২রা ফেব্রুয়ারি, ২০২৩ খ্রিস্টাব্দ , ১৯শে মাঘ, ১৪২৯ বঙ্গাব্দ , ১০ই রজব, ১৪৪৪ হিজরি

জাতীয় পাঠ্যপুস্তক সংশোধন কমিটিতে আলেম প্রতিনিধি রাখার দাবি

পাথেয় টোয়েন্টিফোর ডটকম : পাঠ্যপুস্তকে বিতর্কিত বিষয় যুক্ত করার বিরুদ্ধে আলেমসমাজসহ নানামহল তীব্র আপত্তি ও প্রতিবাদ জানিয়েছেন। এরই প্রেক্ষিতে ২৪ জানুয়ারি মঙ্গলবার, নতুন শিক্ষাক্রম নিয়ে সংবাদ সম্মেলনে শিক্ষামন্ত্রী জানিয়েছেন, ধর্মীয় অনুভূতিতে আঘাত দেওয়ার মতো কোনো বিষয় পাঠ্যবইয়ে থাকবে না। পাঠ্যবইয়ের কোনো ভুল কিংবা বিতর্ক থাকলে পরিবর্তন করা হবে।

আজ মঙ্গলবার (২৪ জানুয়ারি) গণমাধ্যমে পাঠানো বিবৃতিতে বোর্ডের নেতৃবৃন্দ বলেন, পাঠ্যপুস্তক সংস্কার ও সংশোধন কমিটিতে বায়তুল মোকাররমের খতিবসহ কওমি মাদরাসার ছয় বোর্ড থেকে একজন করে প্রতিনিধি রাখতে হবে। গওহরডাঙ্গা বোর্ডের পক্ষ থেকে পাঠ্যপুস্তক প্রণয়ন কমিটিতে আলেম প্রতিনিধ রাখার দাবি আগেও জানানো হয়েছে। যাতে পাঠ্যপুস্তক নিয়ে কোনো ধরনের বিতর্ক না হয়।

এ লক্ষে দুটি কমিটি গঠন করা হবে। একটি কমিটি বিশেষজ্ঞদের নিয়ে। সেখানে স্বাস্থ্য, ধর্মীয়, পেশাগত বিশেষজ্ঞরা থাকবেন। যে কেউ যেকোনো জায়গা থেকে যেকোনো মতামত দিতে পারবেন। বিশেষজ্ঞ কমিটি তা যাচাই-বাছাই করে সংশোধন করবে। কোথাও ভুল থাকলে নিশ্চয়ই সংশোধন করা হবে। কারো কোনো অস্বস্তি থাকলে তা বিবেচনায় নেব।

পাঠ্যপুস্তকে যে ধরনের বিষয়গুলো এসেছে এবং শিক্ষকদের যে অনুশীলন বই দেওয়া হয়েছে, এগুলো মুসলমানদের সংস্কৃতি, জীবন এবং ধর্মবোধের বিরুদ্ধে। এগুলো নিয়ে বই প্রকাশের পর পর গওহরডাঙ্গা শিক্ষাবোর্ড প্রতিবাদ জানিয়েছে।

আলেম উলামাদের সাথে পরামর্শ করে আগামী রোববার বই সংশোধন ও আপত্তিকর বিষয় বাদ দেওয়ার দাবিতে মানববন্ধন কর্মসূচি ঘোষণা করা হয়। কিন্তু শিক্ষামন্ত্রীর এমন ঘোষণার পর মানববন্ধন কর্মসূচি স্থগিত করে পাঠ্যপুস্তক সংস্কার ও সংশোধন কমিটিতে আলেম প্রতিনিধি রাখার দাবি জানানো হয়েছে গওহরডাঙ্গা বোর্ডের পক্ষ থেকে।

বোর্ড নেতৃবৃন্দ বলেন, মুসলিম সংখ্যাগরিষ্ঠ দেশে পাঠ্যপুস্তক নিয়ে বছর বছর বিতর্ক কাম্য নয়। ধর্মকে অবজ্ঞা এবং ইতিহাস বিকৃতি আমরা কোনোমতেই মেনে নিতে পারি না।

বিবৃতিদাতা আলেমগন হলেন, গওহরডাঙ্গা মাদরাসার নায়েবে মুহতামিম, মুফতি উসামা আমিন, গওহরডাঙ্গা বোর্ডের মহাসচিব, মাওলানা শামছুল হক, নায়েবে ছদর মাওলানা নুরুল হক, গওহরডাঙ্গা মাদরাসার সিনিয়র মুহাদ্দিস, মাওলানা আব্দুস সালাম, মাওলানা ঝিনাত আলী, মুফতি মুঈনুদ্দীন, মাওলানা জাকির বিন জয়নল আবেদিন, মাওলানা সাখাওয়াত হোসেন, মাওলানা মাহমুদুল হাসান, মাওলানা রেজাউল হক, মুফতি মুহাম্মদ তাসনীম, মুফতি হারুনুর রশীদ চৌধুরীসহ প্রমুখ নেতৃবৃন্দ।

শেয়ার করুন


সর্বস্বত্ব সংরক্ষিত © ১৯৮৬ - ২০২২ মাসিক পাথেয় (রেজিঃ ডি.এ. ৬৭৫) | patheo24.com
Design & Developed BY ThemesBazar.Com