দলীয় আস্থা ভোটে জিতলেন বরিস জনসন

দলীয় আস্থা ভোটে জিতলেন বরিস জনসন

পাথেয় টোয়েন্টিফোর ডটকম : নিজের রক্ষণশীল দলের এমপিদের কাছে আস্থার ভোটে শেষ পর্যন্ত জিতলেন ব্রিটিশ প্রধানমন্ত্রী বরিস জনসন। তবে দলটির প্রায় দেড় শ এমপি তাঁর বিরুদ্ধে ভোট দিয়েছেন।

‘পার্টিগেট’ কেলেঙ্কারির জের ধরে বরিস জনসনের নৈতিকতা তথা নেতৃত্ব নিয়ে প্রশ্ন ওঠায় সোমবার রাতে এ ভোট অনুষ্ঠিত হয়। ২১২-১৪৮ ভোটে উৎরে যান বরিস জনসন। তবে পর্যবেক্ষকরা বলছেন এ জয়ের মানে এই নয় যে, বরিস জনসনের বিরুদ্ধে অভিযোগগুলো রাতারাতি উবে যাবে।

রক্ষণশীল দলের বেশ কয়েকজন এমপি দলের নেতাদের কাছে প্রধানমন্ত্রীর পদত্যাগ চেয়ে চিঠি দেওয়ার পর এ নিয়ে গোপন ভোটের উদ্যোগ নেওয়া হয়।

ভোটে বেশির ভাগ টোরি (রক্ষণশীল দলের চলতি নাম) এমপি জনসনের প্রতি অনাস্থা প্রকাশ করলে তাকে পদ থেকে অপসারিত করা হতো। টোরি নেতা এবং প্রধানমন্ত্রী হিসেবে তার স্থলাভিষিক্ত হওয়ার জন্য দলের মধ্যে নতুন করে প্রতিযোগিতা হতো।

এ ভোটের কারণে আগামী এক বছর আর দলীয় আস্থা ভোটের সম্মুখীন হতে হবে না বরিস জনসনকে। সোমবার বাংলাদেশ সময় দিবাগত রাত ১১টায় ভোটগ্রহণ শুরু হয়। রাত ১টা পর্যন্ত ভোটগ্রহণের কিছুক্ষণ পরেই গণণা শুরু হয়। ফল পাওয়া যায় ২টার পর পর।

গত মাসে ১০ নম্বর ডাউনিং স্ট্রিটে লকডাউনের বিধি ভেঙে অনুষ্ঠিত পার্টির বিষয়ে সরকারি কর্মকর্তা স্যু গ্রের প্রতিবেদন প্রকাশিত হওয়ার পর থেকে সরকারি দলের পেছনের সারির নেতাদের মধ্যে ক্ষোভ বাড়ছিল। ওই প্রতিবেদনে বলা হয়েছিল, ওইসব পার্টির বিষয়ে প্রধানমন্ত্রীসহ দায়িত্বশীলরা প্রত্যাশিত ভূমিকা পালন করেননি।

মন্ত্রিপরিষদের সদস্যরা ভোটের আগে বরিস জনসনের প্রতি সমর্থন জানান। অন্যদিকে প্রধানমন্ত্রীর দপ্তরও অনাস্থা ভোটের উদ্যোগকে স্বাগত জানিয়ে বলেছিল এটি কয়েক মাস ধরে চলা প্রশ্নের অবসান ঘটাবে।

  • সূত্র: বিবিসি

Related Articles

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *