দীর্ঘদিন পর ওমরাহ পালন করে বিদেশিদের উচ্ছ্বাস

দীর্ঘদিন পর ওমরাহ পালন করে বিদেশিদের উচ্ছ্বাস

পাথেয় টোয়েন্টিফোর ডটকম : করোনা সংক্রমণ রোধে দীর্ঘদিন পর ফের শুরু হয়েছে বিদেশিদের ওমরাহ পালন। দীর্ঘ বিরতির পর ওমরাহ পালনের সুযোগ পেয়ে উচ্ছ্বাস প্রকাশ করেছেন বিভিন্ন দেশ থেকে সৌদিতে আসা ওমরাহযাত্রীরা।

সৌদি সংবাদ মাধ্যম আরব নিউজ জানায়, করোনা টিকার উভয় ডোজ নেওয়া প্রথম বিদেশি দলটি সৌদি এসে পৌঁছেছে। বিদেশি ওমরাহযাত্রীদের সাময়িক নিষেধাজ্ঞা তুলে নেওয়ার পর ফের স্বাভাবিক ওমরাহ পালন শুরু হয়।

যুক্তরাষ্ট্র থেকে ওমরাহ পালনে আসা ইশফাক ইকবাল আনন্দ প্রকাশ করে বলেন, ‌’ওমরাহযাত্রী ও দর্শনার্থীদের স্বাস্থ্য সুরক্ষায় সৌদি কর্তৃপক্ষের প্রচেষ্টা খুবই স্পষ্ট। করোনা রোধে পবিত্র স্থানগুলোতে আমরা অভূতপূর্ব উন্নতি লক্ষ্য করছি।’

আলজেরিয়ার ওমরাহযাত্রী আবদুল মাজিদ আল জাজায়েরি বিদেশিদের ওমরাহ পালনের সুযোগ সৌদি সরকারের প্রশংসা করেন। তিনি বলেন, বিশেষ চাহিদাসম্পন্ন ও বয়ষ্কদের চলাচলের সেবা প্রশংসনীয় উদ্যোগ বলে তিনি জানান।

গত ১০ আগস্ট বিদেশিদের অনলাইনে ওমরার আবেদন শুরু হয়। এ সময় টিকা নেওয়া ১২-১৮ বছর বয়সীদের ওমরাহ পালনের অনুমোদন দেওয়া হয়। গত ১৩ আগস্ট নাইজেরিয়া থেকে আসা প্রথম দলকে ফুল ও উপহার দিয়ে শুভেচ্ছা জানায় সৌদি কর্তৃপক্ষ।

মুসল্লিদের স্বাস্থ্য সুরক্ষা নিশ্চিত করতে সব ধরনের স্বাস্থ্যবিধি অনুসরণ করেই ওমরাহ কার্যক্রমের ব্যবস্থা করে সৌদি কর্তৃপক্ষ। পবিত্র মসজিদুল হারামে প্রতিদিন ৬০ হাজারের বেশি মুসল্লির ওমরাহ পালনের ব্যবস্থা করা হয়। প্রতিমাসে ২০ লাখ মুসল্লি ওমরাহ পালন করবেন। এ সংখ্যা ধীরে ধীরে আরো বাড়ানো হবে বলে জানানো হয়।

স্বাস্থ্যবিধি অনুসরণ করে বিভিন্ন দেশ থেকে ওমরাহযাত্রীরা সৌদি যাচ্ছে। নির্দিষ্ট প্রক্রিয়া অনুসরণ করে তারা ওমরাহ পালন, মসজিদুল হারাম, মসজিদে নববীতে নামাজ আদায় ও রওজা শরিফ জিয়ারতের সুযোগ পাবেন। তবে তাদের সৌদি সরকার স্বীকৃত করোনা টিকার কোনো একটির পুরো ডোজ গ্রহণ করতে হবে। টিকাগুলো হলো, এক. ফাইজার অ্যান্ড বায়োএনটেক। দুই. অ্যাস্ট্রাজেনেকা। তিন. মডার্না। চার. জনসন অ্যান্ড জনসন।

করোনা সংক্রমণ রোধে গত বছরের মার্চ থেকে সৌদির বাইরের দেশের নাগরিকরা ওমরাহ পালন করতে পারেননি। এরপর অক্টোবর মাস থেকে শুধু সৌদিতে অবস্থানরত সীমিতসংখ্যক মুসল্লি স্বাস্থ্যবিধি মেনে ওমরাহ পালন করেন। ২০২০ সালে সৌদিতে অবস্থানরত মুসল্লিরা হজ পালন করেন। এ বছরও সৌদিতে অবস্থানরত প্রায় ৬০ হাজার মুসল্লি হজ পালন করেন।

সূত্র : আরব নিউজ

Related Articles

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *