২৬শে সেপ্টেম্বর, ২০২১ খ্রিস্টাব্দ , ১১ই আশ্বিন, ১৪২৮ বঙ্গাব্দ , ১৭ই সফর, ১৪৪৩ হিজরি

জাতীয় মসজিদে ঈদের নামাজে হাজারো মানুষ

পাথেয় টোয়েন্টিফোর ডটকম : করোনার সংক্রমণ রোধে সতর্কতার সঙ্গে মসজিদে মসজিদে হাজারো মুসল্লি ঈদুল ফিতরের নামাজ আদায় করেছেন। জাতীয় মসজিদ বায়তুল মোকাররমে শুক্রবার (১৪ মে) সকাল সাতটায় ঈদের প্রথম জামাত অনুষ্ঠিত হয়। ইমামতি করেন বায়তুল মোকাররমের জ্যেষ্ঠ পেশ ইমাম হাফেজ মুফতি মাওলানা মিজানুর রহমান।

সকাল ৮টার সময় বায়তুল মোকাররমে ঈদের দ্বিতীয় জামাত অনুষ্ঠিত হয়। স্বাস্থ্যবিধি মেনে মুসল্লিদের ঈদের নামাজ আদায় করতে দেখা যায়। সকাল ৬টার পর থেকে মুসল্লিরা দলে দলে জাতীয় মসজিদ বায়তুল মোকাররমে আসতে শুরু করেন। ধর্মপ্রাণ মুসল্লিরা মুখে মাস্ক পরে স্বাস্থ্যবিধি মেনে নামাজ আদায় করেন। অবশ্য মসজিদের ভেতর জায়গা না হওয়ায় মসজিদের বাইরেও অনেকে ঈদের নামাজ আদায় করেন।

এ ছাড়াও রাজধানীর মসজিদে মসজিদে ঈদের নামাজ আদায় করছেন মুসল্লিরা। নামাজ আদায় শেষে তাসিফুর রহমান বলেন, করোনার প্রকোপ চলছে। গত বছরও ঈদের নামাজ ঈদগাহ ময়দানে পড়তে পারিনি। মসজিদে আদায় করতে হয়েছে। এ বছরও মসজিদে নামাজ আদায় করলাম।

ঈদের নামাজ শেষে করোনা মহামারি থেকে রক্ষা পেতে মহান রাব্বুল আলামিনের দরবারে দোয়া চাওয়া হয়।

বর্তমান করোনা পরিস্থিতিতে পবিত্র ঈদুল ফিতরের নামাজ আদায়ে ধর্মবিষয়ক মন্ত্রণালয় থেকে গত ২৬ এপ্রিল জারি করা বিজ্ঞপ্তি অনুসরণ করে যথাযথ স্বাস্থ্য সুরক্ষাব্যবস্থা নিশ্চিত করতে মসজিদের ইমাম-খতিব, মসজিদ ব্যবস্থাপনা কমিটি, ধর্মপ্রাণ মুসল্লি ও সংশ্লিষ্ট সবাইকে অনুরোধ জানায় ইসলামিক ফাউন্ডেশন।

ধর্ম মন্ত্রণালয়ের নির্দেশনায় বলছে, ইসলামি শরিয়তে ঈদগাহ বা খোলা জায়গায় পবিত্র ঈদুল ফিতরের নামাজের জামাত আদায়ের ব্যাপারে উৎসাহিত করা হয়। কিন্তু বর্তমানে দেশে করোনাভাইরাসের সংক্রমণ পরিস্থিতির কারণে মুসল্লিদের জীবনের ঝুঁকি বিবেচনায় এ বছরও ঈদের নামাজের জামাত নিকটস্থ মসজিদে আদায় করার অনুরোধ করা হয়। প্রয়োজনে একই মসজিদে একাধিক জামাতের আয়োজন করার কথা বলা হয় নির্দেশনায়।

ধর্ম মন্ত্রণালয়ের নির্দেশনায় আরও বলা হয়, ঈদের নামাজের জামাতের সময় মসজিদে কার্পেট বিছানো যাবে না। নামাজের আগেই সম্পূর্ণ মসজিদ জীবাণুনাশক দিয়ে পরিষ্কার করতে হবে। মুসল্লিদের নিজ দায়িত্বে জায়নামাজ নিয়ে আসতে হবে। এ ছাড়া মসজিদে অজুর স্থানে সাবান বা হ্যান্ড স্যানিটাইজার রাখতে হবে। মসজিদের প্রবেশদ্বারে হ্যান্ড স্যানিটাইজার/হাত ধোয়ার ব্যবস্থাসহ সাবান-পানি রাখতে হবে।

শেয়ার করুন


সর্বস্বত্ব সংরক্ষিত © ১৯৮৬ - ২০২১ মাসিক পাথেয় (রেজিঃ ডি.এ. ৬৭৫) | patheo24.com
Design & Developed BY ThemesBazar.Com