জেনে নিন প্রতিদিন খেজুর খাওয়ার ৭ উপকারিতা

জেনে নিন প্রতিদিন খেজুর খাওয়ার ৭ উপকারিতা

পাথেয় টোয়েন্টিফোর ডটকম : বিশ্বের সবচেয়ে প্রচলিত ফলগুলোর একটি হলো খেজুর। সারাবিশ্বের কাছে আজও খেজুরের জনপ্রিয়তা তুঙ্গে। আপনি কি জানেন, খেজরে কী কী উপকার আছে? খেজুরে আছে বিভিন্ন ভিটামিন, খনিজ, শক্তিসহ ফাইবারের একটি ভালো উৎসও এই ফলে রয়েছে। এছাড়াও এতে রয়েছে ক্যালসিয়াম, আয়রন, ফসফরাস, পটাশিয়াম, ম্যাগনেসিয়াম এবং জিঙ্ক। খেজুর মিষ্টি হলেও এর চিনি শরীরে ক্যালোরি বাড়ায় না। ফলে চিনির বিকল্প হিসেবে খেজুরের ভালো কদর রয়েছে বিশ্বে। তাহলে চলুন জেনে নিই প্রতিদিন খেজুর খেলে কী কী উপকারিতা পাওয়া যায়।

প্রোটিনের উৎস

আপনি যদি সহজে প্রোটিন সমৃদ্ধ খাবার খেতে চান তবে খেজুর খেতে পারেন। খেজুর প্রোটিনের একটি শক্তিশালী উৎস যা আমাদের ফিট থাকতে সাহায্য করে, এমনকি আমাদের পেশীগুলোকে শক্তিশালী রাখে। যারা নিয়মিত শরীরচর্চা করেন তাদের প্রতিদিনের খাবারে খেজুর রাখার পরামর্শ দেন বিশেষজ্ঞরা।

আয়রনের অভাব দূর করে

খেজুরে থাকা ফ্লোরিন আপনার দাঁতকে সুস্থ রাখতে কাজ করে। পাশাপাশি খেজুরে আয়রন থাকে। তাই যারা আয়রনের অভাবে ভুগছেন তাদের খেজুর খাওয়ার পরামর্শ দেন বিশেষজ্ঞরা। গুরুতর আয়রনের অভাবজনিত কারণে রক্তাস্বল্পতা, ক্লান্তি, শ্বাসকষ্ট, বুকে ব্যথা হতে পারে। এসব সমস্যা দূর করে খেজুর। এছাড়াও এটি রক্ত ​​পরিশোধনের ক্ষেত্রেও দারুণভাবে কাজ করে।

ভিটামিন সমৃদ্ধ

খেজুরে থাকে ভিটামিন বি ১, বি ২, বি ৩, বি ৫, এ ১ এবং সি। এটি আপনাকে সুস্থ রাখার পাশাপশি আপনার শক্তির মাত্রায়ও একটি লক্ষণীয় পরিবর্তন আনবে। কারণ খেজুরে আছে গ্লুকোজ, সুক্রোজ এবং ফ্রুক্টোজের মতো প্রাকৃতিক শর্করা। সুতরাং এটি প্রতিদিনের নাস্তার বিকল্প হিসেবেও রাখতে পারেন। কারণ দ্রুত শক্তি পেতে খেজুরের চেয়ে ভালো বিকল্প হয় না।

হজম শক্তি বাড়ায়

আপনি যদি কয়েকটি খেজুর পানিতে ভিজিয়ে সেগুলো প্রতিদিন সকালে খান, তবে তা আপনার হজম ব্যবস্থার দ্রুত উন্নত করবে। এতে আরও আছে উচ্চ ফাইবার। যে কারণে এটি যাদের কোষ্ঠকাঠিন্যে সমস্যায় ভুগছেন, তাদেরও খেতে বলা হয়।

হাড় ভালো রাখে

হাড় ভালো রাখা জরুরি। কারণ হাড়ের সমস্যা দেখা দিলে তা সামলানো মুশকিল হয়ে যায়। আপনি যদি হাড়ের স্বাস্থ্যের উন্নতি করতে চান তবে নিয়মিত খেজুর খেতে শুরু করুন। এটি হাড় ভালো রাখার ক্ষেত্রে বিস্ময়করভাবে কাজ করে। খেজুরে আছে সেলেনিয়াম, ম্যাঙ্গানিজ, তামা এবং ম্যাগনেসিয়াম যা আমাদের হাড়কে সুস্থ রাখতে এবং অস্টিওপরোসিসের মতো রোগ প্রতিরোধ করতে সাহায্য করে।

স্নায়ুতন্ত্রকে ঠিক রাখে

খেজুরে থাকা পটাশিয়াম আমাদের শরীরের জন্য ভীষণ উপকারী। বিশেষ করে স্নায়ুতন্ত্রকে শক্তিশালী করতে সাহায্য করে এই উপাদান। এতে অল্প সোডিয়ামও থাকে যা আপনার স্নায়ুতন্ত্রকে ঠিক রাখে। এদি পটাশিয়াম কোলেস্টেরল কমাতে সাহায্য করে এবং স্ট্রোকের ঝুঁকি নিয়ন্ত্রণে রাখে। বুঝতেই পারছেন, খেজুর আমাদের শরীরের জন্য কতটা দরকারি!

কোলেস্টেরল কমায়

আপনি কি জানেন যে খেজুর কোলেস্টেরল মুক্ত এবং এতে খুব কম চর্বি থাকে? প্রতিদিনের খাবারে অল্প করে খেজুর রাখুন। এটি আপনাকে কোলেস্টেরলের মাত্রা নিয়ন্ত্রণে রাখতে এবং ওজন কমাতে সহায়তা করবে। তাই বাড়িতে খেজুর না থাকলে আজই কিনে আনুন।

 

 

Related Articles

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *