২৭শে জুন, ২০২২ খ্রিস্টাব্দ , ১৩ই আষাঢ়, ১৪২৯ বঙ্গাব্দ , ২৬শে জিলকদ, ১৪৪৩ হিজরি

ঝড়ে লন্ডভন্ড দিল্লিতে নিহত ২, ভেঙে পড়েছে ৩০০ গাছ

পাথেয় টোয়েন্টিফোর ডটকম : ভারতের রাজধানী নয়াদিল্লতে শক্তিশালী ঝড়ে দুই জন নিহত হয়েছেন। এছাড়া ঝড় ও বৃষ্টিতে ভেঙে পড়েছে প্রায় ৩০০ গাছ। একইসঙ্গে বহু সংখ্যক গাছ ভেঙে পড়ায় দিল্লির রাস্তায় তীব্র জ্যাম ও বিশৃঙ্খলা সৃষ্টি হয়।

সোমবার (৩০ মে) হওয়া এই ঝড়ের সর্বোচ্চ গতিবেগ ছিল ঘণ্টায় ১০০ কিলোমিটার পর্যন্ত। সোমবার রাতে এক প্রতিবেদনে এই তথ্য জানিয়েছে ভারতীয় সংবাদমাধ্যম এনডিটিভি।

প্রতিবেদনে বলা হয়েছে, সোমবার সন্ধ্যায় দিল্লির ঐতিহাসিক জামে মসজিদ এলাকায় ঝড়ের মধ্যে ৫০ বছর বয়সী এক ব্যক্তি নিহত হন। শক্তিশালী এই ঝড়ের মধ্যে তিনি নিজের ঘরের বাইরে দাঁড়িয়ে ছিলেন এবং এসময় পার্শ্ববর্তী বাড়ির একটি ব্যালকনি ভেঙে তার ওপর পড়লে তিনি প্রাণ হারান।

এছাড়া ঝড়ের কবলে পড়ে উত্তর দিল্লির আঙ্গুরিবাগ এলাকায়ও এক ব্যক্তি নিহত হয়েছেন। নিহত ৬৫ বছর বয়সী ওই ব্যক্তি গৃহহীন এবং তার নাম বশির বাবা বলে জানানো হয়েছে। পুলিশ জানিয়েছে, সোমবার সন্ধ্যায় ঝড়ের মধ্যে একটি পিপল গাছ তার ওপর ভেঙে পড়লে তিনি প্রাণ হারান।

এনডিটিভি বলছে, ২০১৮ সালের পর থেকে দিল্লিতে এটিই সবচেয়ে শক্তিশালী ঝড় বলে জানিয়েছেন ভারতের আবহাওয়া দপ্তরের এক কর্মকর্তা। অন্যদিকে পর্যবেক্ষক সংস্থা পালাম অবজারভেটরির রিডিং অনুসারে, সোমবার সন্ধ্যায় দিল্লির বিমানবন্দরের কাছে তাপমাত্রা কমে যায় ১৩ ডিগ্রি সেলসিয়াস এবং দক্ষিণ দিল্লির সাফদারজংয়ে ১৬ ডিগ্রি সেলসিয়াস।

এছাড়া ফিরোজশাহ রোড, টলস্টয় মার্গ, কোপার্নিকাস রোড, কেজি মার্গ এবং পণ্ডিত রবিশঙ্কর শুক্লা লেনের কাছাকাছি এলাকায় ভারী বর্ষণের পরে রাস্তায় বহু যানবাহন আটকা পড়ে। মূলত দিল্লির পূর্ব ও মধ্যাঞ্চলে ঝড়ের কারণে সবচেয়ে বেশি ক্ষতি হয়েছে।

এছাড়া শক্তিশালী এই ঝড়ের কারণে প্রায় ৩০০টি গাছ ভেঙে পড়ে বলে দিল্লির বাসিন্দাদের কাছ থেকে ফোনকল পাওয়ার কথা জানিয়েছে কর্তৃপক্ষ। ঝড়ের পর ভাঙা গাছ ও গাছের ভাঙা ডালে রাস্তা আটকে যায়। ফলে সড়কে বিশৃঙ্খলা দেখা দেয়। বার্তাসংস্থা এএনআই বলছে, সোমবার রাত ৮ পর্যন্ত ২৯৪টি গাছ ভেঙে পড়ার ফোনকল পাওয়া গেছে।

এদিকে সোমবার সন্ধ্যায় দিল্লিতে প্রবল ঝড়-বৃষ্টিতে ক্ষতি হয়েছে দিল্লির ঐতিহাসিক জামে মসজিদের। ঝড়ের দাপটে জামে মসজিদের মূল গম্বুজের কারুকার্য করা কলস ভেঙে পড়েছে। মসজিদের কাঠামোরও কিছু অংশ ভেঙে পড়েছে।

এছাড়া প্রবল ঝড়ো বাতাসে এদিন দিল্লির বেশ কয়েকটি জায়গায় বিদ্যুৎ সংযোগও বিচ্ছিন্ন হয়ে যায়। গাছ ও বিদ্যুতের খুঁটি উপড়ে গিয়ে বেশ কয়েকটি জায়গায় বন্ধ হয়ে যায় যান চলাচল। শুধু তাই নয়, গাছ ও লোহার বিম পড়ে ক্ষতি হয়েছে বেশ কয়েকটি গাড়ির। দিল্লির অনেক বসত-বাড়িও ঝড়ের কারণে ক্ষতিগ্রস্ত হয়েছে।

বার্তাসংস্থা পিটিআই-এর প্রতিবেদন অনুযায়ী, জামে মসজিদের শাহি ইমাম সৈয়দ আহমেদ বুখারি জানিয়েছেন, একটি মিনার এবং মসজিদের অন্যান্য অংশ থেকে পাথর ভেঙে পড়ে দুই ব্যক্তি আহত হয়েছেন।

বুখারি বলেছেন, ‘মূল গম্বুজের কলসটি ভেঙে তিন টুকরো হয়ে গেছে। দুটি টুকরো পড়ে গেছে, অপরটি গম্বুজের সঙ্গে আটকে রয়েছে। ওই টুকরোটি না নামিয়ে আনা হলে, সেটিও পড়ে যাবে। আর্কিওলজিকাল সার্ভে অব ইন্ডিয়াকে চিঠি লিখে ক্ষতিগ্রস্ত অংশটি নামিয়ে আনতে বলা হবে। মসজিদটি অবিলম্বে মেরামতের জন্য প্রধানমন্ত্রীকেও চিঠি লেখা হবে।’

এদিকে আচমকা শুরু হওয়া এই ঝড়ে দিল্লির ইন্দিরা গান্ধী আন্তর্জাতিক বিমানবন্দরে বেশ কিছু সময় বিমান ওঠা-নামাও বন্ধ ছিল। ফলে, অনেক ফ্লাইটের উড্ডয়নের সময় পিছিয়ে দিতে হয়। এএনআই জানিয়েছে, প্রবল ঝড়-বৃষ্টিতে দিল্লির বিজয় চকের একটি ছাউনিও ভেঙে গেছে।

শেয়ার করুন


সর্বস্বত্ব সংরক্ষিত © ১৯৮৬ - ২০২২ মাসিক পাথেয় (রেজিঃ ডি.এ. ৬৭৫) | patheo24.com
Design & Developed BY ThemesBazar.Com