তারাবি; হবে কি হবে না? সিদ্ধান্ত শেষ মুহূর্তে

তারাবি; হবে কি হবে না? সিদ্ধান্ত শেষ মুহূর্তে

পাথেয় টোয়েন্টিফোর ডটকম : সারাবিশ্বেই করোনার সংক্রমণ থেকে বাচঁতে সামাজিক দূরত্ব বজায় রাখার জন্য জনসমাগম হয় এমন সব ধর্মীয় অনুষ্ঠানে এসেছে নানা ধরণের সীমাবদ্ধতা আরোপ। আসন্ন রমজানে অনেক মুসলিম দেশেই মসজিদে তারাবি না হওয়ার ঘোষণা ইতোমধ্যেই চলে এসেছে।

তবে বাংলাদেশে রমজান মাসে তারাবির নামাজ নিয়ে কোন সিদ্ধান্ত এখনো চূড়ান্ত হয়নি৷ করোনা পরিস্থিতি বিচার করে প্রয়োজন হলে আগের নির্দেশনায় পরিবর্তন আনা হতে পারে৷ কিন্তু পরিস্থিতি অপরিবর্তিত থাকলে আগের নির্দেশনাই জারি থাকবে৷

আর মাত্র ১০ দিন পরেই (২৫ অথবা ২৬ এপ্রিল) শুরু হবে মুসলমানদের পবিত্র রমজান মাস৷ দেশে করোনা ভাইরাসের প্রাদুর্ভাব ঠেকাতে গত ৬ এপ্রিল ঘরে নামাজ আদায় করার নির্দেশনা জারি করে সরকার৷ সেই নির্দেশনা এখনো জারি থাকায় তারাবির নামাজের ক্ষেত্রেও তা প্রযোজ্য হওয়ার কথা৷ কিন্তু পরিস্থিতি অনুযায়ী তা পরিবর্তনও হতে পারে৷

‘এখনো এ বিষয়ে সিদ্ধান্ত নেয়ার সময় হয়নি৷ যদি কোন পরিবর্তন করতে হয় সে সিদ্ধান্ত পরিস্থিতি বিবেচনা করে শেষ মুহূর্তে নেয়া হবে’ বলে জানিয়েছেন ইসলামিক ফাউন্ডেশনের মহাপরিচালক আনিস মাহমুদ৷

তিনি বলেন, করোনা পরিস্থিতি বিবেচনা করে যদি সিদ্ধান্ত পরিবর্তন করতে হয়, সেটা কেমন হবে সে বিষয়ে আলাপ আলোচনা করে সিদ্ধান্ত নেয়া হবে৷

‘‘এখানে সংশ্লিষ্ট সবার মতামতের ভিত্তিতে সিদ্ধান্ত নেয়া হবে,” টেলিফোনে জানান তিনি৷

সিদ্ধান্ত পরিবর্তিত হলে তার ধরন কেমন হতে পারে সে নিয়ে এরই মধ্যে কেউ কেউ প্রস্তাব দিচ্ছেন বলে ইসলামিক ফাউন্ডেশন সূত্রে জানা গেছে৷ এদিকে, ধর্ম মন্ত্রণালয় সূত্রে জানা গেছে, সৌদি আরবের সিদ্ধান্তকেই অনুসরণ করা হতে পারে৷

এদিকে, সৌদি আরব করোনা পরিস্থিতির অবসান না হওয়া পর্যন্ত মসজিদে নামাজ আদায় বন্ধ ঘোষণা করেছে৷ গত শনিবার দেশটির ধর্মমন্ত্রীর বরাত দিয়ে জানানো হয়, তারাবির নামাজ ঘরেই আদায় করতে হবে৷

বাংলাদেশে আড়াই লাখের বেশি মসজিদ রয়েছে৷ স্থানীয় গণমাধ্যমের হিসেবে, এদের বেশিরভাগেই ‘খতম তারাবি’ পড়ানো হয়৷ তবে এলাকাভিত্তিক কিছুসংখ্যক মসজিদ রয়েছে যেখানে ‘সুরা তারাবি’ পড়ানো হয়৷

Related Articles

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *