তুল উলামা ‘নেক হও, এক হও’ এর স্লোগান নিয়ে অবিরাম পথ চলছে বলে মন্তব্য করেছেন সংগঠনটির মহাসচিব মাওলানা আব্দুর রহীম কাসেমী।

তাড়াইলের জামিয়াতুল ইসলাহ আল মাদানিয়া ময়দানে তিন দিনব্যাপী ইসলাহী ইজতেমার দ্বিতীয় দিন বাদ মাগরিব এসব কথা বলেন তিনি।

বাংলাদেশ জমিয়তুল উলামা মহাসচিব বলেন, বর্তমান বিশ্বের সর্বত্রজুড়ে মুসলিমরা প্রচন্ডভাবে নিস্পেষিত ও পদপিষ্ট হচ্ছে। বিশ্বব্যাপী মুসলমানদের এ করুণ অবস্থা দূরীকরণে বাংলাদেশ জমিয়তুল উলামা ‘এক হও, নেক হও’ এর শ্লোগানে যাত্রা করছে। একতাহীন অনৈক্য আর নেক না হওয়ার দরুন দুনিয়াভর মুসলমানদের এই নিপীড়িত অবস্থা। নেক হওয়ার উপর নির্ভর করে ব্যক্তির আখেরাতের নাজাত এবং এক হওয়ার উপরে নির্ভর করে তার পার্থিব সাফল্য।

আরও পড়ুন: মৃত্যুর আগেই তওবা করুন : সৈয়দ নুরুল করীম

তিনি বলেন, নেক ও এক হতে হলে ৩টি কাজ করতে হবে। এক. দিলের সাথী আল্লাহকে বানাতে হবে। দুই. আমলের সাথী বানাতে হবে রাসুলুল্লাহ সা. কে। তিন. পথচলার সাথী বানাতে হবে সাহাবায়ে কেরাম রা.কে। ঐক্য তৈরীতে ৪টি আমলে মনোনিবেশ করতে হবে- দাওয়াত, তালিম, তাযকিয়া ও মুজাহাদা। আর এ সমস্ত বিষয় আয়ত্তে আনা এবং অর্জনে একজন আল্লাহ্ওয়ালার সোহবত-সাহচর্য অত্যাবশ্যকীয়। যেমন- সাহাবায়ে কেরাম রাসুলের সোহবতে ছিলেন, তাবেয়ীগন ছিলেন সাহাবাদের সোহবতে।

অন্তরে একমাত্র আল্লাহকে জায়গা দিতে হবে জানিয়ে মাওলানা আব্দুর রহীম কাসেমী বলেন, আল্লাহর জিকির অন্তরে শান্তি দেয়, মনে প্রফুল্লতা সৃষ্টি করে। জিকিরের মাধ্যমে আল্লাহর নৈকট্য অর্জন হয়। পৃথিবীর সর্বত্র এখন অশান্তি বিরাজ করছে, তার অন্যতম কারণ হলো আমরা আল্লাহ বিমুখ হয়ে দুনিয়ামুখী হয়ে গেছি। পৃথিবীতে আবার শান্তি আসবে, যদি আমরা আল্লাহ মুখী হই। বেশি বেশি করে আল্লাহর জিকির করি। আল্লাহর জিকিরে অন্তরে শান্তি আসে। এতে করে দ্বীনের কাজকর্ম করতে ভালো লাগে।

শেয়ার করুন


সর্বস্বত্ব সংরক্ষিত © ১৯৮৬ - ২০২২ মাসিক পাথেয় (রেজিঃ ডি.এ. ৬৭৫) | patheo24.com
Design & Developed BY ThemesBazar.Com