২৬শে ফেব্রুয়ারি, ২০২১ ইং , ১৩ই ফাল্গুন, ১৪২৭ বঙ্গাব্দ , ১৩ই রজব, ১৪৪২ হিজরী

টেকনাফে উদ্ধার ৫ বস্তা ইয়াবা

পাথেয় টোয়েন্টিফোর ডটকম : বিজিবি ও মাদক পাচারকারিদের মধ্যে গোলাগুলির ঘটনা ঘটেছে কক্সবাজারের টেকনাফের দমদমিয়া ওমরখাল সংলগ্ন নাফনদী এলাকায়। এসময় পাচারকারিরা পালিয়ে গেলেও প্লাস্টিকের বস্তার ভেতর থেকে ৫ লাখ ২০ হাজার ইয়াবা, অস্ত্র, কার্তুজ, কিরিচ উদ্ধার করেছে বর্ডার গার্ড বাংলাদেশ (বিজিবি)।

রোববার (১৭ জানুয়ারি) ভোররাতে উপজেলার হ্নীলা ইউনিয়নের দমদমিয়া ওমরখাল সংলগ্ন নাফনদী থেকে অস্ত্র, কার্তুজ, কিরিচ, ইয়াবাগুলো উদ্ধার করা হয়।

রবিবার দুপুরে টেকনাফস্থ ২ বিজিবি ব্যাটলিয়ান সদর দফতরে আয়োজিত এক সংবাদ সম্মেলনে অধিনায়ক লে.কর্নেল ফয়সল হাসান খান (পিএসসি) এসব তথ্য নিশ্চিত করেছেন। এসময় উপস্থিত ছিলেন ২ বিজিবি ব্যাটলিয়নের উপ-অধিনায়ক মেজর মোঃ রুবায়াত কবীর ও মেডিকেল অফিসার (ক্যাপ্টেন) মোঃ মাসুম রেজা।

টেকনাফ ২বিজিবি ব্যাটালিয়নের অধিনায়ক লে. কর্ণেল মোহাম্মদ ফয়সল হাসান খান (পিএসসি) জানান, গোপন সংবাদের ভিত্তিতে নাফনদী হয়ে মিয়ানমার থেকে ইয়াবার একটি বড় চালান দমদমিয়া ওমরখাল এলাকা দিয়ে বাংলাদেশে পাচার হতে পারে। এমন তথ্যের ভিত্তিতে দমদমিয়া বিওপির একটি বিশেষ টহলদল ওই এলাকায় কেওড়া বাগান ও নাফনদীতে কৌশলে অবস্থান নেয়। নাইট ভিশন ডিভাইস দ্বারা ৩-৪জন দুষ্কৃতকারী ব্যক্তিকে মিয়ানমারের লালদ্বীপ হতে হস্তচালিত নৌকাযোগে বিআরএম ৯হতে আনুমানিক ৫০০গজ উত্তর দিক দিয়ে শূন্য লাইন থেকে ১কিঃমিঃ বাংলাদেশের অভ্যন্তরে প্রবেশ করতে দেখে। ওই ব্যক্তিদের টহলদল দেখা মাত্র স্পীডবোট ও দেশী বোট নিয়ে দুই দিকে ঘেরাও করে চ্যালেঞ্জ করে। ঔই ব্যক্তিরা দূর হতে বিজিবি টহলদলের উপস্থিতি অনুধাবন করা মাত্রই সশস্ত্র ইয়াবা পাচারকারীরা বিজিবি টহলদলের উপর অতর্কিতভাবে গুলিবর্ষণ করে টহলদল ও সরকারী সম্পদ এবং নিজের জান-মাল রক্ষার্থে পাল্টা গুলিবর্ষণ করে। ইয়াবা পাচারকারীরা তাদের নৌকা হতে বিচ্ছিন্ন হয়ে পড়ে এবং গুলিবিদ্ধ অবস্থায় নদীতে ঝাঁপিয়ে পড়লে ভাঁটার টানে পানিতে ডুবে স্থানান্তর হয়ে যায়। গোলাগুলির শব্দ থামার পরে টহলদল চোরাকারবারীদের ব্যবহৃত নৌকাটি হতে পাঁচটি প্লাস্টিকের বস্তা, একটি দেশী তৈরি বন্দুক(এলজি), দুই রাউন্ড কার্তুজ ও একটি কিরিচ উদ্ধার করা হয়। বস্তাগুলো খুলে গণনা করে ১৫ কোটি ৬০ লাখ টাকার মূল্যের ৫ লাখ ২০হাজার পিস ইয়াবা ট্যাবলেট পাওয়া যায়। এসময় কাউকে আটক করা সম্ভব হয়নি।

তিনি আরো জানান, উদ্ধার অস্ত্র, কার্তুজ, কিরিচ ও ইয়াবাগুলো জিডি করে টেকনাফ মডেল থানায় হস্তান্তর করে মাদক পাচারের দায়ে অজ্ঞাত দোষীদের বিরুদ্ধ সরকারী কাজে বাঁধা প্রদান করায় প্রয়োজনীয় আইনগত ব্যবস্থা গ্রহণ করা হবে।

/এএ

নিউজটি শেয়ার করুন

এই ওয়েবসাইটের কোনো লেখা, ছবি, ভিডিও অনুমতি ছাড়া ব্যবহার সম্পূর্ণ বেআইনি
Design & Developed BY ThemesBazar.Com